১০ বছর বয়সি প্রিয়ার আত্মাহুতি!

দর্শনা অফিস ঃ রাগ-অভিমান কি তা যেমন বোঝার বয়স হয়নি, তেমনি জীবন-মরণের অর্থও বোঝেনার কথা নয় শিশুদের। অথচ টিভি দেখাকে কেন্দ্র করে ৫ বছর বয়সি খালাতো বোনের সাথে অভিমান করে নিজের জীবন হারালো ১০ বছর বয়সি প্রিয়া। সামান্য বকুনি সহ্য করতে না পেরে ঘরের আড়ার সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আতœহত্যা করেছে প্রিয়া। ঘটনাটি ঘটেছে দামুড়হুদার পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনিয়নের পারকৃষ্ণপুর মসজিদপাড়ায়। জানা গেছে, দেশের চলমান পরিস্থিতিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে বন্ধ। এ সুযোগে বাচ্চাদের নানা-দাদা সহ আতিœয়-স্বজনের বাড়িতে বেড়ানোর ধুম পড়েছে। জীবননগর বাজারপাড়ার লাল্টুর মেয়ে প্রিয়া মায়ের সাথে পারকৃষ্ণপুর মসজিদপাড়ার নানা আবুল খায়েরের বাড়িতে বেড়াতে এসেছিলো বেশ কয়েকদিন আগে। সেই সাথে মায়ের সাথে নানা বাড়িতে বেড়াতে যায় পারকৃষ্ণপুর বাজারপাড়ার জাহিদুল ইসলামের মেয়ে অন্নিকা (৫)। প্রিয়া ও অন্নিকা গতকাল শনিবার বেলা ১১ টার দিকে নানা বাড়িতে টিভি দেখছিলো। এক পর্যায়ে টিভির চ্যানেল পরিবর্তন নিয়ে দু খালাতো বোনের মধ্যে সৃস্টি হয় মতবিরোধ। অন্নিকা কার্টুন চ্যানেল দেখবে তো প্রিয়া দেখবে ভারতীয় সিরিয়ালের চ্যানেল। এ নিয়ে দু বোনের ঝগড়ার এক পর্যায়ে তাদের নানি ঘরে ঢুকে টিভি বন্ধ করে দেন। এ অভিমানে প্রিয়া ঘরের আড়ার সাথে উড়না জড়িয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আতœহত্যা করে। ঘন্টা খানেক পরে পরিবারের লোকজন খোজাখুজির এক পর্যায়ে বন্ধ ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভেতরে ঢুকে দেখতে পায় প্রিয়ার ঝুলন্ত লাশ। খবর পেয়ে দর্শনা থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ কামরুজ্জামান সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে যান। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরী করেছে। কোন পক্ষের পুলিশি অভিযোগ না থাকায় গতকালই এশা বাদ পারকৃষ্ণপুর গোরস্থানে প্রিয়ার লাশ বেদনা বিধুর পরিবেশে দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে।।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More