দেশ বিদেশের গুচ্ছ সংবাদ

সুস্থ অবস্থায় মাস্ক পরার দরকার নেই : বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা
মাথাভাঙ্গা মনিটর: সুস্থ অবস্থায় একজন ব্যক্তির মাস্ক পরার দরকার নেই। কেবল করোনা রোগী এবং যারা তাদের সংস্পর্শে রয়েছেন, তাদের মাস্ক ব্যবহার করতে হবে বলে জানিয়েছে বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা। প্রাণঘাতী করোনা সংক্রমণ ঠেকানোর একটি জনপ্রিয় ব্যবস্থা হচ্ছে মাস্ক ব্যবহার। তবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে মাস্ক পরায় নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে।
সংস্থাটির জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ড. এপ্রিল বলার সংস্থার ওয়েবসাইটে প্রকাশিত একটি ভিডিওতে বলেন, আপনার যদি জ্বর, কাশি, সর্দি না থাকে তাহলে আপনার মাস্ক পরার দরকার নেই। মাস্ক শুধু স্বাস্থ্য কর্মীরা পরবে। এছাড়া যারা করোনা রোগীর দেখাশোনা করছেন অথবা যাদের জ্বর এবং কাশি রয়েছে তারা পরবেন। ওই ভিডিও বার্তায় ড. এপ্রিল বলার আরও বলেন, মাস্ক মানুষের মধ্যে একটি মিথ্যা সুরক্ষা বোধ তৈরি করছে। ওয়ার্ল্ডওমিটারের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে এ পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৫৯ লাখ ৯ হাজার ৩ জন। মারা গেছেন ৩ লাখ ৬২ হাজার ৮১ জন।
ভারতের সঙ্গে সীমান্তবিরোধ মেটাতে তৃতীয় পক্ষের প্রয়োজন নেই : চীন
মাথাভাঙ্গা মনিটর: যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প মধ্যস্থতা করার আগ্রহ দেখালেও ভারত ও চীনের সীমান্তবিরোধ নিষ্পত্তিতে তৃতীয় কোনো পক্ষের প্রয়োজন নেই বলে জানিয়েছে বেইজিং। গতকাল শুক্রবার নিয়মিত ব্রিফিংয়ে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান মার্কিন প্রেসিডেন্টের মধ্যস্থতার প্রস্তাব উড়িয়ে দেন বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে। লাদাখ ও সিকিম সীমান্তে সম্প্রতি চীন ও ভারতের সেনাদের মধ্যে বাড়তে থাকা উত্তেজনা নিরসনে ট্রাম্প বুধবার এক টুইটে দুই দেশের মধ্যে মধ্যস্থতা করার প্রস্তাব দিয়েছিলেন। বলেছিলেন, ভারত ও চীন দু’পক্ষকেই তাদের চলমান সীমান্তবিরোধ নিষ্পত্তির মধ্যস্থতায় যুক্তরাষ্ট্র প্রস্তুত এবং আমাদের আগ্রহ আছে বলে জানিয়েছি। সম্প্রতি সীমান্তে ভারত ও চীনের সৈন্যরা একে অপরের সঙ্গে কয়েকদফা হাতাহাতিতে জড়িয়েছেন। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে উভয় দেশ সীমান্তে শক্তি বৃদ্ধি করছে বলেও জানানো হয়েছে।
ট্রাম্পের হুমকিতে পিছু হটলেন জুকারবার্গ
মাথাভাঙ্গা মনিটর: রাজনৈতিক চাপের মুখে বছর দুয়েক আগে গুজব প্রতিরোধে আরও কিছু করা উচিত বলে স্বীকার করে নিয়েছিলেন ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গ। তিনি বলেন, অনলাইনে বক্তব্য নিয়ন্ত্রণে কোম্পানির দূরত্ব বজায় রাখা কিংবা পদক্ষেপ নেয়া থেকে সরে আসা উচিত। খবরে বলা হয়েছে, তার কোম্পানিকে হোয়াইট হাউসের অনগ্রহভাজন করতেই জুকারবার্গ এ মন্তব্য করে থাকতে পারেন। প্রতিদ্বন্দ্বী সামাজিকমাধ্যম টুইটারের সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়ার পর তার এমন মন্তব্য এসেছে। ট্রাম্পের কিছু মন্তব্যের ফ্যাক্টচেকিং কিংবা ‘তথ্যের সত্যতা যাচাই’ করে দেখার চেষ্টা শুরু করেছিলো টুইটার। এরপর ক্ষুব্ধ ট্রাম্প বৃহস্পতিবার সামাজিকমাধ্যমগুলোকে দেয়া বেশকিছু আইনি সুরক্ষা প্রত্যাহারে একটি নির্বাহী আদেশে সই করেছেন।
