দেশ বিদেশের গুচ্ছ সংবাদ

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বিরুদ্ধে মামলা করেছে আকলু
মাথাভাঙ্গা মনিটর: হোয়াইট হাউসের সামনে বর্ণবাদবিরোধী শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারীদের ওপর পুলিশি নির্যাতনের অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও অ্যাটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বারের বিরুদ্ধে মামলা করেছে মানবাধিকার সংগঠন দ্য আমেরিকান সিভিল লিবার্টিজ ইউনিয়ন (আকলু)। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার ব্ল্যাক লাইভ ম্যাটারস (কালোদের জীবনও মূল্যবান) নামের একটি সংগঠনের পক্ষে মামলাটি করে আকলু। ফোর্বসের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। গত সোমবার হোয়াইট হাউসের পাশেই সেন্ট জোনস গির্জায় যান ট্রাম্প। আগের দিন রোববার রাতে এ গির্জাটিতে আগুন লেগেছিলো। সেখানে গিয়ে বাইবেল হাতে ছবি তোলেন প্রেসিডেন্ট। তবে তার গির্জায় যাওয়ার পথ ‘পরিষ্কার’ করতে হোয়াইট হাউসের সামনে অবস্থান নেয়া শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারীদের টিয়ার শেল ছুঁড়ে ও লাঠিপেটা করে ছত্রভঙ্গ করে দেয় পুলিশ। এরপর ব্যাপক তোপের মুখে পড়েন ট্রাম্প। ওই ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় এবার মামলার মুখে পড়লেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট।
পুলিশের নৃশংসতার প্রতিবাদে মেক্সিকোয় বিক্ষোভ
মাথাভাঙ্গা মনিটর: ফেইস মাস্ক না পরায় গ্রেফতার হওয়া এক ব্যক্তির পুলিশি হেফাজতে মৃত্যুর ঘটনায় দায়ীদের বিচারের আওতায় নিয়ে আসতে বৃহস্পতিবার রাস্তায় নেমে আসেন মেক্সিকানরা। যুক্তরাষ্ট্রে জর্জ ফ্লয়েড নামের এক নিরস্ত্র যুবক পুলিশি হত্যাকা-ের শিকার হওয়ার পর বিশ্বের বিভিন্ন শহরে ক্ষোভে ফেটে পড়েন প্রতিবাদীরা। এরই মধ্যে প্রতিবেশী মেক্সিকোতেও বিক্ষোভ হয়েছে। জালিসকো রাজ্যের রাজধানীর ঐতিহাসিক কেন্দ্রে বিক্ষোভের সময় প্রাসাদসহ বিভিন্ন ভবনে আগুন ধরিয়ে দিতে দেখা গেছে। এছাড়া পুলিশের বেশ কয়েকটি গাড়িতেও আগুন দিলে তা ভস্মীভূত হয়ে যায়। বিক্ষোভকারীদের ওপর অতিরিক্ত বলপ্রয়োগ করতে দেখা গেছে পুলিশকে। জালিসকো শহরের গভর্নর এনরিক আলফারো এক ভিডিও বার্তায় বলেন, কেবল ফেইস মাস্ক না পরার দায়ে ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়নি। নিহত ব্যক্তিকে নিয়ে এর বাইরে বিস্তারিত কোনো তথ্য না দিয়ে তিনি বলেন, ছয় পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। এছাড়া ২২ বিক্ষোভকারীকে আটক করা হয়েছে।
সিরিয়ায় ইসরাইলের বিমান হামলা : নিহত ৯
মাথাভাঙ্গা মনিটর: সিরিয়ার মধ্যাঞ্চলীয় হামা প্রদেশে বৃহস্পতিবার রাতে বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরাইল। হামলায় সিরিয়া বাহিনীর ৪ সদস্যসহ দেশটির সরকার সমর্থিত বাহিনীর মোট ৯ যোদ্ধা নিহত হয়েছে। এলাকাটি সিরিয়ার সেনাবাহিনী ও ইরানিদের নিয়ন্ত্রিত। সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস জানিয়েছে, যারা নিহত হয়েছে, তারা স্থানীয় অথবা ইরান সমর্থিত বাহিনীর সদস্য। এতে আরো বলা হয়, এই হামলায় নিহতের সংখ্যা বাড়তে পারে কারণ এ ঘটনায় আহতদের অনেকেরই অবস্থা আশঙ্কাজনক। অবজারভেটরি আরো জানিয়েছে, সিরিয়ার বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা হামায় ইসরাইলের বিমান হামলার পাল্টা জবাব দিয়েছে।
