চুয়াডাঙ্গার গড়াইটুপি ইউপি নির্বাচন : ভোটারদের মন জয় করতে প্রার্থীরা পার করছেন ব্যস্ত সময়

নজরুল ইসলাম: চুয়াডাঙ্গার গড়াইটুপি ইউপি নির্বাচনের আর মাত্র বাকী রয়েছে চারদিন। দিন ফুরিয়ে আসায় প্রার্থীরা ঝালিয়ে নিচ্ছেন শেষ প্রান্তের প্রচার প্রচারণা। ভোটারদের মন জয় করতে ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রার্থীরা। এ নির্বাচনে ৯টি ভোট কেন্দ্রে ভোটার সংখ্যা রয়েছে ১৬ হাজার ৪৭৪ জন। যার মধ্যে পুরুষ ভোটার সংখ্যা ৮ হাজার ৩০৫ জন এবং মহিলা ভোটার ৮ হাজার ১৬৯ জন। কোন গ্রামের ভোটাররা কোন কেন্দ্রে ভোট দেবেন তা নির্ধারণ করে ফেলেছেন নির্বাচন কমিশন। এদিকে ভোট গ্রহণের চারদিন বাকী থাকলেও এখন পর্যন্ত প্রশাসনের ভূমিকায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন চেয়ারম্যান মেম্বার প্রার্থীসহ ভোটাররা। শেষটা দেখার অপেক্ষার প্রহর গুনছে ইউনিয়নবাসী।

চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার নবগঠিত গড়াইটুপি ইউপি নির্বাচন ২০ অক্টোবর। নবগঠিত ইউনিয়নে প্রথমবারের মতো ভোট হওয়ায় সকলের মধ্যে বিরাজ করছে উৎসাহ উদ্দীপনা। ভোট গ্রহণের আর মাত্র চারদিন বাকী থাকায় প্রার্থীরা শেষপ্রান্তের প্রচার প্রচারণা ঝালিয়ে নিচ্ছেন। নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানাগেছে, এ নির্বাচনে ইউনিয়নের ভোটার সংখ্যা হচ্ছে ১৬ হাজার ৪৭৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার সংখ্যা ৮ হাজার ৩০৫ জন এবং মহিলা ভোটার ৮ হাজার ১৬৯ জন। ভোট কেন্দ্র রয়েছে ৯টি। যে সমস্ত গ্রাম নিয়ে গঠিত কেন্দ্র ভিত্তিক ভোটার সংখ্যা হচ্ছে কালুপোল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ১ হাজার ৬২৭ জন, গোস্টবিহার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ১ হাজার ৫৮৪ জন (খেজুরতলা ৭০৪ ও গোস্টবিহার ৮৮০ জন), খাড়াগোদা পুরাতন হাটখোলা কেন্দ্রে ১ হাজার ৫৭০ জন (খাড়াগোদায় ১১২৮ ও জামালপুর ৪৪২ জন), খাড়াগোদা মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ১ হাজার ৭৫৯ জন (গড়াইটুপি ১৫২৯ ও বিত্তেরদাড়ি ২৪০ জন), তেঘরি হাফিজিয়া মাদরাসা কেন্দ্রে ২ হাজার ৪৪ জন (তেঘরি ১৮০৬ ও কলাগাছি ২৩৮ জন), গহেরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ১ হাজার ৪০৩ জন, বাটিকাডাঙ্গা প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ১ হাজার ৮৪৪ জন (বাটিকাডাঙ্গায় ১১৬৭ ও সুজায়েতপুর ৬৭৭ জন), সড়াবাড়িয়া  প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ২ হাজার ৫৫৮ জন (সড়াবাড়িয়া ১৪৯৮ ও খাসপাড়ায় ১০৬০ জন) ও গবরগাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ২ হাজার ৭৫ জন (গবরগাড়া ১৬৫৪ ও সিলিন্দিপাড়ায় ৪২১ জন)। ৯টি কেন্দ্রে কক্ষ সংখ্যা রয়েছে ৫৯টি। এদিকে ১৮ অক্টোবর প্রচার প্রচারণার শেষদিন। প্রচারণার সময় ঘনিয়ে আসায় প্রার্থীরাসহ পরিবারের লোকজন ভোটারদের পক্ষে আনতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। যে যার কৌশল অবলম্বন করে দিন-রাত চালিয়ে যাচ্ছেন প্রচার প্রচারণা। তবে এখনও সবদিক থেকে সুবিধা পাওয়ার আসায় অনেক ভোটার মুখ খুলছেন না। যে প্রার্থীই যাচ্ছেন তাকেই দিচ্ছেন ভোট দেবার প্রতিশ্রুতি। কে কাকে কোন প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন ২০ অক্টোবর ফলাফল ঘোষণার পরই তা পরিস্কার হবে সকলের কাছে।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More