চুয়াডাঙ্গা জেলা উন্নয়ন ও সমন্বয় কমিটির সভায় নবাগত জেলা প্রশাসক আমিনুল ইসলাম খান

উন্নয়নমূলক কাজে কোনোভাবেই অভারলেপিং হতে দেয়া যাবে না
স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা নবাগত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান জেলার উন্নয়ন ও সমন্বয় কমিটির প্রথম বৈঠকে সকলকে সম্মিলিতভাবে কাজ করার পুনঃপুনঃ তাগিদ দিয়ে বলেছেন, জেলা এবং উপজেলা পর্যায়ের উন্নয়নমূলক কাজে কোনোভাবেই অভারলেপিং মেনে নেয়া যাবে না। একই কাজ একাধিক দফতরের মাধ্যমে করা মানেই সরকারি অর্থ তছরুপ। এটা কোনভাবেই হতে দেয়া যাবে না।
গতকাল রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত উন্নয়ন ও সমন্বয় কমিটির সভার আগে সংক্ষিপ্ত আকারে পরিচিতি পর্বের আয়োজন করা হয়। উপস্থিত বিভিন্ন বিভাগীয় দফতরের কর্মকর্তাগণ তাদের পরিচয় দিয়ে নবাগত জেলা প্রশাসকের সাথে পরিচিত হন। সমন্বয় ও উন্নয়ন কমিটির সভায় নবাগত সিভিল সার্জন ডা. সাজ্জাদ হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু তারেক, ৪ উপজেলা চেয়ারম্যান, ৪ উপজেলার নির্বাহী কমর্কতা, পৌর মেয়র বা তাদের প্রতিনিধি হিসেবে প্যানেল মেয়রগণসহ জেলার প্রতিটি দফতরের শীর্ষ কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। সভার শুরুতেই জেলা মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের তরফে উপস্থিত সকলের মাঝে হ্যান্ড স্যানিটাইজার সরবরাহ করা হয়। জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিগত সভার বিভাগীয় সিদ্ধান্তসমূহ পর্যয়ক্রমে উপস্থাপন করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ও জেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা সাজিয়া আফরীন।
সভায় চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার প্রতিটি মহল্লার বর্জ্য যথাযথভাবে অপসারণের পাশাপাশি সদর হাসপাতালের পরিষ্কার পরিছন্নতার উপর গুরুত্বারোপ করে বলা হয়, সদর হাসপাতাল সড়কটি একমুখি চলাচলের বিষয়টি যেমন নিশ্চিত করতে হবে, তেমনই প্রশস্তকরণেরও উদ্যোগ নিতে হবে। সদর হাসপাতালটি অনেক বড় স্থাপনা। অতিব জনগুরুত্বপূর্ণ। কোনভাবেই ট্রাফিকজ্যাম রাখা যাবে না। দেশে কোভিড-১৯ এর সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে। চুয়াডাঙ্গায় করোনা সংক্রমণ রোধে সর্বাত্মক চেষ্টা চালাতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে। শিক্ষার্থীদের টিকা প্রদানের বিষয়টিও শতভাগ করা জরুরী। এ বিষয়ে সিভিল সার্জন অবশ্য বলেন, প্রথম পর্যায়ে ১২ থেকে ১৮ বছরের বয়সী ৯৩ হাজার ৫শ ছাত্র-ছাত্রীর টিকাকরণের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়। নির্ধারিত সময়ে চুয়াডাঙ্গায় এটা পূর্ণ হয়েছে। অবাক হলেও সত্য যে, লক্ষ্য নির্ধারণের বাইরেও ১০ শতাংশ টিকা করণ করা হয়েছে। এখনও টিকা নেয়ার জন্য ছাত্র ছাত্রীরা ভিড় জমাচ্ছে। শিক্ষা বিভাগ আমাদের এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য দিলে ভবঘুরেসহ কাওয়মি মাদরাসার ছাত্রদেরও টিকা করণ করা হবে। এছাড়াও চুয়াডাঙ্গায় প্রাপ্ত বয়সীদের জন্য বুস্টারডোজ টিকা দেয়ার কাজ অব্যাহত রয়েছে।
চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক জেলার প্রতিটি উপজেলার ওয়েবপেটেলগুলো প্রতিদিন আপডেট করার তাগিদ দেন। বলেন, কোন কাজ ঝুলিয়ে রাখা যাবে না। যারা সুগার সেস বৃত্তিপাওয়ার জন্য আবেন করেছে তাদের টাকা দ্রুত প্রদানের ব্যবস্থা করতে হবে। জেলায় সরকারি কর্মকর্তাদের থাকার জন্য ৬তলা ভবন ডরমেটরি নির্মাণের প্রস্তাব দিয়েছে সরকার। স্থান নির্ধারণসহ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ দ্রুত নেয়া হবে বলেও জানানো হয় সভায়। জেলার নদ নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তলণ শক্তহাতে বন্ধ করতে হবে। সরকারি যেসব দফতরের বিদ্যুত বিল বকেয়া রয়েছে তা পরিশোধের বিশেষ উদ্যোগ নেয়ার পাশাপাশি বিদ্যুত অপচয় রোধে সকলকে বাড়তি সতর্ক থাকারও তাগিদ দেন জেলা প্রশাসক। এছাড়াও জীবননগরের হাসাদহের একটি সড়ক দীর্ঘদিন ধরে খুড়ে রাখার পরও নির্মাণ কাজ সম্পন্ন না করায় ঠিকাদারকে তাগিদ দেয়ার কথা বলা হয়। তাগিদ দিয়েও কাজ না হলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার বিষয়টিও ভাবতে হবে বলে জানানো হয় সভায়। এছাড়াও উন্নয়ন ও সমন্বয় কমিটির সভায় জেলার বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করে জনকল্যাণে দ্রুত সম্পন্ন করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভার পাশাপাশি জেলা প্রশাসকের সভাপতিত্বে নারী ও শিশু পাচার প্রতিরোধ কমিটি, জেলার কর্ণধার কমিটিসহ কয়েকটি কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More