চুয়াডাঙ্গায় আরও ৪ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত

নতুন ২৪ জনের নমুনা সংগ্রহ : মাস্কপরাসহ স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার পুনঃপুনঃ তাগিদ
স্টাফ রিপোর্টার: সাবধান! নোভেল করোনা ভাইরাস নতুন করে ছড়াচ্ছে। ভয়াবহ ছোঁয়াছে কোভিড-১৯ শুধু শহরে নয়, প্রত্যন্ত গ্রামেও এর অস্তিত্ব মিলছে। গতকালও চুয়াডাঙ্গায় নতুন ৪ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এ দিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৫শ ৪৪ জন। না, গতকাল রোববার অসুস্থদের মধ্যে একজনও সুস্থতার ছাড়পত্র পাননি। ফলে পূর্বের মতো মোট সুস্থ ১ হাজার ৪৫৩ জন। নতুন যে ৪ জন নোভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এদের মধ্যে চুয়াডাঙ্গা জেলা শহরের ফার্মপাড়ার একজন। আলমডাঙ্গা উপজেলার দুজনের মধ্যে একজনের বাড়ি আসমানখালী এলাকায়, অপরজনের বাড়ি হারদী। এছাড়া দামুড়হুদা উপজেলা সদরের দশমীপাড়ার একজন করোনা ভাইরাস হিসেবে শনাক্ত হয়েছে। অপরদিকে চুয়াডাঙ্গা জেলা করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি জেলা প্রশাসক গতকাল রোববার অনুষ্ঠিত উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভায় বারবারই সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেছেন, বিশে^র আবারও বেশ কিছু দেশে কোভিড-১৯ ভয়াবহ আকারে সংক্রমিত হচ্ছে। ওইসব দেশে লকডাউন অনিবার্য হয়ে পড়েছে। আমাদের দেশেও সর্ব সাধারণ সতর্ক না হলে শীতের মধ্যে ভয়াবহ পরিস্থিতি হতে পারে। ফলে সর্বস্তরে সকলকে মাস্কপরাসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য অনুরোধ জানানো হচ্ছে। জেলা ও উপজেলা প্রশাসন পুলিশের সহযোগিতায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাসহ প্রচার প্রচারণা অব্যাহত রেখেছে। জেলা তথ্য অফিসারকেও তিনি জোরদার প্রচার প্রচারণার মাধ্যমে জনগণকে সচেতন করার তাগিদ দিয়েছেন জেলা প্রশাসক।
জানা গেছে, গতকাল রোববার চুয়াডাঙ্গা স্বাস্থ্য বিভাগের হাতে পূর্বের ২৮ জনের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট আসে। এর মধ্যে ২৪ জনের নেগেটিভ হলেও ৪ প্রান্তের ৪ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের অস্তিত্ব মিলেছে। নতুন আরও ২৪ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য কুষ্টিয়া পিসিআর ল্যাবে প্রেরণ করা হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে গতরাতে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত প্রাতিষ্ঠানিক তথা হাসপাতালে ছিলেন ১৫ জন, বাড়িতে তথা হোম আইসোলেশনে ছিলেন ৩৫ জন। যারা নিজ নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে রয়েছেন তাদের বাড়িতে স্বাস্থ্য বিভাগের তরফে লাল পতাকা লাগিয়ে দিয়ে সর্বসাধারণকে সতর্ক করাও হচ্ছে। এ পর্যন্ত চুয়াডাঙ্গায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৪১ জন। উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন আরও কয়েকজন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More