আলমডাঙ্গায় রাতের আধারে প্রেমিকার সাথে দেখা করতে গিয়ে বিপত্তি

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: রাতের আধারে প্রেমিকার সাথে দেখা করতে তার ঘরে গিয়ে ধর্ষণ মামলায় জেলহাজতে গেলেন আলমডাঙ্গা নওদাবন্ডবিলের আশরাফুল হক নয়ন। গতকাল মঙ্গলবার আলমডাঙ্গা থানায় মামলা হওয়ার পর আশরাফুল হক নয়নকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করেছে পুলিশ।
মামলা সূত্রে জানাগেছে, আলমডাঙ্গা বেলগাছী ইউনিয়নের ফরিদপুর গ্রামের আশরাফুল হকের মেয়ে (১৪) এম সবেদ আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮ শ্রেণিতে লেখাপড়া করে। স্কুল খোলা থাকা অবস্থায় শুরু করে দীর্ঘদিন ধরে নওদা বন্ডবিল গ্রামের আনজের আলীর ছেলে আশরাফুল হক নয়ন (২৮) কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। তার প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় গত ৩ জুন সন্ধ্যায় স্কুলছাত্রীকে মোটরসাইকেলযোগে তুলে নেন আশরাফুল হক নয়ন। তাকে তুলে নিয়ে নয়নের আত্মীয় আলমডাঙ্গা উপজেলা পাড়ার সোহেলের বাড়িতে আটকে রেখে ধর্ষণ করে। পরে গত ৭ জুন কৌশলে স্কুলছাত্রী পালিয়ে বাড়ি চলে আসে। ৭ জুন রাতে আশরাফুল হক নয়ন রাতের আধারে গোপনে স্কুলছাত্রীর ঘরে প্রবেশ করে স্কুলছাত্রীকে ভয়ভীতি দেখিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। একপর্যায়ে স্কুলছাত্রী চিৎকার করলে নয়ন পালিয়ে যায়। ৮ জুন সকালে স্কুলছাত্রীর পিতা আশরাফুল হক বাদী হয়ে আলমডাঙ্গা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে অপহরণসহ ধর্ষন মামলা দায়ের করেন। পরে আলমডাঙ্গা থানা পুলিশ তাকে অভিযান চালিয়ে আশরাফুল হক নয়নকে গ্রেফতার করে নিয়ে আসে। গতকালই তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।
এদিকে, ওই এলাকার একাধিক ব্যক্তি জানিয়েছেন, আশরাফুল হক নয়ন ও স্কুল ছাত্রীর মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিলো। গত ৭ জুন রাতে প্রেমিকার সাথে দেখা করতে গেলে আশরাফুল হক নয়ককে ফরিদপুর গ্রামবাসী আটক করে। পরে স্কুল ছাত্রীর বাবা থানায় মামলা দায়ের করেন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More