আলমডাঙ্গায় পৃথক স্থানে দুজনের আত্মহত্যা

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: আলমডাঙ্গা জেহালা বেধবাড়িয়া ও হারদী কলেজপাড়ায় ২জন গলায় ওড়না দিয়ে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। গত ১২ অক্টোবর রাতে বেধবাড়িয়া গ্রামের  মধ্যবয়সী নারী তহমিনা খাতুন ও গত ৯ অক্টোবর বিকেলে হারদী কলেজপাড়ার রূপসী আত্মহত্যার চেষ্টা করে পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার রাতে মৃত্যুবরণ করে।

জানাগেছে, উপজেলার জেহালা ইউনিয়নের বেধবাড়িয়া গ্রামের আফাজ উদ্দিনের স্ত্রী তহমিনা খাতুন (৫০) মেয়ের ওপর অভিমান করে ১২ অক্টোবর রাতে নিজ ঘরের আড়ার সাথে উড়না দিয়ে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। ভোর রাতে সকালে আফাজ তার স্ত্রীকে ডাকতে গেলে তহমিনাকে ঝুলতে দেখে চিৎকার দিয়ে উঠে। এসময় প্রতিবেশিরা এসে লাশ মাটিতে নামায়। পরে তহমিনার ভাই আকুল হোসেন বাদি হয়ে আলমডাঙ্গা থানায় অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেন। অন্যদিকে আলমডাঙ্গার হারদী কলেজপাড়ার জিয়াউর রহমানের কিশোরী কন্যা রূপসী খাতুন (১৭) গত ৯ অক্টোবর বিকালে নিজ ঘরে ওড়না দিয়ে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পরে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হারদীতে ভর্তি করা হয়। ১১ অক্টোবর তাকে বাড়িতে নিয়ে আনা হয়। পরে ১২ অক্টোবর রাতে রূপসী খাতুন মারা যায়। পবিবারের দাবি রূপসী দীর্ঘদিন ধরে মেন্টাল সমস্যায় ভুগছিলেন। গতকাল সকালে জিয়াউর রহমান আলমডাঙ্গা থানায় অপমৃত্যু মামালা দায়ের করেন। দুটি অপমৃত্যু মামলা পেয়ে পরিবারের কারো কোনো আপত্তি না থাকায় দাফনের অনুমতি দেয় পুলিশ।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More