ঝিনাইদহের সেই ইউপি চেয়ারম্যানকে স্থানীয় সরকার বিভাগের অভিনন্দন

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: বাড়ি বাড়ি গিয়ে করোনার নমুনা সংগ্রহকারী ঝিনাইদহের হরিশংকরপুর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল মাসুমকে স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে অভিনন্দন জানানো হয়েছে। স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের ১ আগস্ট স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে আব্দুল্লাহ আল মাসুমকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে বলা হয়, ‘আপনার এ ব্যতিক্রমী উদ্যোগ মানবতা, দায়িত্ববোধ এবং মহানুভবতার এক অনন্য উদাহরণ সৃষ্টি করেছে।’ তিনি চেয়ারম্যানের এই কাজকে অন্যদের জন্য অনুকরণীয় বলে মন্তব্য করেন।
এদিকে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল মাসুম জানান, নমুনা সংগ্রহের পাশাপাশি শনিবার থেকে হরিশংকরপুর ইউনিয়নে টিকাদান কর্মসূচির জন্য সব প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। ইউপির পক্ষ থেকে ইতিমধ্যে সাড়ে ৬ হাজার মানুষের নাম নিবন্ধন করা হয়েছে। ১ আগস্ট থেকে তারা বিনামূল্যে নিবন্ধন কার্যক্রম পরিচালনা করছেন। ইউপির পক্ষ থেকে প্রতিটি ওয়ার্ডে একটি করে বুথ খুলে এই কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে। শনিবার ইউনিয়নের জেসি মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে টিকাদান কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন ঝিনাইদহ পৌরসভার মেয়র সাইদুল করিম।
আব্দুল্লাহ আল মাসুম জানান, গত রোববার আনুষ্ঠানিকভাবে নিবন্ধন কার্যক্রম চালু করা হয় ইউনিয়নের পাইকপাড়া, পলিয়ানপুর ও ভোজঘাট গ্রাম নিয়ে গঠিত ১নম্বর ওয়ার্ডে। এ উপলক্ষ্যে পাইকপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়মাঠে এক আলোচনাসভায় উপস্থিত ছিলেন হাটগোপালপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. ইউছুফ আলী, অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আব্দুল মান্নান, ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য আব্দুস সালেক, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন জোয়ার্দ্দার প্রমুখ।
আব্দুল্লাহ আল মাসুম জানান, তার ইউনিয়নে অনেক গরিব ও সহজ-সরল মানুষ রয়েছেন। তারা অনলাইনের মাধ্যমে নিবন্ধন করতে গিয়ে অনেক বিড়ম্বনায় পড়ছেন। তাই তিনি নিজেই উদ্যোগ নিয়ে ৯টি ওয়ার্ডে ৯টি বুথ খুলে নিবন্ধন করে দেয়ার কার্যক্রম পরিচালনা করেছন। তথ্য সেবাকেন্দ্রের উদ্যোক্তা শাহিন সিরাজের নেতৃত্বে চলছে এই কার্যক্রম। তাকে সহযোগিতা করেছেন ১১জন স্বেচ্ছাসেবক।
এ বিষয়ে বুথে থাকা রাজীব হাসান জানান, তারা প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে নিবন্ধন শুরু করেন। সাধারণ মানুষের মধ্যে টিকা নেয়ার ব্যাপক সাড়া মিলছে। নিবন্ধন করতে আসা জয়নাল আবেদীন বলেন, ‘পড়ালেখা না জানার কারণে অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন শুনে ভয় পাচ্ছিলাম। এখন ফ্রি রেজিস্ট্রেশন করে টিকা নেয়ার অপেক্ষায় আছি।’
ইউপি চেয়ারম্যান জানান, টিকা কার্যক্রমের জন্য তিনি চারটি বুথ তৈরি করেছেন। শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে সবাই যাতে টিকা নিতে পারেন, সেই ব্যবস্থা করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, পাড়াগাঁয়ের একটি ইউনিয়ন হরিশংকরপুর। যেখানে তিনি নানা কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকেন। প্রথম আলো পত্রিকার মাধ্যমে তার কাজ সম্পর্কে গোটা দেশের মানুষ জেনেছেন। তিনিও প্রশংসিত হচ্ছেন।
ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল মাসুম করোনা শনাক্তে বাড়ি বাড়ি গিয়ে নমুনা সংগ্রহের কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছেন। গত ১৫ জুলাই থেকে এখন পর্যন্ত এই কার্যক্রম চালু আছে। এ নিয়ে প্রথম আলোয় সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More