মহেশপুর সীমান্তে ভারতে পাচার করার সময় এক নারীকে ধর্ষণের চেষ্টা

মহেশপুর প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের মহেশপুর শ্যামকুড় সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে ভারতে পাচার করার সময় এক নারীকে ধর্ষণের চেষ্টা। ৪ দালালের নামে মামলা দায়ের। গত বুধবার দিবাগত রাত্রে উপজেলার শ্যামকুড় সীমান্ত দিয়ে গোপালগঞ্জ জেলার কোটালীপাড়া থানার এক নারীসহ ৪জনকে ভারতে পাচার করার সময় ভুট্টা ক্ষেতের মধ্যে আটকে রেখে ৪ দালাল ধর্ষণের চেষ্টা করে। ভিকটিমের আত্মচিৎকারে এলাকাবাসী শ্রীনাথপুর বিজিবিকে খবর দিলে তাকে ভুট্টাক্ষেত থেকে উদ্ধার করা হয়। এ সময় দালালরা পালিয়ে যায়। ওই নারীর সঙ্গীদের অন্যস্থান থেকে উদ্ধার করা হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই নারী বাদী হয়ে মহেশপুর থানায় একটি ধর্ষণের চেষ্টায় মামলা করেছে। ও নারী জানায় তার কাছে থাকা ৪৭ হাজার ৫শ টাকা, একটি সোনার চেন, এক জোড়া কানের দুল ও ৩টি মোবাইল দালালরা ছিনিয়ে নেয়।
জানা গেছে, গোপালগঞ্জ থেকে একটি দালাল চক্র ৩জন নারী, ২জন শিশু ও ৪জন পুরুষ মোট ৯জনকে যশোর জেলার ঝিকরগাছা উপজেলার নাভারনে রাজু নামে এক দালালের কাছে হস্তান্তর করে। তাকে মাথাপিছু ১০হাজার টাকা দেয়ার পর পাখি ভ্যানে করে মহেশপুর সীমান্তে পাঠায়। এরমধ্যে ৫জনকে সামন্তা সীমান্তে ও বাকি ৪জনকে শ্যামকুড় সীমান্তে নিয়ে যাওয়া হয়। পদ্মপুকুর কলেজের পেছনে ওই নারীকে (বাদী) দলছুট করে তার ওপর অত্যাচার করা হয়।
৫৮ বিজিবি’র অধিনায়ক লে.কর্নেল কামরুল আহসান জানান, তিনি রাতে সীমান্তে অবস্থান করে নিবিড়ভাবে তৎপরতা চালিয়ে ভিকটিমকে উদ্ধার ও দালালদের আটকের চেষ্টা করেছিলেন। মহেশপুর থানার অফিসার ইনচার্জ সাইফুল ইসলাম জানান এই ঘটনায় ৪জনকে আসামি করে মামলা হয়েছে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More