অসহায়-সুবিধাবঞ্চিত পরিবারের পাশে দাঁড়িয়ে কাজ করছে পুনাক

চুয়াডাঙ্গায় নারী পুলিশ সদস্যদের স্বাস্থ্য সচেতনতা বিষয়ক সভায় পুলিশ সুপার

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গায় নারী পুলিশ সদস্যদের স্বাস্থ্য সচেতনতা বিষয়ক বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শনিবার বেলা সাড়ে ১১টায় পুলিশ লাইনস ড্রিল শেডে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতি-পুনাক’র সভানেত্রী পুলিশ সুপারপত্নী ফরিদা ইয়াসমিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ আল মামুন। সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অর্থ ও প্রশাসন) আবু তারেক, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আনিসুজ্জামান লালন, সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার (এমওডিসি) ডা. শামীমা ইয়াসমিন ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) পত্নী শারমিন আক্তার।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতি (পুনাক) দেশের হয়ে জনকল্যাণে নিরলসভাবে কাজ করছে। পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতি (পুনাক) ১৯৮৬ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকেই নিয়মিত কার্যক্রমের মাধ্যমে বিভিন্ন সময়ে অসহায়, দুস্থ ও সুবিধাবঞ্চিত পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় পুনাক, চুয়াডাঙ্গার সকলকেই দেশের উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রায় নিজ নিজ অবস্থান থেকে এগিয়ে আসতে হবে। পুলিশ সুপার আরও বলেন যে, চুয়াডাঙ্গা জেলা শীতপ্রবণ হওয়ায় ডিউটিকালীন কোনো নারী পুলিশ সদস্য যেন অসুস্থ না হন; সেজন্য সিভিল সার্জন মহোদয়ের মাধ্যমে পুলিশ হাসপাতালে মেডিকেল অফিসার দ্বারা নিয়মিত স্বাস্থ্য বিষয়ক পরামর্শ ও চিকিৎসা সেবা প্রদান নিশ্চিত করা হয়েছে। বিশিষ্ট দার্শনিক নেপোলিয়ান বোনাপার্টের উদ্ধৃতি টেনে পুলিশ সুপার বলেন, আমাকে একটি শিক্ষিত সচেতন, স্বাস্থ্যবান মা দাও আমি তোমাদের একটি শিক্ষিত জাতি উপহার দেবো। আজকে মূলত মা জাতির জন্যই এই আয়োজন। তাই তোমাদের সকল নিয়ম-নীতি মেনে সুস্থ থাকতে হবে। মোটকথা সুস্থ থাকতে হলে অবশ্যই সচেতন হতে হবে।

পুনাক সভানেত্রী বলেন, পুনাক একটি জনকল্যাণমূলক প্রতিষ্ঠান। দেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতির সাথে সাথে বাংলাদেশ পুলিশ দেশপ্রেম নিয়ে দুর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। পুলিশের পাশাপাশি পুলিশ পরিবারের নারীদেরও এগিয়ে আসতে হবে, আত্মনিয়োগ করতে হবে, নিবেদিত হতে হবে। তিনি সকলকে দেশ ও জনগণের কল্যাণ সহ পিছিয়ে পড়া নারীদের কল্যাণে কাজ করার আহবান জানান।

এসএমসি এন্টারপ্রাইজের জয়া স্যানিটারি ন্যাপকিন’র সৌজন্যে অনুষ্ঠিত এ সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন এসএমসি এন্টারপ্রাইজের কুষ্টিয়া অফিসের সেলস ম্যানেজার আব্দুল্লাহ আল মামুন। পুলিশ পরিদর্শক আব্দুল বারেকের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মাহাব্বুর রহমান কাজল, জেলা গোয়েন্দা শাখার ওসি আলমগীর হোসেন, কোর্ট ইন্সপেক্টর জাহাঙ্গীর আলম, সিনিয়র এরিয়া এক্সিকিউটিভ এসএমসি কুষ্টিয়া মাসুদুর রহমান, সিনিয়র সেলস প্রমোশন এক্সিকিউটিভ কুষ্টিয়া মোহাম্মদ কাজীরুল ইসলাম, চুয়াডাঙ্গা জেলার এসএমসি এন্টারপ্রাইজের ডিস্ট্রিবিউটর রাজু সাহা প্রমুখ। অনুষ্ঠানে প্রায় দু-শতাধিক নারী পুলিশের মাঝে বিনামূল্যে স্যানেটারি ন্যাপকিন বিতরণ করা হয়। অনুষ্ঠানে জেলা পুলিশের বিভিন্ন পদমর্যাদার অফিসার-ফোর্স ও পুনাকের সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More