কারোনায় গার্ডের মৃত্যু : জীবননগর ইসলামী ব্যাংকের স্টাফ ও গ্রাহকদের মধ্যে ছড়িয়েছে চরম আতঙ্ক

জীবননগর ব্যুরো: ইসলামী ব্যাংক জীবননগর শাখার নৈশপ্রহরী দর্শনার সোলাইমানের (৫৯) করোনায় মৃত্যুতে ব্যাংকের স্টাফ ও ব্যাংকে যাতায়াতকৃত গ্রাহকের মধ্যে করোনা আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। ইতোমধ্যে বেশ কয়েকজন আতঙ্কিত স্টাফ অসুস্থবোধ করছেন। ফলে ব্যাংকের শাখাটি যে কোন মুহূর্তে লকডাউন হয়ে যেতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আতঙ্কিত ব্যাংক স্টাফদের করোনা ভাইরাস পরীক্ষার জন্য আগামী রোববার নমুনা নেয়া হবে বলে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ হতে জানানো হয়েছে।
জানা যায়, দর্শনা বাসস্ট্যান্ডপাড়ার মৃত গিয়াসউদ্দিনের ছেলে সোলাইমান আলী ইসলামী ব্যাংক জীবননগর শাখায় নৈশপ্রহরী হিসেবে কর্মরত ছিলেন। দায়িত্ব পালনকালে গত ৯ জুন তিনি অসুস্থ বোধ করতে তাকে ছুটি দেয়া হয়। বাড়ি ফিরে তিনি আরও অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে চুয়াডাঙ্গা হাসপাতালের আইসোলেশনে রাখা হয়। পরীক্ষায় তার করোনা পজিটিভ আসে। বৃহস্পতিবার তিনি আইসোলেশনে থাকা অবস্থায় মারা যান। ব্যাংকের ব্যাবস্থাপক নজরুল ইসলাম জানান, ছুটি পেয়ে তিনি বরিশালের বাড়িতে এসে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। তার স্ত্রী ও মেয়েও অসুস্থ। এছাড়া সোলাইমান ব্যাংকে কর্মরত থাকাকালীন ব্যাংকের ১১ জন অফিসার ছিলেন। সোলাইমানের মৃত্যুর পর আতঙ্ক ছড়িয়েছে। ব্যাংকের স্টাফরাও কম বেশী অসুস্থ বোধ করছেন।
জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. জুলিয়েট পারউইন জানান, ব্যাংক সাপ্তাহিক ছুটি হয়ে গেছে। আগামী রোববার খুলবে। ওইদিনই করোনা ভাইরাস পরীক্ষার জন্য ব্যাংকের সকল স্টাফদের নমুনা নেয়াসহ হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করা হবে। এদিকে ব্যাংকের স্টাফদের পাশাপাশি গার্ড সোলাইমান কর্মরত থাকাকালে যে সকল গ্রাহক ব্যাংকে যাতায়াত করেছেন তাদের মধ্যেও করোনা আতঙ্ক বিরাজ করছে বলে জানা গেছে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More