চুয়াডাঙ্গার নবগঠিত গড়াইটুপি ইউপি নির্বাচন সমাচার  

মধ্যরাতে শেষ হচ্ছে প্রচার প্রচারণা : এবার ভোটারদের কথা রাখার পালা

বেগমপুর প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গার নবগঠিত গড়াইটুপি ইউপি নির্বাচনের আর মাত্র ২দিন বাকি। ভোট গ্রহণের ৪৮ ঘন্টা পূর্বে প্রচার প্রচারণা বন্ধের আইন থাকায় আজ মধ্যরাতে শেষ হচ্ছে নির্বাচনী সকল ধরণের প্রচার প্রচারণা। প্রচার প্রচারণা বন্ধ থাকলেও মোবাইলের মাধ্যমে প্রার্থীরা প্রয়োজন সেরে নেবেন বলে সচেতন মনে করছেন। শেষ মুহূর্তের প্রচার প্রচরণায় প্রার্থীরা সাধ এবং সাধ্যের মধ্যে ভোটারদের জন্য করেছেন অনেক কিছু। প্রার্থীরা কে কতটুকু কিভাবে প্রচার প্রচারণা করেছেন তার প্রতিদান মিলবে নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার মধ্য দিয়ে। এদিকে প্রতিটি প্রতিযোগিতায় জয় পরাজয় অবধারিত। প্রতিটি নির্বাচন একটি উৎসবমুখর প্রতিযোগিতা। এদিকে ফলাফল যাই হোক না কেনো প্রার্থীরা তা সানন্দে গ্রহণ করে নেবেন বলে জানিয়েছেন।

২০ অক্টোবর চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার নবগঠিত গড়াইটুপি ইউপি নির্বাচন। নির্বাচনের আর মাত্র ২দিন বাকি। নির্বাচন আচরণবিধিতে ভোট গ্রহণের ৪৮ ঘন্টা পূর্বে প্রচার প্রচারণা নিষিদ্ধ থাকায় আজ রোববার মধ্যরাত থেকে শেষ হচ্ছে সকল ধরণের প্রচার প্রচারণা। তবে প্রযুক্তির এ যুগে প্রচার প্রচারণা বন্ধ থাকলেও প্রয়োজনীয় কাজ মোবাইলে প্রার্থীরা সেরে নেবেন বলে নেতাকর্মীরা মনে করছেন। শেষ মুহূর্তের প্রচার প্রচরণায় সাধ এবং সাধ্যের মধ্যে প্রার্থীরা ভোটারদের নিকট থেকে চেয়ে নিয়েছেন দোয়া এবং ভোট। প্রার্থীরা তাদের কথা রেখেছেন, এখন কথা রাখার পালা ভোটারদের। কে কাকে কি কথা দিয়েছিলেন তা জানা যাবে ভোট গণনার পর। এ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৫ জন, সাধারণ (পুরুষ) সদস্য পদে ৪৪ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা সদস্য হিসেবে ৭ জন। চেয়ারম্যান প্রার্থীর তালিকায় আছেন তিতুদহ ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান আকতার হোসেন (ধানের শীষ), শফিকুর রহমান রাজু মাস্টার (নৌকা), আব্দুল ওয়াহেদ (ঘোড়া-স্বতন্ত্র), রেজাউল করিম (মোটরসাইকেল-স্বতন্ত্র), আব্দুল মতিন (আনারস-স্বতন্ত্র)। মেম্বার প্রার্থীদের মধ্যে আছেন সংরক্ষিত সদস্য পদে ১নং ওয়ার্ডে উম্মে হাসিনা (বক), রওশন আরা বেগম (হেলিকপ্টার) ও নাসিমা খাতুন (মাইক), ২নং ওয়ার্ডে তাসলিমা খাতুন (মাইক) ও মৌসুমী বেগম (বক) এবং ৩নং ওয়ার্ডে শাহিনুর বেগম (বক) ও তাছলিমা খাতুন (মাইক) প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন। সাধারণ সদস্য পদে ১নং ওয়ার্ডে পিন্টু মিয়া (মোরগ), মোক্তার হোসেন (তালা), সাঈদ খোকন (ফুটবল),  স্বপন আলী (টিউবওয়েল) ও আসাদুল হক (বৈদ্যুতিক পাখা) ২নং ওয়ার্ডে রবিউল ইসলাম (ফুটবল), আব্দুল হক (টিউবওয়েল) ও ইসানুল হক (মোরগ), ৩নং ওয়ার্ডে হাফিজুর রহমান (মোরগ), ছানোয়ার হোসেন (ফুটবল) ও মোমিন মালিতা (টিউবওয়েল), ৪নং ওয়ার্ডে আক্কাছ আলী (মোরগ), শাহাজুল হক (ফুটবল), আব্দুস সাত্তার শেখ (ভ্যানগাড়ি) ও নিতাই চন্দ্র পাল (টিউবওয়েল), ৫নং ওয়ার্ডে মহিদুল ইসলাম (বৈদ্যুতিক পাখা), জহিরুল ইসলাম (টিউবওযের), আসাদুল হক (মোরগ), ফারুক হোসেন চান (তালা) ও মোফাজ্জেল হোসেন (ফুটবল), ৬নং ওয়ার্ডে আব্দুল হালিম (মোরগ), নজরুল ইসলাম (তালা), আসাদুল হক (টিউবওয়েল) ও জিল্লুর রহমান (ফুটবল), ৭নং ওয়ার্ডে মতিয়ার রহমান (ফুটবল), আলমগীর হোসেন (বৈদ্যুতিক পাখা), হাসেম আলী (মোরগ), আলামিন হোসেন (তালা) ও মহিউদ্দিন (টিউবওয়েল), ৮নং ওয়ার্ডে মো. ইসরাফিল (ভ্যানগাড়ি), রাশিদুল ইসলাম (মোরগ), আব্দুল করিম (ফুটবল), মুক্তার হোসেন (তালা), মো. আসাদুল্লাহ (বৈদ্যুতিক পাখা) ও জাকির হোসেন (টিউবওয়েল) এবং ৯নং ওয়ার্ডে ফারুক মিয়া (টিউবওয়েল), আব্দুল কাদের ওরফে আলী কদর (ফুটবল),  শাহ আলম (মোরগ) প্রতীক নিয়ে। এবারের নির্বাচনে মোট ভোটার সংখ্যা ১৬ হাজার ৪৭৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৮ হাজার ৩০৫ জন এবং মহিলা ভোটার ৮ হাজার ১৬৯ জন। যারা আগামী ২০ অক্টোবর গোপন কক্ষে ইভিএমের মাধ্যমে পছন্দের প্রার্থীদের ভোট দিয়ে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করবেন।

