খুইয়েছেন ২ লাখ ২০ হাজার টাকা : সুপারভাইজার আটক

মেহেরপুরের আলসানি পরিবহনে সরোজগঞ্জের দুই যাত্রী মলম পাটির খপ্পরে

পাঁচমাইল প্রতিনিধি: মেহেরপুরের আলসানি পরিবহনের যাত্রী সরোজগঞ্জের দুই কাঁচামাল ব্যবসায়ী মলমপাটির খপ্পরে পড়ে ২ লাখ ২০ হাজার টাকা খুইয়েছেন। দুই কাঁচামাল ব্যবসায়ীকে অজ্ঞান অবস্থায় মেহেরপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদিকে আলসানি পরিবহন উদ্ধার ও সুপারভাইজারকে সরোজগঞ্জে আটক করেছে পুলিশ।

এ বিষয়ে চুয়াডাঙ্গার কুতুবপুর ইউনিয়নের বোয়ালিয়া গ্রামের সামসুল আলমের ছেলে মজিবুল রহমান (২৮) জানান, আমি ও সাহেবনগর গ্রামের মৃত ইছা হকের ছেলে মনোয়ার হোসেন (৫০) দুজনই কাঁচামাল ব্যবসায়ী। গত মঙ্গলবার বরিশাল থেকে বেলা ২টার দিকে সরোজগঞ্জ বাজারের আসার উদ্দেশে আলসানি পরিবহনে উঠি। পথিমধ্যে সুপারভাইজারকে আমরা বারবার বলি আমাদের সরোজগঞ্জ বাজারে নামিয়ে দিয়েন। যখন আমরা ঝিনাইদহে পৌঁছায় তখন আমাদের আর কোনো জ্ঞান ছিলো না। সুপারভাইজার রবিউল ইসলাম সরোজগঞ্জ বাজারে আমাদের না নামিয়ে মেহেরপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন। বুধবার সকালের দিকে আমরা কোনোরকম সুস্থ হলে দেখি আমার কাছে থাকা ১ লাখ ৬০ হাজার ও মনোয়ারের কাছে থাকা ৬০ হাজার টাকা নেই। ওই সময় আমরা বাড়িতে খবর দিই। পরে পরিবারের লোকজন এসে আমাদের বাড়িতে নিয়ে আসে। আমাদের অজ্ঞান করেছে পরিবহনের সুপারভাইজার রবিউল ইসলাম। কারণ তিনি আমাদের সরোজগঞ্জ বাজারে না নামিয়ে কেনো মেহেরপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে পালিয়ে যান?

এ বিষয়ে সরোজগঞ্জ ক্যাম্পের পুলিশের উপ-পরিদর্শক তাইফুজ্জামান জানান, আলসানি পরিবহনে সরোজগঞ্জের দুই কাঁচামাল ব্যবসায়ীকে অজ্ঞান করে ২ লাখ ৬০ হাজার টাকা নিয়ে নেয়া হয়েছে। ব্যবসায়ী দুজনের অভিযোগের ভিত্তিতে আলসানি পরিবহনের সুপারভাইজার রবিউল ইসলামকে আটক ও পরিবহনটি উদ্ধার করা হয়েছে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More