দেশ বিদেশের গুচ্ছ খবর

চীনকে রুখতে যুক্তরাষ্ট্রসহ ৮ দেশের জোট
মাথাভাঙ্গা মনিটর: চীনকে রুখতে যুক্তরাষ্ট্রসহ আট দেশের আইনপ্রনেতারা একটি জোট গঠন করেছেন। বৈশ্বিক বাণিজ্য, নিরাপত্তা ও মানবাধিকার ইস্যুতে চীনের উদীয়মান প্রভাব কমাতে শুক্রবার এ জোট গঠিত হয়েছে। এ জোটের নাম ইন্টার-পার্লামেন্টারি অ্যালায়েন্স অন চায়না। সদস্য দেশ হলো যুক্তরাষ্টু, যুক্তরাজ্য, জার্মানি, জাপান, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, সুইডেন ও নরওয়ে। টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, মার্কিন রিপাবলিকান সিনেটর মার্কো রুবিও, ডেমোক্র্যাট সিনেটর বব মেনেনদেজ, জাপানের সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেনারেল নাকাতানি, ইউরোপীয়ান পার্লামেন্টের পররাষ্ট্র বিষয়ক কমিটি সদস্য ম্রিয়াম লেক্সম্যান ও ব্রিটিশ কনজারভেটিভ এমপি লিয়ান ডানকান স্মিথ সবাই নতুন এ জোটের সহ-সভাপতি। হংকংয়ের উপর বেইজিংয়ের জাতীয় সুরক্ষা আইন আরোপের পদক্ষেপের নিন্দা জানিয়েছে জোটটি। নেতারা বলেন, এ আইন হংকংয়ের স্বায়ত্তশাসনের জন্য হুমকি। গোষ্ঠীটি বলেছে, তাদের উদ্দেশ্য হলো ‘উপযুক্ত এবং সমন্বিত প্রতিক্রিয়া তৈরি করা এবং গণপ্রজাতন্ত্রী চীন সম্পর্কিত বিষয়গুলোতে একটি সক্রিয় এবং কৌশলগত পদ্ধতিতে মোকাবেলা করা। হংকংয়ের কর্মকা- নিয়ে চীনকে লক্ষ্য করে টুইটারে একটি ভিডিও বার্তায় রুবিও বলেছেন, ‘চীনা কমিউনিস্ট পার্টির শাসনে চীন একটি বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জের প্রতিনিধিত্ব করে।’ তিনি বরাবরই বেইজিংয়ের সমালোচক।

সীমান্ত বিরোধ শান্তিপূর্ণভাবে নিষ্পত্তিতে রাজি চীন-ভারত
মাথাভাঙ্গা মনিটর: সীমান্তে শান্তিপূর্ণভাবে বিরোধ নিষ্পত্তিতে রাজি হয়েছে প্রতিবেশী দুই দেশ চীন ও ভারত। লাদাখে দেশ দুটির মধ্যে সামরিক পর্যায়ে আলোচনার একদিন পরে এ কথা জানানো হয়েছে। গতকাল রোববার ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, বিভিন্ন দ্বিপাক্ষিক চুক্তি অনুযায়ী শান্তিপূর্ণভাবে দুই দেশই বিরোধ নিষ্পত্তিতে রাজি হয়েছে। এদিকে এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দুই দেশের মধ্যে চলতি বছরে কূটনৈতিক সম্পর্ক ৭০ বছরে পদাপর্ণ করছে। এই চুক্তি দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক বিকেশে ভূমিকা রাখবে। পরিস্থিতি সমাধানে দুই দেশ সামরিক ও কূটনৈতিক কাজগুলো চালিয়ে যাবে বলে এতে যোগ করা হয়। এর আগে শনিবার দুই দেশের সীমান্তবর্তী পশ্চিম লাদাখের সেনা ছাউনি চুশুল-মলডোতে অনুষ্ঠিত এ বৈঠকে ভারতের পক্ষে নেতৃত্ব দেন ১৪ কোরের কমান্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল হরিন্দর সিং। অপরদিকে চীনের পক্ষে দক্ষিণ জিনজিয়ান অঞ্চলের সেনা কমান্ডার লিউ লিন অংশ নেন। তিনি চীনা অংশের মলডোতে লাইন অব অ্যাকচুয়া কন্টোলে (এলএসি) দায়িত্ব পালন করছেন।
অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় যোগ দিতে গিয়ে বিমান দুর্ঘটনায় নিহত ৫
