জাতীয় পর্যায়েও স্বপ্নজয়ী মা চুয়াডাঙ্গার মমতাজ বেগম : আজ নিচ্ছেন সম্মাননা

স্টাফ রিপোর্টার: এ বছর দেশের যে ১২ জন মা স্বপ্নজয়ী মা হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন তার মধ্যে চুয়াডাঙ্গা দামুড়হুদার কার্পাসডাঙ্গার মমতাজ বেগম অন্যতম। আজ ১২ মে ঢাকায় অনুষ্ঠিতব্য বিশেষ আয়োজনে মন্ত্রীর হাত থেকে গ্রহণ করবেন বিশেষ সম্মাননা। তিনি চুয়াডাঙ্গার ৪ জন স্বপ্নজয়ী মায়ের মধ্যে একজন নির্বাচিত হয়ে গত ৮ মে সম্মাননা গ্রহণ করেন।
মমতাজ বেগম ৮ সন্তানের জননী। তার স্বামী আলতাফ হোসেন ছিলেন কেরু এ্যান্ড কোম্পানির ফুডশপ ইনচার্র্জ। ২০০২ সালে তিনি অবসর গ্রহণকরেন। তখনও ৮ সন্তানের মধ্যে কেউ পড়তেন বিশ^বিদ্যালয়ে, কেউ উচ্চ, কেউ নি¤œ মাধ্যমিকে। ২০০৬ সালে হৃদরোগে মৃত্যুবরণ করেন আলতাফ হোসেন। এরপরও ছেলেদের উচ্চশিক্ষায় শিক্ষিত করার স্বপ্ন বাস্তবায়ন থেকে একটুও টলেননি যে মা তিনি মমতাজ বেগম। ছেলে মেয়েদের মধ্যে বড় ছেলে আব্দুল আলীম বাবু অস্ট্রেলিয়া সরকারের বৃত্তিপ্রাপ্ত হয়ে এইচডি ফেলো সম্পন্ন করেন। বর্তমানে রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ের মাকেটিং বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত। আব্দুল হাকিম ইসলামী বিশ^বিদ্যালয় থেকে এমএসসি করেন। বর্তমানে তিনি জনতা ব্যাংক রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ে সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার (আইটি) কর্মরত। রোখসানা খাতুন ইসলামী বিশ^বিদ্যালয় থেকে এমএসসি করেন। তিনি বর্তমানে রাজশাহী মতিলা পলিটেকনিকে বিফ ইনস্ট্রাক্টর হিসেবে কর্মরত। রোমনা বিশ^াস এমএসসি করেন শের ই বাংলা কৃষি বিশ^বিদ্যালয় থেকে। বর্তমানে তিনি খুলনা কৃষি বিশ^বিদ্যালয়ের কৃষি অর্থনীতি বিভাগের প্রভাষক। মোহসিনা বিশ^াস চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ থেকে জাতীয় বিশ^বিদ্যালয়ের অধীনে এমএ। তিনি পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা কর্মকর্তা হিসেবে নিযুক্ত রয়েছেন। হাসিনা খাতুন দর্শনা সরকারি কলেজ থেকে সমাজ বিজ্ঞান নিয়ে বিএ। বর্তমানে দামুড়হুদা মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। হাবিবা খাতুন দর্শনা সরকারি কলেজ থেকে একই বিভাগে বিএ। তিনি উপজেলার কুতুবপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক। আব্দুল কাদের চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ থেকে জাতীয় বিশ^বিদ্যালয়ের অধীনে বিএবিএড। তিনি কুতুবপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অফিস সহকারী হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More