কৃষ্ণাঙ্গ যুবককে হত্যার ঘটনায় উত্তাল যুক্তরাষ্ট্র
মাথাভাঙ্গা মনিটর: পুলিশের হাতে কৃষ্ণাঙ্গ যুবকের হত্যার ঘটনার প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্রের মিনিয়াপোলিস অঙ্গরাজ্যে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর সংঘর্ষ এখনো চলছে। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগো, ইলিনয়েস, লস অ্যাঞ্জেলসে, ক্যালিফোর্নিয়া, মেম্ফিস, টেন্নেসেতেও ওই হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ প্রদর্শিত হয়েছে। গত সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের মিনিয়াপোলিসের এক পুলিশ কর্মকর্তা জর্জ ফ্লয়েড নামক এক আফ্রিকান আমেরিকানকে নিচে শুইয়ে হাঁটু দিয়ে চেপে রাখেন। এর জেরে ওই ব্যক্তির মৃত্যু হয়। তিনি মৃত্যুর আগে বলতে থাকেন, ‘আমি নিঃশ্বাস নিতে পারছি না।’ পথচারীরাও পুলিশকে বলতে থাকেন তাকে চেপে না রাখার জন্য। কিন্তু এই কাতর আর্জি পুলিশ অফিসারের কানে যায়নি। এই পুলিশি অত্যাচারের ঘটনা পথচারীরা মোবাইল ফোনে রেকর্ড করেন। সেই ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হলে জনগণ বিক্ষোভে ফেটে পড়ে। বিক্ষোভকারীরা ফ্লয়েডের নামে স্লোগান দিচ্ছে এবং বলছে ‘আমি শ্বাস নিতে পারছি না’।

স্বাভাবিক বিচার ব্যবস্থায় ফেরা নিয়ে সিদ্ধান্ত ফুল কোর্টে
স্টাফ রিপোর্টার: বাড়ছে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর হার। এমন পরিস্থিতিতে রোববার থেকে খুলছে সরকারি অফিস, চলবে গণপরিবহনও। তবে তা স্বল্প পরিসরে। ওইদিন থেকে দেশের আদালতসমূহে স্বাভাবিক বিচার কার্যক্রম চালু করা হবে কিনা সেই বিষয়ে এখনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেনি সুপ্রিম কোর্ট। তবে সুপ্রিম কোর্টের আপিল ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতিদের নিয়ে অনুষ্ঠিত ফুলকোর্ট সভা থেকে শিগগিরই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে। ওই সভায় সভাপতিত্ব করবেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন।
এদিকে করোনাকালে বিচারক, আইনজীবী ও বিচারপ্রার্থী জনগণকে সুরক্ষা দিতে চালু করা হয়েছে ভার্চুয়াল কোর্ট। গত ১০ কার্যদিবসে দেশের অধস্তন আদালতসমূহে পরিচালিত ভার্চুয়াল কোর্টগুলো হতে জামিন পেয়েছেন ২০ হাজার ৯৩৮ জন আসামি। জেলা ও দায়রা জজ, মহানগর দায়রা জজ, চিফ জুডিসিয়াল ও চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত, শিশু আদালত ও বিভিন্ন ট্রাইব্যুনালে জামিনের জন্য ৩৩ হাজার ২৮৭টি জামিন আবেদন দাখিল করেন আইনজীবীরা। এইসব আবেদনের বিপরীতে ২১ হাজার আসামিকে জামিন দেয় আদালত। আর খারিজ করা হয়েছে প্রায় ১৩ হাজার জামিন আবেদন। আর এ সময়ে শিশু আদালত থেকে জামিন পেয়েছেন ২৮৭ শিশু। এরা দেশের বিভিন্ন শিশু ও কিশোর সংশোধনাগারে বন্দি ছিলো।
রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুতকেন্দ্র : সুরক্ষাব্যবস্থায় ব্যয় ২৪০০ কোটি টাকা
