জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন করতে কেউ যেন হয়রানির শিকার না হয়

চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুরের বিভিন্ন স্থানে জাতীয় জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন দিবস পালিত

স্টাফ রিপোর্টার: ‘নির্ভুল জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন করবো, শুদ্ধ তথ্য ভা-ার গড়বো’ এ সেøাগানকে ধারণ করে জাতীয় জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন দিবস উদযাপন করা হয়েছে। দিনটি উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুরের বিভিন্ন স্থানে র‌্যালি ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আলোচনাসভায় বক্তারা বলেন, মানুষের জন্ম একবার, মৃত্যু একবার। তাই জন্ম-মৃত্যু সনদ থাকবে একটি করে। দেশের সব নাগরিক জন্ম ও মৃত্যু সনদের আওতায় এলে এ দেশের জনসংখ্যার পরিসংখ্যান হিসাব করতে সহজ হবে এবং ভোটার তালিকা প্রস্তুতের ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা নিশ্চিত হবে। বক্তারা বলেন, দেশ তথ্য-প্রযুক্তি, যোগাযোগ ব্যবস্থা, অবকাঠামো উন্নয়ন এবং খাদ্যসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব সাফল্য অর্জন করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশকে উন্নত ও সমৃদ্ধ বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে পথ নকশা তৈরি করেছেন। সে অনুযায়ী দেশ এগিয়ে চলেছে অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায়। ২০৪১ সালের আগেই বাংলাদেশ ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত, উন্নত-সমৃদ্ধ দেশে পরিণত হবে নাগরিক অধিকার নিশ্চিতের জন্যই জন্ম ও মৃত্যুর ৪৫ দিনের মধ্যে নিবন্ধন করা সবার জন্য জরুরি।
বক্তারা আর বলেন, রাষ্ট্রে দ্রুত নাগরিক সেবা প্রদান এবং গ্রহণের জন্য জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন আবশ্যক। সকলের নিবন্ধন সম্পন্ন হলে তাৎক্ষণিক যেকোনো সেবা প্রদান সহজ হবে। তবে জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন করতে এসে যেনো কেউ হয়রানির শিকার না হয় সেদিকেও সবাইকে খেয়াল রাখার অনুরোধ করা হয়।
চুয়াডাঙ্গায় জাতীয় জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন দিবস উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বর থেকে একটি র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে একই স্থানে এসে শেষ হয়। পরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ও স্থানীয় সরকার বিভাগের ভারপ্রাপ্ত উপপরিচালক সাজিয়া আফরীন। প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আবু তারেক, চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার মেয়র জাহাঙ্গীর আলম মালিক, জেলা পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক দীপক কুমার সাহা প্রমুখ। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার গড়াইটুপি ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম রাজু, বেগমপুর ইউপি চেয়ারম্যান আলী হোসেন, জেলা প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ, বিভিন্ন ইউনিয়নের সচিব, ইউপি সদস্যসহ আরও অনেকে।
দামুড়হুদা প্রতিনিধি জানিয়েছেন, দামুড়হুদায় গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলা বিএডিসির সভাকক্ষে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা বেগমের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহিদা খাতুন, দামুড়হুদা মডেল থানার পরিদর্শক (অপারেশন) বাবর আলী, ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল করিম, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সাকী সালাম, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের একাডেমিক সুপারভাইজার রাফিজুল ইসলাম, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মডেল কেয়ারটেকার আসাদুজ্জামান আসাদ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন দামুড়হুদা উপজেলা সমবায় অফিসার হারুন-অর-রশিদ, উপজেলা সমাজসেবা অফিসার তোফাজ্জল হক, উপজেলা পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের ম্যানেজার রুবেল আহমেদ, উপজেলা আইসিটি প্রোগ্রামার আরিফুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসের সিএ ফয়জুল করিম প্রমুখ।
এদিকে, দিবসটি উদযাপন উপলক্ষে দামুড়হুদা সদর ইউনিয়ন পরিষদের আয়োজনে ভিন্নতা চোখে পড়ে। আনুষ্ঠানিকভাবে জন্মের ৪৫দিনের মধ্যে জন্মনিবন্ধন করায় দামুড়হুদা দশমীপাড়ার মুসলিমা খাতুনের কন্যা জিনিয়া আক্তার জিম ও সুরজিনা খাতুনের কন্যা জান্নাতুল ইসলামের জন্ম সনদ প্রদান করাসহ নতুন পোশাক ও মিষ্টি উপহার দেয়া হয়। এ সময় হাউপি সচিব শামীম রেজার সঞ্চালনায় দামুড়হুদা সদর ইউপি চেয়ারম্যান হযরত আলী আনুষ্ঠানিকভাবে জন্ম সনদ, মিষ্টি ও পোশাক সামগ্রী তুলে দেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ইউপি সদস্য নুরুল ইসলাম, জাহিদুল ইসলাম, সামসুল আলম, লিয়াকত আলী জোয়ার্দ্দার, মতিয়ার রহমান, দামুড়হুদা উপজেলা যুবলীগের দফতর সম্পাদক রকিবুল ইসলাম প্রমুখ।
