হারদী হাসপাতাল গেটেই মোটরসাইকেলের ধাক্কায় পথচারী নারীর মৃত্যু

 

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: আলমডাঙ্গার হারদী হাসপাতালের গেটেই মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায় মনজুয়ারা খাতুন (৪০) নামের এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে ওই নারী মোটরসাইকেলের ধাক্কায় ছিটকে পড়ে মারাত্মক আহত হলে তাকে প্রথমে হারদী হাসপাতাল ও পরে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসার এক পর্যায়ে তার মৃত্যু হয়। এদিকে আহত  মোটরসাইকেল চালক পুলিশ প্রহরায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

জানা গেছে, আলমডাঙ্গার হারদী ডিস মোড়ের মোহাম্মদ বাবুল খানের কন্যা স্বামী পরিত্যক্তা মনজুয়ারা খাতুন ওইদিন রাত ৮টার দিকে হারদী হাসপাতালের সামনে দিয়ে যাচ্ছিলেন। এ সময় মিরপুর উপজেলার চক হারদী মেকুরপুর গ্রামের মিজার উদ্দিনের ছেলে আনারুল (১৭) দ্রুত গতিতে মোটরসাইকেল চালিয়ে হাসপাতাল গেট অতিক্রম করাকালে মনজুয়ারা খাতুনকে ধাক্কা দেয়। মোটর সাইকেলের ধাক্কায় ওই নারী রাস্তার ওপর ছিটকে পড়ে মারাত্মক আহত হন। এ সময় মোটর সাইকেল চালক আনারুলও পড়ে গিয়ে আহত হন। আহত মনজুয়ারাকে উদ্ধার করে প্রথমে হারদী হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়ার পর তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে তাকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গভীর রাতে মৃত্যুবরণ করেন।

আনারুলের ভাইকে বিদেশে পাঠানোর সূত্রধরে গাংনী উপজেলার আমতৈল মানিকদিয়ার মহাবুল ইসলাম পালসার মোটরসাইকেল নিয়ে মিরপুর উপজেলার চক হারদী মেকুরপুর গ্রামে দাওয়াত খেতে আসেন। এসময় মহাবুলের মোটরসাইকেল নিয়ে আনারুল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হারদী গেটের সামনে দ্রুত গতিতে চালিয়ে গিয়ে ওই নারীকে ধাক্কা মারেন। এদিকে, মোটর সাইকেল চালক আনারুলকে বর্তমানে পুলিশ প্রহরায় হারদী হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

আলমডাঙ্গা থানা অফিসার ইনচার্জ সাইফুল ইসলাম জানান, ওই ঘটনায় থানায় মামলা করা হয়নি। নিহতের পরিবার লিখিত অভিযোগ দিতে সম্মত হননি।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More