জীবননগরে স্বাস্থ্যবিধি না মেনে বিদায় সংবর্ধনা ও পিকনিক 

জীবননগর ব্যুরো: চুয়াডাঙ্গার জীবননগরের উথলী ইক্ষু ক্রয় কেন্দ্রে স্বাস্থ্যবিধি না মেনে ৩০০ লোকজন নিয়ে দেশের শীর্ষ স্থানীয় চিনি উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান দর্শনা কেরু এ্যান্ড কোম্পানির অবসরপ্রাপ্ত এক কর্মচারীর বিদায় সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে। এ উপলক্ষে পিকনিকেরও আয়োজন করা হয়। উথলী ইক্ষু ক্রয় কেন্দ্রের সম্মিলিত আখচাষির ব্যানারে শনিবার এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। স্থানীয় প্রশাসনের অনুমতি না নিয়ে এবং করোনার ভেতর স্বাস্থ্যবিধি না মেনে ৩০০ লোকজন নিয়ে এ ধরনের অনুষ্ঠান করায় এলাকায় ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়েছে। ৩০০ জন অংশগ্রহণকারীর মধ্যে ৯০ ভাগ মানুষ মাস্ক ব্যবহার করেননি এবং এর পাশাপাশি বসার ক্ষেত্রে কোনো স্বাস্থ্যবিধি মানা হয়নি। অনুষ্ঠানে দর্শনা কেরু এ্যান্ড কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু সাঈদসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই এলাকার এক ব্যক্তি বলেন, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে দর্শনা কেরু এ্যান্ড কোম্পানি নিজেরা হ্যান্ড স্যানিটাইজার উৎপাদন করছে। সেখানে ওই প্রতিষ্ঠানের প্রধানরা স্বাস্থ্যবিধি না মেনে কিভাবে অনুষ্ঠানে যোগ দিলেন?

তিনি আরো বলেন, আমরা বাজারে যাওয়ার সময় মাস্ক ব্যবহার না করলে প্রশাসন জরিমানা করে। অথচ আজ ৩০০ লোক স্বাস্থ্যবিধি না মেনে অনুষ্ঠান করলো কিন্তু তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি প্রশাসন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশ গ্রহণকারী দর্শনা কেরু এ্যান্ড কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু সাঈদ বলেন, আখচাষিরা অনুষ্ঠান করেছে। আমাকে দাওয়াত দেয়ার সময় আমি বলেছিলাম স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনুষ্ঠান করতে।

এ ব্যাপারে জীবননগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এসএম মুনিম লিংকন জানান, করোনাভাইরাসের কারণে এখনো সভা-সমাবেশ করার অনুমতি দেয়া হয়নি। উথলীতে বিদায় সংবর্ধনা ও পিকনিকের ব্যাপারে কোনো অনুমতি হয়েছে বলে আমার জানা নেই। স্বাস্থ্যবিধি না মেনে অনুষ্ঠান করা ঠিক হয়নি বলে জানান প্রশাসনের এ কর্মকর্তা।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More