চুয়াডাঙ্গার নবগঠিত গড়াইটুপি ইউপি নির্বাচনে ভোটারদের মধ্যে উৎসাহ উদ্দীপনা

বর্তমান চেয়ারম্যানসহ আলোচনায় ৮ নতুন মুখ

চেয়ারম্যান পদে আ.লীগের মনোনয়ন চান তিনজন : কে পাচ্ছেন দলীয় প্রতীক জানা যেতে পারে আজ

বেগমপুর প্রতিনিধি/গড়াইটুপি প্রতিনিধি: আগামী ২০ অক্টোবর চুয়াডাঙ্গার নবগঠিত গড়াইটুপি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। এ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ থেকে তিনজন দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। ২৩ সেপ্টেম্বর মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন।

জানা গেছে, গড়ইটুপি পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী হিসেবে তিনজন দলীয় ফরম সংগ্রহ করেছেন। তারা হলেন খাড়াগোদা গ্রামের মৃত আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে গড়ইটুপি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহিদুল ইসলাম, সড়াবাড়ীয়া গ্রামের হাজি মফিজ উদ্দীনের ছেলে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ ও গড়াইটুপি গ্রামের সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম সাইদুর রহমান ছাব্দারের ছেলে আ.লীগ নেতা শফিকুর রহমান রাজু। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী তিনজনই প্রথম বারের মতো নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। শিক্ষকতার পাশিপাশি তিনি চেয়ারম্যান পদে লড়াই করার জন্য মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন। কে পাবেন দলীয় মনোনয়ন এ নিয়ে ভোটার ও দলীয় নেতা-কর্মীদের মধ্যে জল্পনা-কল্পনা চলছে। তবে তিন প্রার্থীই দলীয় মনোনয়ন পাবেন বলে আশাবাদী। তবে দলীয় মনোনয়ন না পেলে দল যাকে মনোনয়ন দেবে তার পক্ষে কাজ করবেন বলে তিনি জানান।

জাহিদুল ইসলাম বলেন, ‘দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছি। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছি সে হিসেবে শতভাগ আশাবাদী আমি মনোনয়ন পাবো।’ একই ধরণের কথা বললেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ। তিনি বলেন, দলের ইউনিয়নের সর্বস্তরের নেতা-কর্মী আমাকে চায়।’ সে হিসেবে দল আমাকে মনোনয়ন দেবে বলে আমি শতভাগ আশাবাদী। তবে দলীয় মনোনয়ন না পেলে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াবেন বলে তিনি জানান।

শফিকুর রহমান রাজু বলেন, তিনি দলীয় মনোনয়ন পেতে শতভাগ আশাবাদী। তবে মনোনীত না হলে দলীয় সিন্ধান্তের বাইরে যাবেন না। এছাড়াও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন উত্তোলন করেছেন খেজুরতলা গ্রামের মো. শওকত আলীর ছেলে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের একাংশের সভাপতি আব্দুল মতিন। তিনি দলীয় মনোনয়ন না পেলেও শেষ পর্যন্ত মাঠে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।  তবে দলীয় সূত্র বলছে, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ড একক প্রার্থী নির্ধারণ করবে। আজ কালের মধ্যে তা জানা যাবে। শেষ পর্যন্ত কার ভাগ্যে জুটবে নৌকা সেটাই দেখার বিষয়।

এদিকে তিতুদহ ইউপির বর্তমান চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা আকতার হোসেন মনোনয়ন উত্তোলন করেছেন। তিনি তিতুদহ ইউপি চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করে ২৩ সেপ্টেম্বরের মধ্যে মনোনয়নপত্র জমা দেবেন বলে জানিয়েছেন। দলীয় মনোনয়ন পাবেন বলে তিনি শতভাগ আশাবাদী।

স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন তেঘরী গ্রামের মৃত আব্দুর রহমান বিশ্বাসের ছেলে মোহাম্মদ রেজাউল করিম। তিনি জামায়াতের সদর উপজেলা আমির হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। শিক্ষকতার পাশপাশি চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে মাঠে নেমেছেন।

ইউনিয়ন ঘুরে সম্ভব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসাবে আরও যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন বিএনপি নেতা রহমত উল্লাহ, গড়াইটুপি ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি রাশেদুজ্জামান পলাশ ও যুবলীগ নেতা মনিরুজ্জামান মনি। শেষ পর্যন্ত কজন মাঠে থাকবেন সেটাই এবার দেখার পালা।

এদিকে নবগঠিত গড়াইটুপি নতুন ইউনিয়ন পরিষদ হিসাবে প্রথমবারের মত অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে নির্বাচন। তাই নতুন ভোটারদের মধ্যে বিরাজ করছে বাড়তি উৎসাহ উদ্দীপনা। ইউনিয়নের ভোটাররা সারাদিনের কর্মব্যবস্থা শেষ করে বিকেল হতেই চায়ের দোকান কিংবা গ্রামের মোড়গুলোতে ভিড় জমাচ্ছে। সবারই মুখে একই আলোচনা প্রার্থী এবং ২০ অক্টোবারের ভোট নিয়ে। আর প্রার্থীরা ভোট ভিক্ষা করতে ঘুরছে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। নবগঠিত গড়াইটুপি ইউনিয়নের গ্রাম এবং ওয়ার্ডগুলো হচ্ছে কালুপোল ১নং ওয়ার্ড, গোস্টবিহার ও খেজুরতলা ২নং ওয়ার্ড, খাড়াগোদা ও জামালপুর ৩নং ওয়ার্ড, গড়াইটুপি ও০ বিত্তেরদাড়ি ৪নং ওয়ার্ড, তেঘরি ও কলাগাছি ৫নং ওয়ার্ড, গহেরপুর ৬নং ওয়ার্ড, বাটিকাডাঙ্গা ও সুজায়েতপুর ৭নং ওয়ার্ড, সড়াবাড়িয়া ও খাসপাড়া ৮নং ওয়ার্ড এবং গবরগাড়া ও ছিলন্দিপাড়া ৯নং ওয়ার্ড। এবারের নির্বাচনে মোট ভোটার ১৬ হাজার ৪৪৫ জন। যাদের মধ্যে নারী ভোটার ৮ হাজার ৪৫৪ এবং পুরুষ ভোটার ৮ হাজার ২৯১ জন। যাদেরকে ইভিএম-এর মাধ্যমে ভোট দিয়ে আগামী ৫ বছরের জন্য এক জন চেয়ারম্যান, ৯ জন মেম্বার এবং ৩ জন সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার নির্বাচিত করতে হবে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More