চুয়াডাঙ্গার ৯ বিঘা জমির ফসল তছনছ

কৃষকদের পরিশ্রমের ফসল রাতের আধারে নষ্ট করায় ক্ষোভে ফুঁসে উঠেছে গ্রামবাসী
স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা আলমডাঙ্গা উপজেলার আন্দিপুরে ছয় কৃষকের ৯ বিঘা জমির ফসল ট্রাক্টর দিয়ে চষে ফেলার অভিযোগ উঠেছে আব্দুল্লাহ সিটির মালিক আব্দুল মোমিন স্বপনের বিরুদ্ধে। গত শনিবার রাতে এঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এলাকাজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে। ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে কৃষকদের পরিশ্রমের ফসল রাতের আধারে নষ্ট করায় গ্রামবাসী ক্ষোভে ফুঁসে উঠেছে। এ ঘটনায় অসহায় কৃষকরা বিচারের দাবি জানিয়েছেন।
ভুক্তভোগী কৃষকরা জানায়, চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার ইমারজেন্সি রোডে অবস্থিত আব্দুল্লাহ সিটির মালিক আব্দুল মোমিন স্বপনের মালিকানাধীন ৯ বিঘা জমি আলমডাঙ্গা উপজেলায় রুইতনপুর গ্রামের মিল্টন, কালাম, সাইফুল, সোনিক, আব্দুল হালিম এবং জালাল ১ বছরের জন্য বিঘা প্রতি ৯ হাজার টাকার বিনিময়ে লিজ নেন। সামনের বৈশাখ মাস পর্যন্ত মৌখিক চুক্তির মেয়াদ শেষ হবার কথা রয়েছে। সেই জমিতে সরিষা, বেগুন ও কাঁচা ঝালের আবাদ করেন তারা। এর মধ্যে বেশি টাকার প্রলোভন দেখিয়ে আব্দুল মোমিন স্বপনকে কে বা কারা ওই জমিতে তামাক চাষের জন্য বলে। সে মোতাবেক গত শনিবার রাতে স্বপনের হুকুমে ট্রাক্টর দিয়ে ৯ বিঘা জমির সব ফসল মাটিতে মিশিয়ে দেয়া হয়।
অপরদিকে ট্রাক্টরের ড্রাইভার হারেজ আলী বলেন, শনিবার রাতে আমার মালিকের নিকট আব্দুল মোমিন স্বপন ফোন দিয়ে বলে ওই জমির ফসলগুলো সব চষে দেয়ার জন্য। ট্যাক্টর মালিক আমাকে বললে আমি ওই জমি চষে দিয়েছি। তিনি আরও বলেন, ওই জমিতে সরিষা, বেগুন এবং কাঁচাঝাল লাগানো ছিলো।
রুইতনপুর গ্রামের ইউপি সদস্য নিজাম উদ্দীন বলেন, আমি গতকাল বিকেলে ঘটনাটি শুনেছি। ভুক্তভোগীরা লিজ নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত এই জমিতে চাষ করে আসছিলো। পাশ্ববর্তী গ্রামে জনৈক ব্যক্তি ওই জমিতে বিঘা প্রতি ১২ হাজার টাকা দেয়ার কথা জানায় আব্দুল মোমিন স্বপনের। স্বপন অনুমতি দিলে ওই ব্যক্তি তাদের জমিতে থাকা ফসলগুলো চষে দেয়। এটা আসলেই ন্যক্কারজনক ঘটনা। ওরা গরিব মানুষ। তাদের সাথে এটা করা ঠিক হয়নি। আগামীকাল বিষয়টি নিয়ে মিমাংসা হওয়ার কথা রয়েছে।
আব্দুল্লাহ সিটির মালিক আব্দুল মোমিন স্বপন বলেন, আমার জমিতে তারা জোরপূর্বক চাষাবাদ করছে। কয়েক বছর যাবত আমি তাদেরকে জানিয়েছি ওই জমিতে আমি মাল্টা বাগান করবো। তারা আমার জমির লিজের টাকাও দেয় না।। দুই বছরের টাকা এখনো আমি পাবো। তবে আমি তাদের ফসলের ক্ষতি করিনি। ট্যাক্টর মালিক বিষয়টি স্বীকার করার কথা জানালে তিনি তখন বলেন, আমি শুধু সরিষার ক্ষেতটা চষে দিতে বলেছি।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More