স্টাফ রিপোর্টার: রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুতকেন্দ্রের ভৌত সুরক্ষাব্যবস্থা (পিপিএস) নির্মাণ চুক্তি স্বাক্ষর করেছে রাশিয়ার কোম্পানি জেএসসি এলরন। গতকাল শুক্রবার রাশিয়ার কোম্পানিটির সঙ্গে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও পাবনার রূপপুর প্রকল্পের ‘পারমাণবিক নিরাপত্তা ও ভৌত সুরক্ষাব্যবস্থা সেল’র (এনএসপিসি) মধ্যে এ চুক্তিটি হয়। নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
সূত্র জানায়, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী, এসএসপিসি ও রাশিয়ার এলরনের মধ্যে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে চুক্তি স্বাক্ষর হয়। উক্ত স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে সেনাবাহিনীর চিফ অব জেনারেল স্টাফ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিবসহ সংশ্লিষ্টরা অংশ নেন। রাশিয়ার কোম্পানি জেএসসি এলরন ২ হাজার ৪০০ কোটি টাকা ব্যয়ে পারমাণবিক বিদ্যুতকেন্দ্রের ভৌত সুরক্ষাব্যবস্থা নির্মাণ করে দেবে। চুক্তি অনুযায়ী ২০২৪ সালের মার্চ মাসের মধ্যে পিপিএস নির্মাণকাজ শেষ করতে হবে। পাবনার রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুতকেন্দ্র প্রকল্পটি এখন পর্যন্ত দেশের সবচেয়ে বড় প্রকল্প। এর ব্যয় ধরা হয়েছে ১ লাখ ১৩ হাজার কোটি টাকা। এর নির্মাণ ব্যয়ের জন্য ৯০ শতাংশ অর্থ রাশিয়ার কাছ থেকে ঋণ হিসেবে নিচ্ছে বাংলাদেশ। বাকিটা বাংলাদেশ সরকার থেকে দেয়া হবে।
জবি খুললে ক্লাস-পরীক্ষা হবে ব্যাচভিত্তিক
স্টাফ রিপোর্টার: বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের প্রকোপ কিছুটা কমে আসায় বিভিন্ন দেশে ধীরে ধীরে শিথিল হচ্ছে লকডাউন। অন্যদিকে দিন দিন আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকলেও একই পথ হাঁটছে বাংলাদেশ। এরইমধ্যে দেশের বেসরকারি কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ে শুরু হয়েছে অনলাইন ক্লাস-পরীক্ষা। এদিকে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন অনলাইনে ক্লাস নেয়ার ব্যাপারেও তাদের সিদ্ধান্ত জানিয়েছে। লকডাউন শিথিল হয়ে বিশ্ববিদ্যালয় খুলার সিদ্ধান্ত হলে ব্যাচ ভিত্তিক ক্লাস-পরীক্ষা গ্রহণের পরিকল্পনা জানিয়েছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. মীজানুর রহমান।
লকডাউন সিথিল হয়ে ক্লাস-পরীক্ষা চালু হলে কিভাবে কার্যক্রম চলবে? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা ভাবছি যদি প্রতিদিন ব্যাচ ভিত্তিক ক্লাস নেয়ার। যেমন- আজ প্রথম বর্ষ কাল দ্বিতীয় বর্ষ এভাবে রোস্টার করে ক্লাস নেয়ার। অথবা সকালে প্রথম বর্ষ দুপুরের পর দ্বিতীয় বর্ষ এভাবে নিতে পারলে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ক্লাস করা যাবে। এরপর ক্লাসের সেকশন বাড়াতে হবে। কেননা একসাথে এতো শিক্ষার্থীকে ক্লাস করাতে পারবো না। তবে বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দিয়ে ক্লাস-পরীক্ষা শুরুর ব্যপারে সরকারের সিদ্ধান্তের জন্য অপেক্ষা করবেন বলে জানান তিনি।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More