ভালো হওয়ার অঙ্গীকার করে বাড়ি ফিরেছে বহালগাছির হায়দার

সরোজগঞ্জ প্রতিনিধি: বিগত দিনের ভুলত্রুটি সুধরে নিয়ে ভালো হওয়ার অঙ্গীকার বহালগাছির হায়দার আলী সরদারের। গতকাল শনিবার বিকেলে এলাকার জনপ্রতিনিধি ও স্ত্রীকে সাথে নিয়ে চুয়াডাঙ্গার সরোজগঞ্জ ক্যাম্প ইনচার্জ ইন্সপেক্টর নিখিল চন্দ্র অধিকারীর নিকট আত্মসমর্পণের পর এ অঙ্গীকার করে। পরে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়। মাদকের কানেকশনে চলাফেরা করায় তার নাম ওঠে সরোজগঞ্জ পুলিশের তালিকায়।
জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গার সদর উপজেলার বহালগাছি মাদক কবলিত গ্রাম হিসেবে চিহ্নিত। বহালগাছি গ্রামের খাকচার আলীর ছেলে হায়দার আলী দীর্ঘদিন ধরেই পুলিশের সন্দেহের তালিকায় ছিলো। সে তার এলাকার মাদক বিক্রি ও সেবনের সাথে সম্পৃক্ত। এ তথ্য পাওয়ার পর সরোজগঞ্জ ক্যাম্প পুলিশ প্রতিদিন তার বাড়িতে হানা দেয়। তাকে গ্রেফতারে পুলিশি তৎপরতা অব্যাহত রাখে। সূত্র বলেছে হায়দার আলী স্বাভাবিক জীবনে ফেরার জন্য উদগ্রিব হয়ে ওঠে। বিগতদিনের ভুলত্রুটি ও ভুলপথ থেকে স্বাভাবিক জীবনে ফেরার উপায় খুঁজতে থাকে। এরই এক পর্যায়ে গতকাল শনিবার বিকালে চুয়াডাঙ্গা সরোজগঞ্জ ক্যাম্প ইনচার্জ ইন্সপেক্টর নিখিল চন্দ্র অধিকারির নিকট হাজির হয়ে ভালো হওয়ার অঙ্গীকার করে। সরোজগঞ্জ ক্যাম্প ইনচার্জ ইন্সপেক্টর নিখিল চন্দ্র অধিকারি তাকে একবারের মতো সুযোগ দিয়ে তার স্ত্রী ও এলাকার জনপ্রতিনিধির জিম্মায় মুক্তি দেন। হায়দার আলী তার স্ত্রী ও জনপ্রতিনিধির সাথে বাড়ি ফেরে। তাকে তার স্ত্রী ও জনপ্রতিনিধির জিম্মায় ছেড়ে দেয়া হলেও তার ওপর পুলিশি নজরদারি অব্যাহত থাকবে বলে সংশ্লিষ্টসূত্র জানিয়েছে। অঙ্গীকারের পর সে আবারও মাদকের পথে পা বাড়ালে তার বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More