হাতির মৃত্যুর ন্যায়বিচারের প্রতিশ্রুতি ভারতের
মাথাভাঙ্গা মনিটর: অবশেষে জনমতের কাছে মাথা নোয়াল রাষ্ট্র। কেন্দ্রীয় ও রাজ্য দুই তরফেই বলা হলো, কেরালায় হাতির অপমৃত্যুর তদন্ত হবে। কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর বৃহস্পতিবার বলেন, যেভাবে অন্তঃসত্ত্বা হাতিটিকে মারা হয়েছে, তা ভারতীয় সংস্কৃতির অঙ্গ নয়। একই সুরে কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন ন্যায়বিচারের প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেছেন, ‘আপনাদের উদ্বেগ বৃথা যাবে না।’ মুখ্যমন্ত্রীর কাছে বহু মানুষ এই হত্যায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। সামাজিক মাধ্যমে বয়ে গেছে প্রতিবাদের তুফান। অমানবিক আচরণে ছি ছি করেছে মানুষজন। সে কথার উল্লেখ করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, তিনজনকে সন্দেহ করা হচ্ছে। একটা তদন্তকারী দল গঠিত হয়েছে। পুলিশ ও বন দফতর একযোগে ওই ঘটনার তদন্ত করবে। ন্যায়বিচারের জন্য সরকার সবকিছু করবে। খাবারের সন্ধানেই সম্ভবত কেরালার সাইলেন্ট ভ্যালি জাতীয় উদ্যান থেকে মল্লপুরমের লোকালয়ে চলে এসেছিলো অন্তঃসত্ত্বা ওই হাতি। স্থানীয় বাসিন্দারা তাকে বিস্ফোরক ভর্তি আনারস খেতে দেয়। সেটি মুখে পুরতেই বিস্ফোরণ ঘটে। যন্ত্রণায় ছটফট করতে থাকে আহত হাতিটি। কিন্তু কারও কোনো ক্ষতি না করে যন্ত্রণা উপশমের চেষ্টায় সে ভেলিয়ারি নদীতে গা ডুবিয়ে পড়ে থাকে। ওভাবে দিন কয়েক পর ২৭ মে তার মৃত্যু হয়।

১২৩ উপসচিবকে যুগ্ম সচিব পদে পদোন্নতি
স্টাফ রিপোর্টার: জনপ্রশাসনে ১২৩ জন উপসচিবকে যুগ্ম সচিব পদে পদোন্নতি দেয়া হয়েছে। গতকাল শুক্রবার রাতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে এ বিষয়ে সরকারি আদেশ জারি করা হয়। ১৮তম ব্যাচের ৭৮ জন উপসচিব এবার যুগ্ম সচিব হয়েছেন। এ ব্যাচে উপসচিব আছেন ৯১ জন। পূর্বে পদোন্নতি পাননি এমন ৪৩ জনকে এবার পদোন্নতি দেয়া হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, এবার স্বাধীনতাবিরোধী সংশ্লিষ্টতা রয়েছে এরকম কোনো পরিবারের সন্তানকে পদোন্নতি না দেয়ার বিষয়টি বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়।
বাসায় মা-বাবা ও মেয়ের লাশ পচে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছিলো
স্টাফ রিপোর্টার: পাবনা জেলা শহরের দিলালপুর মহল্লার একটি বাড়ি থেকে গতকাল দুপুরে মা-বাবা ও মেয়ের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। দ্বিতল বাড়ির নিচতলার একটি কক্ষে রক্তাক্ত অবস্থায় লাশ তিনটি পড়ে ছিলো। পচা দুর্গন্ধ পেয়ে স্থানীয় লোকজন থানায় খবর দিলে পুলিশ গিয়ে লাশগুলো উদ্ধার করে। নিহত ব্যক্তিরা হলেন রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের (রাকাব) অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল জব্বার (৬০), তার স্ত্রী ছুম্মা খাতুন (৫০) ও মেয়ে সানজিদা খাতুন (১৩)। সানজিদা পাবনার একটি বেসরকারি স্কুলে সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী ছিলো। পুলিশের ধারণা, দুই থেকে তিন দিন আগে তাদের হত্যা করা হয়েছে। ডাকাত