চুয়াডাঙ্গায় ছাত্রলীগের জাতীয় শোক দিবসের আলোচনাসভায় এমপি ছেলুন জোয়ার্দ্দার

মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃতি রোধে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে

স্টাফ রিপোর্টার: ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের পর মুক্তিযুদ্ধবিরোধী শক্তি এ দেশের প্রকৃত ইতিহাসকে মুছে ফেলতে চেয়েছিলো। কেউ যেন আমাদের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে বিকৃত করতে না পারে, সে বিষয়ে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে। উপরোক্ত কথাগুলো বলেন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন। তিনি গতকাল চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগ আয়োজিত জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, যারা কখনোই এ দেশের স্বাধীনতা চায়নি, তারাই বঙ্গবন্ধুকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে। তারা ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের পর এ দেশের মানুষের মন থেকে বঙ্গবন্ধু আর মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে মুছে ফেলতে চেয়েছিলো। তারা বারবার ইতিহাস বিকৃতির চেষ্টা করেছে। এখনো অনেকেই সেই প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। ভবিষ্যতে যেন আর এ ধরনের বিকৃতি না ঘটে, সেজন্য সবাইকে সজাগ থাকতে হবে। এমপি ছেলুন জোয়ার্দ্দার আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুকে জানলেই জানা হবে বাংলাদেশকে। যে ব্যক্তির জন্ম না হলে আমরা আজ বাংলায় কথা বলতে পারতাম না; আজও আমরা পরাধীন থাকতাম, সেই মহান ব্যক্তিকে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টে ঘাতকরা নির্মমভাবে হত্যা করে; শুধু তাকেই নয় তার পরিবারের সকল সদস্যকে খুন করে ওই স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তির দল মুস্তাকরা। বঙ্গবন্ধুর হত্যার বিচার হচ্ছে হবে।
গতকাল শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে আয়োজিত আলোচনাসভা ও দোয়া অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোহাইমেন হাসান জোয়ার্দ্দার অনিক। চুয়াডাঙ্গা জেলা বঙ্গবন্ধু ছাত্রপরিষদের সভাপতি মেহেদী হাসান হিমেল মল্লিকের পরিচালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সাবেক পৌর মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন, সহসভাপতি খুস্তার জামিল, সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সি আলমগীর হান্নান, পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন হেলা, দপ্তর সম্পাদক অ্যাড. আবু তালেব, উপ-প্রচার সম্পাদক শওকত আলী বিশ্বাস, জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি আফজালুল হক বিশ্বাস, পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মো. আলাউদ্দিন হেলা, জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মো. শাহাবুল হোসেন, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি যবলীগ নেতা আব্দুর রশিদ, আব্দুল কাদের, জেলা যুবলীগের সাবেক আহবায়ক আরেফিন আলম রঞ্জু, সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তানিম হাসান তারেক প্রমুখ। উপস্থিত ছিলেন জেলা ছাত্রলীগের সাবেক ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক ফিরোজ জোয়ার্দ্দার, সাবেক প্রচার সম্পাদক আব্দুর রহমান, ছাত্রলীগ নেতা অয়ন হাসান জোয়ার্দ্দার, রেফায়েত হোসেন রাজিব, সাবেক স্কুল ও ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক রাজু আহম্মেদ, জেলা ছাত্রলীগ নেতা সোয়েব রিগান, পৌর ছাত্রলীগ নেতা তানভির আহম্মেদ সোহেল, ইমদাদুল হক আকাশ, মুন্না, সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা সোয়েব স্বাধীন, মিঠুন, সদর থানা ছাত্রলীগ নেতা রেদওয়ান আহম্মেদ রানা, প্রান্ত, টোকন, মোমিন, জান্নাত, বঙ্গবন্ধু ছাত্রপরিষদ চুয়াডাঙ্গা জেলার সাবেক আহবায়ক সাইফুল ইসলাম রানা, ছাত্রলীগ নেতা হারুন, কাদের, শিমু, সুমন, ইমন, রাতুল, আফরিজ, আলম, ফিরোজ, মিরাজ, নাইম, আগুন, পরশ, সারাফাত, রামিম, ইভন, দিপু প্রমুখ। অনুষ্ঠানে দোয়া পরিচালনা করেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুদউজ্জামান লিটু বিশ্বাস।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More