চুয়াডাঙ্গায় ইউনিয়ন পর্যায়ের স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানে এমপি ছেলুন জোয়ার্দ্দার

প্রশিক্ষণের মাধ্যমে অর্জিত দক্ষতা কাজে লাগাতে হবে

স্টাফ রিপোর্টার: শিশুর জন্ম নেয়ার পর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করে স্বাস্থ্যকর্মীরা। তাদের হাতেই নির্ভর করে ওই শিশুর জীবনমৃত্যু। তাই স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রশিক্ষণ শেষে ঘরে বসে থাকলে চলবে না। প্রশিক্ষণের মাধ্যমে অর্জিত দক্ষতাকে বাস্তবে কাজে লাগাতে হবে। গতকাল বুধবার ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র ও কমিউনিটি ক্লিনিকের স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন।
মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে আয়োজিত প্রসূতি মায়ের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় নিরাপদ মাতৃত্ব নিশ্চিত ও ডেলিভারি বিষয়ে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র এবং কমিউনিটি ক্লিনিকের স্বাস্থ্যকর্মীদের দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য প্রশিক্ষণের ৫ম দিনের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, বর্তমানে দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থার অনেক উন্নতি হয়েছে। এখন সরকারি হাসপাতাল, মাতৃসদন ও কমিউনিটি ক্লিনিকগুলোতে প্রসূতি মায়ের চিকিৎসার সুব্যবস্থা রয়েছে। সরকার এখানকার স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেছে।
স্বাস্থ্যকর্মীদের উদ্দেশ্যে এমপি ছেলুন জোয়ার্দ্দার বলেন, আপনারা প্রশিক্ষণ নিয়ে কমিউনিটি ক্লিনিকেই দক্ষতার সাথে প্রসূতি মায়ের পরিপূর্ণ চিকিৎসা সেবা প্রদান করবেন। আপনারা ভালোভাবে দায়িত্ব পালন করলে সদর হাসপাতাল, মাতৃসদনের ওপর চাপ কমবে। আপনাদের দক্ষ করে গড়ে তোলার জন্যই জাইকার অর্থায়নে অভিজ্ঞ ডাক্তারদের দিয়ে প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে। প্রশিক্ষণ নিলেই হবে না। তার বাস্তব প্রয়োগ করতে হবে। যেন এর সুফল মায়েরা পান।
একসময় বিএনপি সরকার কমিউনিটি ক্লিনিকগুলো বন্ধ করে দিচ্ছিলো। কিন্তু আমাদের নেত্রী প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর কমিউনিটি ক্লিনিকগুলোর চিকিৎসা ব্যবস্থার উন্নতি হয়েছে।
চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা পরিষদ আয়োজিত প্রশিক্ষণ কর্মশালায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ সাদিকুর রহমানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসের উপপরিচালক দীপক কুমার সাহা, সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আতাউর রহমান, মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের মেডিকেল অফিসার ডা. বেলাল উদ্দিন ও সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাছুম রুহানি। উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আব্দুল হান্নানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন মাতৃসদনের কনসালটেন্ট ডা. শফিকুল ইসলাম, সদর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সাহাজাদি মিলি প্রমুখ।
উলে¬খ্য, উপজেলা পরিচালন ও উন্নয়ন প্রকল্প, স্থানীয় সরকার বিভাগ ও জাপান ইন্টারন্যাশনাল কোঅপারেশন এজেন্সির (জাইকা) সহায়তায় এবং উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসের বাস্তবায়নে চুয়াডাঙ্গা মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে (মাতৃসদন) ৬ দিনব্যাপি (৩০ জানুয়ারি- ৪ ফেব্রুয়ারি) এ প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More