আলমডাঙ্গায় ১০ কুকুর হত্যার ঘটনায় আদালতে মামলা

ডেস্ক নিউজ: চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় পাউরুটি খাবারের সঙ্গে বিষ মিশিয়ে ১০টি কুকুর হত্যার ঘটনায় আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। গত বুধবার চুয়াডাঙ্গার চিফ জুডিশিয়াল আদালতে এ মামলাটি দায়ের করেন প্রাণী কল্যাণ কর্মী ঢাকার ওষুধ ব্যবসায়ী মারুফুল হক রোমেল। মামলায় আলমডাঙ্গার সোনাতনপুরের মৃত মকছের আলীর ছেলে আব্বাস আলীকে (৪৫) একমাত্র আসামি করা হয়। মামলাটি আমলে নিয়ে উপজেলা প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরকে তদন্তের নির্দেশ দেন আদালতের বিচারক মিজানুর রহমান।

মামলায় উল্লেখ করা হয়, গত পয়লা মার্চ আলমডাঙ্গা উপজেলার সোনাতনপুর গ্রামের আব্বাস আলী খাবারে বিষ মিশিয়ে ১০টি কুকুর হত্যা করেন। পরে ৩ মার্চ আলমডাঙ্গা উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা. আব্দুল্লাহিল কাফি আলমডাঙ্গা থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। এ ঘটনায় সংক্ষুব্ধ হয়ে বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করা হয়।

প্রাণী কল্যাণ আইন ২০১৯- এর এ মামলায় দায়ের কাজে সহযোগিতা করেন জেলা জজ কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট শাহজাহান আলী, অ্যাডভোকেট আকবর আলি ও অ্যাডভোকেট তছিরুল আলম মালিক ডিউক।

এদিকে গত বুধবার (২ মার্চ) চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার শংকরচন্দ্র ইউনিয়নের দীননাথপুর গ্রামের মাদ্রাসাপাড়ায় এক গৃহবধূ পাঁচটি বন বিড়ালকে বাড়ির উঠানে বের করে নৃশংসভাবে পিটিয়ে হত্যা করে। পরে বাড়ির পাশেই মৃত বন বিড়ালগুলোকে মাটি চাপা দেওয়া হয়।

ঘটনার পর মৃত বনবিড়ালগুলোর হত্যার ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে প্রতিবাদ ও সমালোচনা শুরু হয়। এ ঘটনায় চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়।

কেয়ার ফর আনক্লেইমড বিস্টের (কাব) সভাপতি বখতিয়ার হামিদ বলেন, ১০টি প্রাণী হত্যা, পরদিন আবার মাসহ বনবিড়াল হত্যা করা হলো। পৃথক দুটি ঘটনায় মামলা হয়েছে, জিডি হয়েছে। আমরা যারা প্রাণী নিয়ে কাজ করছি তারা আশাবাদী যারা এই ঘটনায় জড়িত তাদের শাস্তির আওতায় আনতে পারলে প্রাণী হত্যা কমে আসবে।

এ ব্যাপারে কনজুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার সভাপতি অ্যাডভোকেট মানিক আকবর বলেন, প্রাণী হত্যা করলে যে আইনে শাস্তির বিধান রয়েছে এটা সাধারণ মানুষের অনেকেই জানেন না। যারা প্রাণী হত্যা করছে তাদের যদি শাস্তি হয় তাহলে অনেকেই জানবে প্রাণী হত্যা করলে তাদেরও শাস্তি হতে পারে। ফলে ভয়ে কেউ প্রাণী হত্যা করবে না।

চুয়াডাঙ্গার ভারপ্রাপ্ত বন কর্মকর্তা জাকির হোসাইন বলেন, প্রাণী হত্যায় পৃথক দুটি ঘটনায় আদালতে মামলা ও থানায় সাধারণ ডায়েরি হয়েছে। অবশ্যই অপরাধীরা শাস্তি পাবে।

 

উজ্জ্বল/ডেস্ক

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More