গাংনীর সাহারবাটিতে সংঘর্ষের ঘটনায় দু’টি মামলা : গ্রেফতার ১

গাংনী প্রতিনিধি: মেহেরপুর গাংনীর সাহারবাটি গ্রামে আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষ ও বোমা নিক্ষেপের ঘটনায় দু’টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। গতকাল রোববার পুলিশ একজনকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃত ব্যক্তি ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাহারবাটি বাজার কমিটির সভাপতি আতাউর রহমান টোকন।
পুলিশ জানায়, গত ২৪ এপ্রিল সকালে মেহেরপুর জেলা ছাত্রলীগ সহ-সভাপতি রাকিবুল ইসলাম টুটুল ও নৌকা মনোনীত বর্তমান চেয়ারম্যান গোলাম ফারুকের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এসময় পাঁচটি বোমার বিস্ফোরণ ঘটে। আহত হন উভয়পক্ষের চারজন। এ ঘটনায় উভয়পক্ষ পাল্টাপাল্টি দুটি মামলা দায়ের করেন। চেয়ারম্যান গ্রুপের পক্ষে মাবিয়া মলদারের ছেলে হাফিজুর রহমান বাদী হয়ে ২৬ জনকে আসামি করে একটি মামলা করেন। অপরদিকে শফিকুল ইসলামের ছেলে রাকিবুল ইসলাম টুটুল বাদী হয়ে ২৭ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন । মামলাটি দুটি তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে এসআই আব্দুর রাজ্জাক ও এসআই গোলাম মোস্তফাকে।
রাকিবুল ইসলাম টুটুলের দায়েরকৃত মামলার আতাউর রহমান টোকনকে রোববার সকালে চারাচারা বাজার থেকে গ্রেফতার করেছে গাংনী থানা পুলিশ।
গাংনী থানার ওসি বজলুর রহমান জানান, উভয়পক্ষ মামলা করেছে। আমরা আসামিদেরকে গ্রেফতারে জোর চেষ্টা করছি। সাহারবাটিতে আর কোনো ঘটনা যাতে না ঘটে সেজন্য পুলিশি টহলের ব্যবস্থা করা হয়েছে।
প্রসঙ্গত, সাহারবাটি গ্রামে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে স্থানীয় আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে ফিল্মি স্টাইলে পুলিশের উপস্থিতিতে বোমা নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান গোলাম ফারুক ও ছাত্রলীগ নেতা রাকিবুল ইসলাম টুটুলপক্ষের মধ্যে শনিবার সকাল ৯টার দিকে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে উভয়পক্ষে ৪জন আহত হয়েছেন বলে দাবি করা হয়েছে। এ দু’পক্ষের মধ্যে এক বছর আগে থেকেই দ্বন্দ্ব চলে আসছে।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More