চুয়াডাঙ্গার হায়দারপুরে গরু বোঝায় লাটাহাম্বারের পিছনে ট্রাকের ধাক্কা: লাটাহাম্বার উল্টে ব্যাপারীসহ আহত ৭: রেফার্ড ১

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার হায়দারপুরে গরু বোঝাই শ্যালোমেশিন চালিত অবৈধ লাটাহাম্বার উল্টে সাতজন গুরুতর আহত হয়েছে। স্থানীয় এবং ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কর্মীরা তাদেরকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। আহতদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিতসক উন্নত চিকিতসার জন্য রাজশাহী রেফার্ড করেছেন। গতকাল শুক্রবার সন্ধা সাড়ে ৬ টার দিকে চুয়াডাঙ্গা-ঝিনাইদহ সড়কের হায়দারপুর নামকস্থানে ওই দুর্ঘটনা ঘটে।
আহতরা হলেন, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার গড়াইটুপি ইউনিয়নের কালুপোল খেজুরতলা গ্রামের আব্দুল করিমের ছেলে আব্দুর রহিম (৫০), বড়শলুয়া গ্রামের বসতিপাড়ার মৃত খোকাই মন্ডলের ছেলে তোতা মিয়া (৬৫), খাড়াগোদা বাজারের মৃত জুমাত আলী মন্ডলের ছেলে ইমতাজুল ইসলাম (৩৫), একই এলাকার মৃত ফজলুর রহমানের ছেলে শান্তি মিয়া (৩২), বড়শলুয়া কলেজপাড়ার মৃত পাতার আলীর ছেলে আবদার আলী (৫০) তার ছেলে লাটাহাম্বার চালক রুসনাই আলী (৩০) এবং ঝিনাইদহ জেলার মোহাম্মদপুর গ্রামের আব্দুল গনির ছেলে মিলন হোসেন (৫৫)।
আহতরা জানায় জানান, মেহেরপুরের বামন্দী পশুহাট থেকে ৩টি গরু, ছয়জন গরু ব্যাপারী লাটাহাম্বারযোগে খাড়াগোদা বাজারে ফিরছিলেন। এসময় হায়দারপুর নামকস্থানে লাটাহাম্বারের পিছন থেকে একটি ট্রাক ধাক্কা দেয়। এতে লাটাহাম্বারের চালকসহ গরুর ছয়জন ব্যাপারি গুরুতর জখম হয়। লাটাহাম্বারে থাকা তিনটি গরুর মধ্যে একটি গরু গুরুতর আহত হলে স্থানীররা জবাই করে মাংস বিক্রি করে দেন। দুর্ঘটনার পরপরই ট্রাকটি দ্রুতগতিতে ঝিনাইদহ অভিমুখে চলে যায়। চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিতসক ডা. সোহরাব হোসেন বলেন, আহত সাতজনের মধ্যে মিলনের অবস্থা আশংকাজনক। বাকিদের প্রাথমিক চিকিতসা দেয়া হয়েছে এবং মিলনককে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে। চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসিন বলেন, হায়দারপুরে ট্রাকের ধাক্কায় সাতজন আহত হয়েছে। দূর্ঘটনার পর ট্রাকটি পালিয়ে যায়। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More