চুয়াডাঙ্গার মাঝেরপাড়ায় প্রবাসীর বাড়িতে পটকা ফাটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি : মসজিদপাড়ার জিসানকে উত্তমমধ্যম শেষে পুলিশে সোপর্দ

স্টাফ রিপোর্টার: প্রবাসীর বাড়িতে বিকট শব্দের পটকা ফাটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করায় চুয়াডাঙ্গার মসজিদপাড়ার জিসানকে ধরে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয়রা। গতকাল রাত ১০টার দিকে মাঝেরপাড়ার ওই বাড়িতে পটকা ফাটিয়ে পালানোর সময় তাকে আটক করে উত্তেজিত জনতা। স্থানীয়রা জিসানকে ধরে হালকা উত্তমমধ্যম শেষে পুলিশে দিয়েছে। রাতেই তাকে চুয়াডাঙ্গা সদর থানা হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় আতঙ্ক বিরাজ করছে প্রবাসী মজিবরের পরিবারের সদস্যদের মাঝে। এর আগে গতকাল বিকেলেও একটি পটকা ফাটিয়ে পালিয়ে যায় জিসান। ওইসময় বিকট শব্দের কারণে এলাকাবাসীর মধ্যে ভিতি সৃষ্টি হয়। এদিকে, প্রতিবন্ধীর এহেন কা-ে ক্ষুব্ধ হয়ে জিসানের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানায় এলাকাবাসী।
জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার মাঝেরপাড়ার মজিবর রহমান দীর্ঘ আড়াই বছর আগে জীবিকার তাগিদে পাড়ি জমান সৌদিআরবে। বাড়িতে রয়েছেন স্ত্রীসহ স্কুলপড়–য়া এক মেয়ে ও ছোট দুই ছেলে। মজিবর রহমান প্রবাসে যাওয়ার কিছুদিন পর থেকে তার স্কুলপড়–য়া মেয়েকে উত্ত্যক্ত করে আসছিলো মসজিদপাড়ার মৃত জনি ম-লের ছেলে বখাটে জিসান (২০)। মানসম্মানের ভয়ে এবং জিসান শারীরিকভাবে কিছুটা প্রতিবন্ধী হওয়ায় বিষয়টি তেমন কাউকে জানায়নি তারা। কিন্তু জিসানের উত্ত্যক্তের মাত্রা দিনে দিনে বাড়তেই থাকে। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে প্রবাসী মজিবরের বাড়ির সামনে পটকা ফাটিয়ে পালিয়ে যায় জিসান। সন্ধ্যায় আবার প্রবাসীর বাড়িতে গিয়ে ওই স্কুলছাত্রীকে বিয়ে করার প্রস্তাব দেয় সে। বিয়ে দিতে রাজি না হলে স্কুলছাত্রীকে তুলে নিয়ে যাওয়ারও হুমকি দেয় সে। একইসাথে স্কুলছাত্রীর মাকে হুমকি দিয়ে জিসান বলে, তোমার মেয়েকে আমার সাথে বিয়ে না দিলে বিকেলে যে বোমা মারা হয়েছে সেই বোমা মেরে সবাইকে উড়িয়ে দেবো। এতে আতঙ্কিত হয়ে স্কুলছাত্রীর মা তার এক প্রতিবেশীকে জানাতে গেলে আবারও বিকট শব্দ শোনা যায়। এসময় পালাতে গিয়ে স্থানীয়দের হাতে ধরা পরে জিসান। উত্তেজিত হয়ে স্থানীয় কয়েকজন জিসানকে উত্তমমধ্যম দিয়ে পুলিশে খবর দেয়। চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে জিসানকে আটক করে থানায় নেয়।
স্থানীয়ভাবে জানা গেছে, উশৃঙ্খল বখাটে প্রকৃতির ছেলে জিসানের এক পায়ে সমস্য থাকলেও হাটাচলাতে কোনো সমস্যা হয় না। ফলে এপাড়া-ওপাড়া ঘুরে বিভিন্ন ধরনের অপরাধমূলক কর্মকা- করে বেড়াই। তাছাড়া অল্পবয়স থেকেই সে মাদকগ্রহণ শুরু করে। তার বিরুদ্ধে মামলাও রয়েছে। চুয়াডাঙ্গা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ আবু জিহাদ ফকরুল আলম খান জানান, আটক প্রতিবন্ধী জিসান বখাটে টাইপের। এর আগেও সে বেশ কয়েকবার পুলিশের হাতে আটক হয়েছে। জিসানকে থানা হেফাজতে নেয়া হয়েছে। অভিযোগ সাপেক্ষে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More