আলমডাঙ্গার ব্রাইট মডেল স্কুল কর্তৃপক্ষকে জরিমানা

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: সরকারী নির্দেশনা অমান্য করে দীর্ঘদিন ধরে স্কুলে ক্লাশ নেওয়ার অভিযোগে আলমডাঙ্গার ব্রাইট মডেল স্কুল কর্তৃপক্ষকে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত। ১০ মে বেলা ১১ টার দিকে শহরের কলেজপাড়ার একটি ভাড়া বাড়িতে ক্লাশ নেওয়ার সময় অভিযান পরিচালনা করেন আদালত। এ সময় আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সহকারী কমিশনার (ভুমি) হুমায়ুন কবীর ব্রাইট স্কুল কর্তৃপক্ষকে দন্ডবিধি ১৮৬০ সালের ২৬৯ ধারা মোতাবেক ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এরপর আবারও স্কুল পরিচালনা করলে পরবর্তীতে ব্রাইটের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও হুশিয়ারী করে দেন আদালত।
জানা গেছে, বৈশি^ক মহামারী করোনার কারনে সরকার দেশব্যাপী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের ঘোষনা দেয়। শহরের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও ব্রাইট মডেল স্কুল কর্তৃপক্ষ তাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা রাখে। এটা প্রশাসনের নজরে এলে ব্রাইট মডেল স্কুল বন্ধ রাখতে কড়া নির্দেশ দেয়। কিন্ত ব্রাইট মডেল স্কুল কর্তৃপক্ষ কৌশল অবলম্বন করে। তারা শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে মাসিক বেতন উত্তোলনের জন্য শহরের বিভিন্ন এলাকায় বাড়ি ভাড়া নিয়ে ক্লাশ পরিচালনা করতে থাকে। স্কুল কর্তৃপক্ষ শিক্ষার্থীদের ওই ভাড়া বাড়িতে ক্লাশে উপস্থিত নিশ্চিত করতে অভিভাবকদেরকে নানাভাবে উৎসাহিত করে আসছিল। স্কুলের প্রত্যক শ্রেনী শিক্ষকের জন্য বাড়ি ভাড়া করে ক্লাশ পরিচালনা করে আসছিল স্কুল কর্তৃপক্ষ। তারা প্রতি মাসে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে মাসিক বেতনও আদায় করছিল।
সরকারী নির্দেশনা অমান্য করে মাসের পর মাস স্কুল খোলা রাখায় ব্রাইট স্কুলের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও নেতিবাচক লেখালেখি লিখতে থাকে সচেতন মহল। এ অবস্থায় ১০ মে ভ্র্যাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হুমায়ুন কবীর কলেজ পাড়ার ব্রাইট মডেল স্কুলের একটি ভাড়া বাড়ির স্কুলে অভিযান পরিচালনা করেন। এ অভিযানে আলমডাঙ্গা থানার এসআই হাসনাইন , এসআই সিকদার রকিব সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More