মাথাভাঙ্গা মনিটর: যুক্তরাষ্ট্রের ইন্ডিয়ানা অঙ্গরাজ্যে অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় যোগ দিতে গিয়ে বিমান দুর্ঘটনায় একই পরিবারের ৫ সদস্য নিহত হয়েছেন। শুক্রবার রাতে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যে দুই ইন্জিন বিশিষ্ট পাইপার ৩১টি মডেলের বিমানটি দুর্ঘটনায় পতিত হয়। এতে বিমানের পাইলট (বিমানের মালিক) ল্যারি রে, তার স্ত্রী এবং তাদের সঙ্গে থাকা তিন সন্তান নিহত হন। পুতনম কাউন্টি জর্জিয়া শেরিফের কার্যালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ফ্লোরিডার উইলিস্টন থেকে পরিবার নিয়ে বিমানের পাইলট (বিমান মালিক) অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার অনুষ্ঠানে যোগ দিতে ইন্ডিয়ানার নিউক্যাসল যাচ্ছিলেন।
একসঙ্গে ২৫ স্কুলে শিক্ষকতা : কোটি টাকা আয়ের পর যেভাবে ধরা পড়লেন ভারতীয় তরুণী

মাথাভাঙ্গা মনিটর: ভারতের উত্তরপ্রদেশে একসঙ্গে ২৫ স্কুলে শিক্ষকতার অভিযোগে এক তরুণীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত ওই নারীর নাম অনামিকা শুক্লা। গত শনিবার উত্তরপ্রদেশের কাশগঞ্জ থেকে তাকে গ্রেফতার করেছে যোগীপুলিশ। সংবাদমাধ্যম এই সময় জানিয়েছে, এক বছরেরও বেশি সময় ধরে ২৫টি স্কুলে পড়াচ্ছিলেন কস্তুরবা গান্ধী বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা অনামিকা শুক্লা। এ পর্যন্ত বেতন বাবদ আয় করেছেন এক কোটি টাকা। পুলিশ সূত্রে খবর, ২৫টি স্কুলই কস্তুরবা গান্ধী বালিকা বিদ্যালয়ের আওতায়। কাশগঞ্জের প্রাথমিক শিক্ষা আধিকারিক অঞ্জলি আগরওয়াল জানান, এক বন্ধুকে দিয়ে শনিবার শিক্ষা দফতরে ইস্তফাপত্র পাঠিয়েছেন অভিযুক্ত শিক্ষিকা। পরে ওই বন্ধুকে বসিয়ে রেখে, তাকে প্রাথমিক শিক্ষা দফতরে আসতে বলা হয়। গাড়ি থেকে নামামাত্র অনামিকা শুক্লাকে প্রতারণার অভিযোগে পুলিশ গ্রেফতার করে। এরপর লোকাল থানায় নিয়ে গিয়ে পুলিশ তাকে জেরা শুরু করে।

কারাগারে থাকা আসামির রিমান্ড শুনানির বাধা দূর
স্টাফ রিপোর্টার: করোনাকালে সুপ্রিম কোর্টের কঠোর নির্দেশনা ছিলো কারাগার থেকে আসামি হাজির না করার। ওই নির্দেশনার পর কারাগার থেকে কোন আসামিকে আদালতে হাজির করা হয়নি। কিন্তু এর ফলে তদন্তাধীন ফৌজদারি মামলায় কারাগারে থাকা আসামির রিমান্ড আবেদনের শুনানি বন্ধ ছিলো। বাধাগ্রস্ত হচ্ছিলো অনেক চাঞ্চল্যকর মামলার তদন্ত কাজ। গতকাল রোববার সেই প্রতিবন্ধকতা দূর করল সুপ্রিম কোর্ট। এখন থেকে তদন্তাধীন মামলার আসামিকে কারাগারে রেখেই হবে রিমান্ড শুনানি। এ লক্ষ্যে ওই আসামিকে কারাগারে রেখেই ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে আদালতের বিচারকের সামনে হাজির করবে কারা কর্তৃপক্ষ। এজন্য রিমান্ড শুনানির আগে আদালত থেকে সংশ্লিষ্ট কারাগারে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের লিংক পাঠানো হবে। রোববার এ বিষয়ে নির্দেশনা জারি করে সুপ্রিম কোর্ট। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ হতে কারাবন্দী আসামিদের রক্ষায় তাদেরকে আদালতে হাজির না করে জামিন শুনানি করতে অধস্তন আদালতের বিচারকদেরকে নির্দেশ দিয়েছিলেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। একই সঙ্গে মামলার অন্যান্য কার্যক্রম কারাবন্দী আসামির অনুপস্থিতিতে পরিচালনা করা না গেলে তা মুলতুবি রাখতে বলা হয়।
লক্ষীপুর-২ আসনের এমপি পাপুল কুয়েতে গ্রেফতার
