যুবতীর মরদেহ ময়নাতদন্ত শেষে দাফন

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার জোয়ার্দ্দারপাড়ায় তিশা রহমানের মরদেহ ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করা হয়েছে। গতকাল শনিবার দুপুর ১টার দিকে ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের নিকট হস্তান্তর করে সদর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। গতকাল আছরের নামাজের আগে বাগানপাড়ায় অবস্থিত পুরাতন কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে। পৌর এলাকার ৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাফিজুর রহমান মাফি বলেন, গতকাল দুপুর দেড়টার দিকে মরদেহ বাড়িতে পেঁৗঁছায়। আছরের নামাজের পূর্বে জানাজা শেষে পুরাতন কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।
চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. এএসএম ফাতেহ আকরাম বলেন, গতকাল দুপুরে আমি ও মেডিকেল অফিসার ডা. ওয়াহেদ মাহমুদ রবিনের সমন্বয়ে একটি মেডিকেল টিম ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করা হয়েছে। দুপুর ১টার দিকে সদর হাসপাতালে থাকা পুলিশের মধ্যস্থতায় মরদেহ পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।
চুয়াডাঙ্গা সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) একরাম হোসাইন দৈনিক মাথাভাঙ্গাকে বলেন, ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহ দুপুর ১ টার দিকে পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন এলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
উল্লেখ্য, গত শুক্রবার বিকেল ৫টার দিকে চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার জোয়ার্দ্দারপাড়ায় নিজ বাড়ি থেকে তিশা রহমান (১৮) নামে এক তরুণীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে পরিবারের সদস্যরা। পরে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। তিশা রহমান ওই এলাকার বাবুল আক্তারের মেয়ে। শুক্রবার রাতেই চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে পরিবারের প্রতিটি সদস্যকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করেন তারা। গ্রহণযোগ্য উত্তর দিতে না পারায় মরদেহটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেনি পুলিশ। গতকাল শনিবার ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে সদর থানা পুলিশ।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More