চুয়াডাঙ্গার দোস্ত গ্রাম থেকে ৯৯৯ নম্বরে ফোন : বাল্যবিয়ে রুখে দিলো পুলিশ

বেগমপুর প্রতিনিধি: বাল্যবিয়ে একটি সামাজিক ব্যাধি ও আইনত দ-নীয় অপরাধ। এমন আয়োজন দেখে চুয়াডাঙ্গার দোস্ত গ্রাম থেকে কে বা কারা পুলিশের জরুরি নম্বর ৯৯৯-এ ফোন দেয়। ফোন দেয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই বিয়ে বাড়িতে হিজলগাড়ি ক্যাম্প পুলিশের সদস্যরা হাজির। পুলিশি উপস্থিতি টেরপেয়ে কেউ কেউ পালিয়ে যায়। পুলিশ রুখে দেয় বাল্যবিয়ে।
পুলিশ জানায়, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার বেগমপুর ইউনিয়নের দোস্ত গ্রামের পূর্বপাড়ায় সোবাহানের মেয়ে আঁখি খাতুনের (১৩) বিয়ে ঠিক হয় আলমডাঙ্গা উপজেলার পারকুলা গ্রামের রহিদুল ইসলামের ছেলে রুবেলের (১৬) সাথে। গতকাল সোমবার বিয়ের আয়োজন চলছিলো সোবাহানের বাড়িতে। কে বা কারা পুলিশের জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ ফোন করে। সাথে সাথে ফিরতি নির্দেশনা আসলে হিজলগাড়ি ক্যাম্প পুলিশের সদস্যরা বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে বিয়ে বাড়িতে হাজির। পুলিশি উপস্থিতি টের পেয়ে কেউ কেউ সটকে পড়ে। বিয়ের যথাযথ কাগজপত্র দেখাতে উভয়পক্ষ ব্যর্থ হলে পুলিশ প- করে দেয় বাল্যবিয়ের আসর। আর বাল্যবিয়ের হাত থেকে রক্ষা পায় আঁখি ও রুবেল। এদিকে বিয়ের ঘটক নেহালপুর বেলেমাঠ পাড়ার আব্দুল খালেকের ছেলে দরবারের শাস্তির দাবি তুলেছে সচেতনমহল।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More