গড়াইটুপিতে ঘোড়ার নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর ও আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার গড়াইটুপিতে চলছে ইউপি নির্বাচন। এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রার্থীদের বিভিন্ন ওয়ার্ডে তৈরী করা হয়েছে নির্বাচন অফিস। গোবরগাড়া ও খাসপাড়ায় ঘোড়া প্রতীকের অফিস ভাঙচুর ও আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে দুবৃত্তরা। ফলে ঘোড়া প্রতীকের কর্মী ও সমর্থকদের মধ্যে ভীতি ছড়িয়ে পড়েছে।

অভিযোগে জানাগেছে, ২০ অক্টোবর চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার নবগঠিত গড়াইটুপি ইউপির সাধারণ নির্বাচন। নির্বাচনের তফশিল ঘোষণার পর থেকে ভোটার এবং প্রার্থীদের মধ্যে অজানা আতঙ্ক বিরাজ করতে শুরু করে। পুলিশ প্রশাসন প্রার্থী এবং ভোটারদের সাহস যোগালে ইউনিয়নবাসী নির্বাচনীমুখি হয়ে ওঠে। সবকিছুই চলছিলো ঠিকঠাক। নির্বাচনের আর মাত্র ২দিন বাকি। এরই মধ্যে হঠাৎ করে নির্বাচনী মাঠে চাপা উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার রাতে গবরগাড়া গ্রামে ঘোড়া প্রতীকের অফিসে আগুন এবং গতকাল শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে দুবৃত্তরা গবরগাড়া এবং খাসপাড়া গ্রামে ঘোড়া প্রতীকের একাধিক অফিস ভাঙচুর করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনার পর থেকে ভোটারদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। হঠাৎ করে ভোটের মাঠের শান্ত পরিবেশ অশান্ত হয়ে ওঠায় সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়া নিয়ে সচেতন মহলে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

 

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More