উৎসব শান্তিপূর্ণ করতে প্রয়োজন সম্মিলিত প্রচেষ্টা

চুয়াডাঙ্গা জেলা আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক কমিটির মাসিক সভায় জেলা প্রশাসক

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গায় আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকায় সন্তোষ প্রকাশ করে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান বলেছেন, ‘আইন শৃঙ্খলা যেহেতু চলমান প্রক্রয়া সেহেতু কর্তব্যরতদের নিজ নিজ ক্ষেত্রে সবসময় সতর্ক থেকে সর্বাত্মক দায়িত্বশীল হতে হবে। পহেলা বৈশাখ উদযাপন ও আসন্ন পবিত্র ঈদুল ফিতর উৎসব শান্তিপূর্ণ করতে পুলিশসহ আমাদের সকলকেই আন্তরিক হতে হবে। শহরে জানজোট নিরসনে সম্মিলিত প্রচেষ্টা প্রয়োজন। বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারী যেই হোক, তার বিরুদ্ধে অবশ্যই আইন প্রয়োগ করা হবে।’
চুয়াডাঙ্গা জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির বৈঠকে সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক আরও বলেন, ‘জমির উর্বরতা ধরে রাখতে মাটি কাটা রোধে সংশ্লিষ্ট সকলেই সজাগ রয়েছে। রাতের অন্ধকারে মাটি চুরি ও মাটি কাটা ঠেকাতে প্রয়োজনে রাতেও পুলিশের সহযোগিতায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হবে। সম্প্রতি মোবাইলফোন নম্বর ক্লোন করে প্রতারক চক্র অঞ্চল ভেদে বিভিন্ন ব্যক্তির নাম ভাঙিয়ে চাঁদাবাজি করছে বলে অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে অনমনীয় পদক্ষেপ জরুরি হয়ে পড়েছে। হাসপাতালে সরকারি নিয়োম মেনে সকাল ৮টা থেকে বেলা আড়াইটা পর্যন্ত যাতে মেডিকেল অফিসাররা নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করেন সে বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের সচেষ্ট হওয়ার পাশাপাশি হাসপাতাল এলাকা দালালমুক্ত করতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার সংখ্যা বৃদ্ধি করতে হবে।’
গতকাল রোববার সকাল ১০টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত জেলা আইন শৃঙ্খলা বিষয়ক কমিটির সভায় পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম, সিভিল সার্জান ডা. সাজ্জাদ হাসান, বিজিবি প্রতিনিধি, পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর আলম মালিক খোকন, উপজেলা চেয়ারম্যান আসাদুল হক বিশ^াস, জেলার ৪ উপজেলা নির্বাহী অফিসার, বিজ্ঞ পিপি অ্যাড. বেলাল হোসেন, স্পেশাল পিপি আবু তালেব বিশ^াস, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চুয়াডাঙ্গা জেলা ইউনিট সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক শওকত আলী, জেলা জাসদ সেক্রেটারি হাজি অ্যাড. আকসিজুল ইসলাম রতন, চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাব সভাপতি সরদার আল আমিন, চুয়াডাঙ্গা বাস মিনি বাস মালিক সমিতির সভাপতি মঈন উদ্দীন মুক্ত, জেলা কাজি সমিতির সভাপতি কাজী শামসুল হক প্রমুখ বক্তব্য উপস্থাপন করেন। সভায় বক্তব্য দিতে গিয়ে পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম বলেন, মোবাইলফোনে প্রতারক চক্র ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। দিনাজপুর রংপুর, রাজবাড়ি ও ফরিদপুর এলাকার পেশাদার প্রতারকের বিষয়ে তথ্য পাওয়া গেছে। ইতোমধ্যেই গ্রেফতারের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট থানায় তথ্য প্রদান করা হয়েছে। সিভিল সার্জন তার বক্তব্যে পবিত্র মাহে রমজানে রোজদারদের সুস্থতার লক্ষ্যে সেহরীর সময় গোস্ত পরিহার করে ইফতারিতে ভাজাপোড়ার বদলে ফল ফলারির দিকে আগ্রহী হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন বেশি বেশি করে পানি পান করা অতিব জরুরী। বর্তমানে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। চুয়ডাঙ্গা অনেকটাই ভালো অবস্থায় রয়েছে। টিকাকরণও প্রত্যাশিত গতিতে এগিয়ে চলেছে। হাসপাতালে নতুন তত্ত্বাবধায়ক নিযুক্ত হয়েছে। চিকিৎসকদের হাসপাতালে দায়িত্বপালনে তিনি দেখবেন। সহযোগিতা চাইলে সিভিল সার্জন কার্যালয় সর্বাত্মক সহযোগিতা করবে। জেলায় স্বাস্থ্য সেবার মান বৃদ্ধির লক্ষ্যে আমাদের সকলকেই আন্তরিকভাবে দায়িত্ব পালন করতে হবে। পৌর মেয়র বলেন, মশা নিধনের চেষ্টা করেও আমরা প্রত্যাশিত ফল পাচ্ছি না। তবুও পৌরবাসীর স্বস্তি দিতে মশক নিধন কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More