চুয়াডাঙ্গায় আজ থেকে শুরু হচ্ছে আম সংগ্রহের কার্যক্রম

চলতি মরসুমে ১১৬ কোটি টাকার আম বিক্রির আশা কৃষি বিভাগের
স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গায় আজ মঙ্গলবার থেকে চলতি মরসুমের আম সংগ্রহের কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। গতকাল সোমবার দুপুরে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে সম্মেলন কক্ষে আম সংগ্রহের প্রস্তুতিমূলক সভায় এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। আগামী ১ জুলাই আম সংগ্রহ কার্যক্রম শেষ হবে।
২০২১-২০২২ মরসুমে চুয়াডাঙ্গা জেলার চার উপজেলায় ২ হাজার ৪২৯ হেক্টর জমিতে ২৯ হাজার ৫২ মেট্রিক টন আম উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রতি কেজি আম ৪০ টাকা হিসেবে মোট ১১৬ কোটি ২০ লাখ ৮০ হাজার টাকার আম বিক্রি হবে বলে আশা প্রকাশ করেছে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর।
জেলা প্রশাসক আমিনুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রস্তুতিমূলক সভায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সাজিয়া আফরীন, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক বিভাস চন্দ্র সাহা, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাবিবুর রহমান, এনডিসি জাকির হোসেন, কৃষি বিপণণ অধিদফতরের মাঠ সংগঠক সহিদুল ইসলাম, জেলা আম ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মুন্সী রেজাউল করিম খোকন, সহ-সভাপতি কুদ্দুস মহলদার, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন, আম ব্যবসায়ী আমিনুল ইসলাম, আবুল কালাম, নাজিম উদ্দিন, লাল মিয়া, সাংবাদিক অ্যাড. রফিকুল ইসলাম ও শাহ আলম সনি উপস্থিত ছিলেন।
সভায় জানানো হয়, ১৭ মে আটি/গুটি আম/বোম্বাই আম, ২২ মে হিসাগর আম, ২৭ মে ল্যাংড়া আম, আ¤্রপালি (বারি-৩) ১০ জুন, ফজলী আম, ২১ জুন এবং ১ জুলাই থেকে আশ্বিনা/ বারি আম-৪ সংগ্রহ করা কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। প্রশাসনের বেধে দেয়া সময়কাল অনুসরণ করে আম সংগ্রহ করতে হবে। কোনো অবস্থাতেই বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে অপরিপক্ক আম পাড়া যাবে না। আম পাকানো/ সংরক্ষণের জন্য কোনো রাসায়নিক উপাদান ব্যবহার করা যাবে না। অবৈধ প্রক্রিয়ায় আম পাকানো হলে বা পাকানোর উদ্দেশ্যে মজুদ করা হলে ‘ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন-২০০৯’ এবং নিরাপদ খাদ্য আইন-২০১৩ অনুযায়ী যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
কৃষি কর্মকর্তারা জানান, চলতি মরসুমে চুয়াডাঙ্গায় ঝড়-বৃষ্টি, শিলা-বৃষ্টি ও ঘূর্ণিঝড় অশিনের কারণে আম চাষিরা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। সেকারণে আমের উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত না হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
সভায় জেলা প্রশাসক আমিনুল ইসলাম খান বলেন, আম প্রকৃতির দান। আম চাষ ভালোভাবে হয় সেদিকে নজর দিতে হবে। আম চাষিদের সাথে মতবিনিময় করবো। সমস্যা নিরসনে ঢাকার সাথে কথা বলবো। আম চাষ আগামীতে আরো বৃদ্ধি করা যায় সেদিকে সকলকে খেয়াল রাখতে হবে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More