দল বাড়ির মালামাল লুটের জন্য এ হত্যাকা- ঘটাতে পারে। স্থানীয় লোকজন, নিহত ব্যক্তিদের স্বজন ও প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন জানান, আবদুল জব্বারের গ্রামের বাড়ি জেলার সাঁথিয়া উপজেলার কাশিনাথপুর ইউনিয়নের পাইকারহাট গ্রামে। তিনি অবসর গ্রহণের পর দোতলা বাড়িটির নিচতলায় পরিবার নিয়ে ভাড়া থাকতেন। করোনাভাইরাসের আতঙ্কে তারা বাড়ি থেকে তেমন বের হচ্ছিলেন না। বেশ কিছুদিন ধরেই বাড়ির বাইরে তাদের খুব কম দেখা গেছে। গত তিন-চার দিন তাদের একবারও বাড়ির বাইরে দেখা যায়নি। করোনার সময় ওই বাড়িতে অন্য কোনো পরিবার ছিলো না। এর মধ্যে শুক্রবার সকালে বাড়িটি থেকে পচা দুর্গন্ধ ছড়াতে থাকে। দুপুরের দিকে দুর্গন্ধ তীব্র হতে শুরু করলে স্থানীয় লোকজন থানায় খবর দেন। বেলা আড়াইটার দিকে পুলিশ গিয়ে বাড়ির একটি কক্ষে রক্তাক্ত ও অর্ধগলিত অবস্থায় তিনজনের লাশ পায়। বাড়ির দরজা বাইরে থেকে লাগানো ছিলো।
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের এলএলবি শেষ পর্ব পরীক্ষার ফল প্রকাশ
স্টাফ রিপোর্টার: একাডেমিক কাউন্সিল ও সি-িকেটের অনুমোদনসাপেক্ষে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে অনুষ্ঠিত ২০১৮ সালের এলএলবি শেষ পর্ব পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার প্রকাশিত ফলাফল সম্পর্কে কোনো পরীক্ষার্থী বা সংশ্লিষ্ট কারও কোনো আপত্তি/অভিযোগ থাকলে ফলাফল প্রকাশের ১ (এক) মাসের মধ্যে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের নিকট লিখিতভাবে আবেদন করতে হবে। অন্যথায় কোনো আপত্তি/অভিযোগ গ্রহণযোগ্য হবে না। কোনো কারণ দর্শানো ব্যাতি রেখে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এ ফলাফল বাতিল করার ক্ষমতা সংরক্ষণ করে বলে জানিয়েছেন ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ, তথ্য ও পরামর্শ দফতরের পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মো. ফয়জুল করিম।
জরুরি প্রয়োজনে রাবির হলে প্রবেশের অনুমতি
স্টাফ রিপোর্টার: জরুরি কাগজ ও জিনিসপত্র গুছিয়ে রাখার সুবিধার্থে শিক্ষার্থীদের হলে প্রবেশের অনুমতি দিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) হলো প্রশাসন। গত বৃহস্পতিবার হলো প্রাধ্যক্ষরা এ অনুমতি দেন। প্রাধ্যক্ষরা জানিয়েছেন, জরুরি প্রয়োজনে হলে নিজের বরাদ্দকৃত রুমে শিক্ষার্থীরা প্রবেশ করতে পারবে। তবে রুমে রাত কাটাতে পারবে না। এছাড়াও সব শিক্ষার্থীকে হলের ভিতরে একসঙ্গে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না। ফলে একদিনেই সব শিক্ষার্থীকে ক্যাম্পাসে না আসার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন। জরুরি কাজ শেষে ওইদিনই ক্যাম্পাস ছাড়তে হবে শিক্ষার্থীদের। যারা দূরদূরান্ত থেকে আসবে তাদের অবশ্যই আবাসস্থল নিশ্চিত করেই আসতে হবে।
তাপসি রাবেয়া হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক সাবিনা সুলতানা বলেন, সব প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও জিনিসপত্র গুছিয়ে রাখার সুবিধার্থে আগামী রোববার ও সোমবার সকাল ১০টা হতে ১২টা অথবা ১টা পর্যন্ত আবাসিক হল খোলা থাকবে। প্রয়োজনে আগামী সপ্তাহজুড়ে খোলা রাখা হবে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More