অপরদিকে, দিবসটি উদযাপন উপলক্ষে দামুড়হুদার হাউলী ইউনিয়ন পরিষদে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ উপলক্ষে আনুষ্ঠানিকভাবে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন সনদ বিতরণ করা হয়। হাউলী ইউপি সচিব নঈম উদ্দিনের সঞ্চালনায় সনদ বিতরণ করেন ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন। এ সময় উপস্থিত ইউপি সদস্য সহিদুল ইসলাম, শাহাজামাল, জাহাঙ্গীর আলম টিক্কা, রিকাত আলী প্রমুখ।
কার্পাসডাঙ্গা প্রতিনিধি জানিয়েছেন, দামুড়হুদা উপজেলার কার্পাসডাঙ্গায় জাতীয় জন্ম ও মৃত্যু দিবস উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের আয়োজনে ইউপি হলরুমে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল করিমের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন ইউপি সচিব মহি উদ্দিন, প্যানেল চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মন্টু, বিল্লাল হোসেন, ইউপি সদস্য আলমগীর হোসেন, সিরাজুল ইসলাম, মাহবুর রহমান, আব্দুর রাজ্জাক, আব্দুস সালাম, নুর মোহাম্মদ ভগু, সাজিবর রহমান, আনেহার খাতুন, সুমিয়া খাতুন, দেলোয়ারা খাতুন, উদ্যোক্তা হারুন প্রমুখ। এর আগে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল করিমের নেতৃত্বে কার্পাসডাঙ্গা বাজারে একটি র‌্যালি বের হয়। অনুষ্ঠানটির সঞ্চানলায় ছিলেন ইউপি সচিব মহি উদ্দিন।
জীবননগর ব্যুরো জানিয়েছে, জীবননগরে জাতীয় জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন দিবস উদযাপন উপলক্ষে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১০টার সময় জীবননগর উপজেলা পরিষদের সভাকক্ষে এ আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। জীবননগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আরিফুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন জীবননগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাজি মো. হাফিজুর রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম ঈসা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আয়েশা সুলতানা লাকি, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. জাকির উদ্দীন মোড়ল, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আমজাদ হোসেন প্রমুখ। সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন জীবননগর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শারমিন আক্তার, বাঁকা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের, প্রধান একাডেমিক সুপারভাইজার সৈয়দ আব্দুল জব্বার প্রমুখ।
মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, মেহেরপুরে জেলা প্রশাসনের বৃহস্পতিবার সকালে এ উপলক্ষে আলোচনা সভা ও বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। মেহেরপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মৃধা মোহাম্মদ মুজাহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক ড. মো. মুনসুর আলম খান। এর আগে মেহেরপুর জেলা শিল্পকলা একাডেমি চত্বর থেকে মেহেরপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মৃধা মো. মুজাহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। এ সময় অন্যদের মধ্যে মেহেরপুর পৌর প্যানেল মেয়র শাহিনুর রহমান রিটন, মেহেরপুর সদর উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট ইয়ারুল ইসলাম, বুড়িপোতা ইউপি চেয়ারম্যান শাহজামান, আমদাহ ইউপি চেয়ারম্যান আনারুল ইসলাম, শ্যামপুর ইউপি চেয়ারম্যান মতিউর রহমান প্রমুখ।
মুজিবনগর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, মেহেরপুর মুজিবনগর উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে জাতীয় জন্ম ও মৃত্য নিবন্ধন দিবস পালিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (অ:দা:) মো. ওবায়দুল্লাহ নেতৃত্বে র‌্যালি শেষে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা হলরুমে আলোচনাসভায় প্রধান অতিথি ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান জিয়াউদ্দীন বিশ্বাস। বক্তব্য রাখেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ রফিকুল ইসলাম মোল্লা, উপজেলা শিক্ষা অফিসার আলাউদ্দীন ও প্রধান শিক্ষক গোলাম ফারুক প্রমখ। এ সময় উপজেলার বিভিন্ন অফিসের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More