চুয়াডাঙ্গার সরোজগঞ্জে তরিকুলের দাফন : ঘাতক রিফাত ধরাছোঁয়ার বাইরে

সরোজগঞ্জ প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গার সরোজগঞ্জের তরিকুল ইসলামের লাশ ময়নাতদন্ত শেষে দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে নিজ গ্রামের কবরস্থানে তার দাফন করা হয়। নিহত আলমসাধু চালক তরিকুল নতুনভান্ডার গ্রামের পাঁচমাইল পাড়ার বাসিন্দা। এ ঘটনায় নিহত তরিকুলের পিতা মনির উদ্দিন বাদী হয়ে চুয়াডঙ্গা সদর থানায় একজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন। মামলার আসামি করা হয় চুয়াডাঙ্গা সদরের পুরাতন যাদবপুরের বদর উদ্দিনের ছেলে রিফাত হোসেনকে।

উল্লেখ্য, গত বুধবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে চুয়াডাঙ্গার সরোজগঞ্জ সাহা স্টোরের সামনে সাহা স্টোরের কর্মচারী রিফাত হোসেনের বুঙ্গার হামলায় নিহত হন গৌতম স্টোরের আলমসাধু চালক তরিকুল ইসলাম। এ ঘটনার সাথে সাথে হামলাকারী ঘাতক রিফাত হোসেন পালিয়ে যান। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে ময়নাতদন্ত শেষে তরিকুলের নিজ গ্রামে আনা হয়। খবর পেয়ে সরোজগঞ্জ বাজার কমিটির সভাপতি হাজি আব্দুল্লা শেখ নিহত তরিকুলের বাড়িতে উপস্থিত হয়ে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করেন। বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে গ্রামের কবরস্থানে দাফন করা হয় নিহত তরিকুলকে। এ সময় সরোজগঞ্জ বাজার কমিটির সভাপতি হাজি আব্দুল্লা শেখ বলেন, খুনি যেই হোক তাদের বিচার হবে। আমি কথা দিচ্ছি তাদের কঠিন শাস্তির ব্যবস্থা করতে যা যা করা দরকার তাই তাই করা হবে। এছাড়া সরোজগঞ্জ বাজার কমিটির উদ্যোগে তার পরিবারকে সার্বিকভাবে সহযোগিতার আশ্বাস দেন। গত বুধবার রাতে ঘাতক রিফাত হোসেনকে গ্রেফতার করার জন্য চুয়াডাঙ্গা পুলিশি অভিযান ছিলো চোখে পড়ার মতো।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
1 টি মন্তব্য
  1. Mustafiz বলেছেন

    মানুষ দিন দিন জানোয়ার হয়ে যাচ্ছে।এখন খুন করা মানুষের নেশায় পরিনত হয়ে গেছে।মানুষের মনুষ্যত্ব লোপ পাচ্ছে।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More