ঝিনাইদহের ফুর্তি করতে গিয়ে গণধোলাইয়ের শিকার : অতঃপর বিয়ে

বাজার গোপালপুর প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের বৈডাঙ্গায় রাসেল নামের এক যুবক নারীর সাথে ফুর্তি করতে গিয়ে জনতার হাতে ধরা পড়ে গণধোলাই শিকার হয়েছে। অবশেষে বিয়ের পিড়িতে বসতে হয়েছে তাদের। গত ঈদের দিন এই ঘটনা ঘটেছে।

জানা গেছে, ঝিনাইদহ সদর উপজেলার সাগান্না ইউনিয়নের সাহেব নগর গ্রামের আলী আহম্মদের ছেলে রাসেল হোসেন পাশে বৈডাঙ্গা গ্রামের এক যুবতি নারীর সাথে বেশ কিছুদিন ধরে গোপনে প্রেম করে আসছিলেন। বিষয়টি এলাকাবাসী রাসেলকে একাধিকবার নিষেধ করলেও কোনো কর্ণপাত করেনি। গত ঈদের দিন যখন সবাই কোরবানি নিয়ে ব্যস্ত তখন রাসেল বৈডাঙ্গা বাজারের পাশেই এক বাড়িতে ওই নারীর সাথে অসামাজিক কাজে লিপ্ত হয়। খবর পেয়ে এলাকার লোকজন হাতেনাতে রাসেলকে ধরে গণধোলাই দেন এবং এক পর্যায়ে তাকে ও নারীর সাথে বিয়ে দেয়া হয়। স্থানীয় ইউপি সদস্য আমিনুর রহমান সরকার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, রাসেলকে ওই নারীর সাথে ডাকবাংলা উত্তরনারায়নপুর মসজিদের ঈমাম নজরুল ইসলাম দেড় লাখ টাকা কাবিনে বিয়ে পড়ান। এই বিয়েতে বৈডাঙ্গার মজিবর রহমানের ছেলে রফিক ও মেয়ের চাচা বাবলুসহ এলাকার মাতবররা উপস্থিত ছিলেন।

গ্রামবাসী অভিযোগ করে জানান, তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন পত্রিকা, অনলাইনের সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে এলাকায় নানাভাবে চাঁদা আদায়ের অভিযোগ রয়েছে। তার পিতা ও মাতা মাদক ব্যবসার অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছে। সদর থানায় মামলা রয়েছে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More