ঝিনাইদহের ডাকবাংলা বাজার- কালীগঞ্জ সড়ক ও ড্রেন নির্মাণে অনিয়ম : পরিদর্শনকালে কাজ বন্ধ করলেন ইউএনও

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের ডাকবাংলা বাজার-কালীগঞ্জ সড়ক ও ড্রেন নির্মাণে অনিয়ম হচ্ছে। এ অভিযোগ পেয়ে বুধবার (১৫ জুলাই) দুপুরে এলাকাটি পরিদর্শন করেন ঝিনাইদহ উপজেলা নির্বাহী অফিসার বদরুদোজা শুভ। অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পেয়ে তিনি কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দেন।
সরেজমিন কাজ পরিদর্শনকালে ইউএনও’র সাথে ছিলেন সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল বাশার, জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি আনোয়ার হোসেনসহ গুরুত্বপূর্ণ সরকারি কর্মকর্তারা। সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান, সরেজমিন পরিদর্শনে অত্যন্ত নিন্মমানের রড, পাথর, বালি ও সিমেন্ট ব্যবহার করে সড়কটির পাশে ড্রেন নির্মাণ কাজ পরিলক্ষিত হয়। ফলে ঘটনাস্থল থেকে ঝিনাইদহ সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী জিয়াউল হায়দারের মোবাইল ফোনে বিষয়টি জানানো হয়। নির্বাহী প্রকৌশলী সড়ক বিভাগের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলীর সঙ্গে কথা বলতে বলেন। এরপর নির্মাণ কাজে ব্যবহার করা নিন্মমানের পাথরসহ নির্মাণসামগ্রীর নমুনা সংগ্রহ করে কাজ বন্ধ রাখার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়।
ঝিনাইদহ সড়ক বিভাগের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মুকুল জ্যোতি বসু বলেন, পিএমপি প্রকল্পের অধীন ঝিনাইদহের ডাকবাংলা বাজার-কালীগঞ্জ সড়কের ২৩ কিলোমিটার মজবুতিসহ ওয়ারিংকোর্সের কাজ চলছে। খুলনার ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মোজাহার এন্টারপ্রাইজ প্রাইভেট লিমিটেড কাজটির প্রকৃত ঠিকাদার। তবে বাস্তবে কাজটি করছেন স্থানীয় ঠিকাদার মিজানুর রহমান মাসুম। এ সড়কটির নির্মাণে ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় ২০ কোটি টাকা।
সড়কের পানি নিষ্কাশনের জন্য ডাকবাংলা বাজার এলাকায় ২১২ মিটার পাকা ড্রেন নির্মাণ করা হচ্ছে। এ কাজে অনুমান ২৬ লাখ টাকা ব্যয় করা হবে। ড্রেনটি নির্মাণ কাজের জন্য আমিনুল হক এন্টারপ্রাইজ নামের পৃথক ঠিকাদার নিয়োগ করা হয়েছে।
সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার কাজ বন্ধ রাখার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন কিনা জানতে চাইলে সড়ক বিভাগের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী বলেন, কাজ বন্ধ রাখার কথা শুনেছি। তবে সড়কের পাশে স্তূপ করা নিন্মমানের নির্মাণসামগ্রী আগে থেকেই বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারকে সেগুলো ব্যবহার না করার জন্য নিষেধ করা হয়েছে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More