চুয়াডাঙ্গায় সকল আদালতের কার্যক্রম প্রকাশ্য আদালতে চালুর দাবি

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গায় সকল আদালতের কার্যক্রম প্রকাশ্য আদালতে চালুর দাবিতে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণের জন্য লিখিত আবেদন করেছেন আইনজীবীরা। গতকাল বুধবার বেলা ১২টার দিকে জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতির কাছে তারা আবেদনপত্রটি জমা দেন। জেলা আইনজীবী সমিতির ১৭৯ জন আইনজীবীর মধ্যে ১১৭ জন আইনজীবী আবেদনপত্রটিতে স্বাক্ষর করেছেন। চুয়াডাঙ্গা জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাড. মোল্লা আব্দুর রশিদের কাছে আবেদনপত্রটি জমা দেন জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য মনিরুজ্জামান (১), কামরুল আরেফিন, শহিদুল ইসলাম (১) ও সাঈদ মাহমুদ শামীম রেজা ডালিমসহ অন্যান্য আইনজীবীরা।
লিখিত আবেদপনপত্রে বলা হয়েছে, স্বাক্ষরকারীগণ চুয়াডাঙ্গা জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সদস্য। সরকারি নির্দেশে গত ২৬ মার্চ থেকে চুয়াডাঙ্গা জেলাসহ দেশের সর্বত্র নভেল করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ এর প্রাদুর্ভাবের কারণে লকডাউন শুরু হয়। যার আওতায় প্রশাসনসহ বিচার বিভাগ ও সমস্ত সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম স্থগিত হয়ে যায় এবং নামমাত্র গত ৩১ মে থেকে লকডাউন প্রত্যাহার করা হয়। পরবর্তী পর্যায়ে সকল সরকারি-বেসরকারি অফিস সমূহে কাজ-কাম শুরু হলেও বিচার বিভাগের কার্যক্রম স্থগিত থাকে। পরবর্তী পর্যায়ে সরকার গত ২৩ জুন মহান জাতীয় সংসদে এক আইন পাসের মাধ্যমে বিকল্প ব্যবস্থায় (ভার্চুয়াল কোর্ট) দেশের সকল আদালত সমূহের সমূদয় কার্যক্রম চালু ও পরিচালনার ব্যবস্থা করেন। যা ডিজিটাল পদ্ধতিতে করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়। যেহেতু ডিজিটাল ব্যবস্থায় বিচার কার্যপরিচালনার বিষয়ে এখানকার সকল আইনজীবীবৃন্দ ও বিচার প্রার্থী মানুষ ততটা অবগত ও অবহিত নন এবং অদ্যাবধি এই ব্যবস্থায় বিচারকার্যের কোনো অগ্রগতিও এখানে লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। সেকারণে সকল আদালতের বিচার কার্যক্রম সামাজিক দূরত্ব মেনে চলে সংশ্লিষ্ট এজলাসে বিচারক, আইনজীবী ও বিচারপ্রার্থীদের উপস্থিতিতে তাদের সম্মুখে হওয়া ছাড়া কোনো বিকল্প নেই। যেহেতু উক্ত আইনে সকল বিচারকগণকে সর্বক্ষণ ভার্চুয়াল ব্যবস্থায় বিচারকার্য পরিচালনার জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে, সেকারণে ভার্চুয়াল পদ্ধতির পাশাপাশি যতদূর সম্ভব প্রকাশ্য আদালতে বিচারকার্য পরিচালনা করা ন্যায় বিচারের স্বার্থে ও বিচারপ্রার্থীদের স্বার্থে জরুরি হয়ে দাঁড়িয়েছে।
প্রকাশ্য এজলাসে বিচারক, আইনজীবী ও বিচারপ্রার্থীদের উপস্থিতিতে জেলার সকল আদালতের বিচার কার্যক্রম সামাজিক দূরত্ব মেনে চলে সম্পন্ন করার জন্য জেলা জজের সাথে আলাপ-আলোচনা করার উদ্যোগ গ্রহণ করবেন। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে চুয়াডাঙ্গা জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি আলহাজ মোল্লা আব্দুর রশিদ বলেন, ভার্চুয়াল কোর্টের পাশাপাশি প্রকাশ্য আদালতের কার্যক্রম চালু করার জন্য এ আবেদনপত্রটি আইনমন্ত্রীর কাছে পাঠানো হবে। এছাড়া, এর আগেও জেলা আইনজীবী সমিতির পক্ষ থেকে একই দাবিতে আইনমন্ত্রীর কাছে একটি আবেদনপত্র পাঠানো হয়েছে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More