স্টাফ রিপোর্টার: কুয়েতে মানবপাচারে হাজার কোটি টাকার কারবারের অভিযোগে লক্ষীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য কাজী শহীদ ইসলাম পাপুলকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গতকাল রোববার বিকেলে কুয়েতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এসএম আবুল কালাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, কাজী শহীদ ইসলাম পাপুলকে গ্রেফতার করেছে কুয়েত সরকার। তবে কবে কখন তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে সে বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানাতে পারেননি তিনি। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে মানবপাচারকারী সিন্ডিকেটগুলোর বিরুদ্ধে কুয়েত সরকার সাঁড়াশি অভিযান শুরু করে। ধরপাকড় শুরু হলে নতুন একটি কোম্পানির নাম আলোচনায় চলে আসে। ওই কোম্পানি ১০ হাজার কর্মী কুয়েতে নিয়ে তাদের কাছ থেকে দুই কোটি দিনার আদায় করেছে। ওই সময় সংসদ সদস্য কাজী শহীদ ইসলাম পাপুলর নামে কুয়েতে মানবপাচারে হাজার কোটি টাকার কারবারের অভিযোগ উঠে। তাকেনিয়ে কুয়েতের গণমাধ্যমগুলো রিপোর্টও প্রকাশ করেন।
পালিত ছেলের হাতেই খুন হন পাবনার এক পরিবারে ৩ জন
স্টাফ রিপোর্টার: নিঃসন্তান ছিলেন অবসরপ্রাপ্ত ব্যাংক কর্মকর্তা আব্দুল জব্বার ও তার স্ত্রী ছুম্মা খাতুন। দত্তক নিয়েছিলেন একদিন বয়সী কন্যা শিশু সানজিদাকে। দেড় বছর আগে বাসার পাশের মসজিদের ইমাম তানভীরকে ছেলে সন্তান হিসেবে আপন করে নেন ওই দম্পতি। আর সেই সন্তানের হাতেই শেষমেষ তারা খুন হলেন। পাবনার দিলালপুর মহল্লায় ভাড়া বাসায় একই পরিবারের তিনজন খুন হওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন ও হত্যায় জড়িতকে আটক করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। হত্যয় জড়িত ছিলো নিহত আব্দুল জব্বারের পালিত ছেলে মসজিদের ইমাম তানভীর হোসেন (২৫)। তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তানভীর নওগাঁ জেলার মহাদেবপুর উপজেলার হরিপুর গ্রামের মৃত হাতেম আলীর ছেলে। মূলত টাকা পয়সা ও স্বর্ণালঙ্কারের লোভে নিঃসন্তান দম্পতি ও তাদের পালিত মেয়েকে নৃশংসভাবে হত্যা করে তানভীর।
মীরসরাইয়ে কারখানায় দগ্ধ হয়ে ৩ শ্রমিকের মৃত্যু
স্টাফ রিপোর্টার: চট্টগ্রামের মীরসরাই উপজেলার জোরারগঞ্জ থানাধীন সোনাপাহাড়ে অবস্থিত একটি কারখানায় কাজ করার সময় গরম তরল পদার্থে দগ্ধ হওয়া ৩ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত আরও তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। শনিবার রাত ৮টার পর এ দুর্ঘটনার পর রোববার বিকেল পর্যন্ত ওই তিনজনের মৃত্যু হয়। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিনের মতো শনিবার শ্রমিকরা কারখানায় কাজ করছিলো। হঠাৎ ওপর থেকে তাদের শরীরে কারখানার গরম তরল পদার্থ পড়ে। এতে কমর্রত ৬ জন শ্রমিক গুরুতরভাবে দগ্ধ হয়। দুর্ঘটনার পর আহতদের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ বার্ন ইউনিটে নেয়া হয়। সেখানে মো. আবুল কাশেমকে মৃত ঘোষণা করা হয়। রোববার দুপুর ২টা নাগাদ মারা যান মো. মহি উদ্দিন এবং মো. নজরুল ইসলাম। গুরুতর আহত সিকান্দার (৩৮), নুর হোসেন (২৮) ও গিয়াস উদ্দিনকে (২৯) অন্যত্র চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে বলে জানা গেছে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More