ডাকাতির অপরাথে ৩ জনের ৫ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ডসহ জরিমানা

মেহেরপুর খোকসা গ্রামের বাবুর বাড়িতে সশস্ত্র ডাকাতির মামলার রায়

মেহেরপুর অফিস: মেহেরপুর সদর উপজেলার আমঝুপি ইউনিয়নের খোকসা গ্রামে ডাকাতির সঙ্গে জড়িত থাকায় ওমর আলী, মজির আলী ও মহরম নামের তিন ব্যক্তিকে ৫ বছর করে সশ্রম কারাদ- ও ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। জরিমানা দিতে ব্যর্থ হলে আরও ৬ মাসের কারাদ- দেয়ার বিধান রাখা হয়েছে। গতকাল বুধবার দুপুরের দিকে মেহেরপুর যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ ২য় আদালতের বিজ্ঞ বিচারক মো. কেরামত আলী ওই আদেশ দেন। সাজাপ্রাপ্ত ওমর আলী মেহেরপুর সদর উপজেলার শ্যামপুর গ্রামের তোয়াজ আলীর ছেলে, মুজির আলী শ্যামপুর গ্রামের ভবানীপাড়ার রমজান আলীর ছেলে এবং মহরম পার্শ্ববর্তী উত্তর শালিকা গ্রামের আমির আলীর ছেলে।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা গেছে, ২০১০ সালের ২১ মে মধ্যরাতে মেহেরপুর সদর উপজেলার খোকসা গ্রামের গফুর শেখের ছেলে রকিবুজ্জামান বাবুর বাড়িতে সশস্ত্র ডাকাতি সংঘটিত হয়। ওই রাতে ১০-১২ জনের মুখোশ পরিহিত অস্ত্রধারী একদল ডাকাত রকিবুজ্জামান বাবুর বাড়িতে প্রবেশ করে অস্ত্রের মুখে নগদ ৮০ হাজার টাকা, স্বর্ণালংকার ও মোবাইলসহ বিভিন্ন মালামাল নিয়ে যায়। ডাকাতি শেষে ডাকাতরা সেখানে বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে নিরাপদে এলাকা ত্যাগ করে। এ ঘটনার পরদিন রকিবুজ্জামান বাবু বাদী হয়ে বাঃ দঃ এবং ৩৯৫/৩৯৭ ধারায় এবং বিস্ফোরক উৎপাদনাবলী আইনের ৩/৪ ধারায় মেহেরপুর সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং ১৮, তারিখ- ২২/০৫/২০১০।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা প্রাথমিক তদন্ত শেষে ওমর আলী, মজিদ আলী ও মহরমসহ মোট ১১ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন। মামলায় মোট ১২ জন সাক্ষী সাক্ষ্য প্রদান করেন। এতে ওমর আলী, মজির আলী ও মহরম দোষী প্রমাণিত হওয়ায় বিজ্ঞ বিচারক তাদের ওই সাজা দেন। মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের কৌসুলি ছিলেন এপিপি মিনা পাল ও আসামি পক্ষের কৌসুলি ছিলেন অ্যাড. রফিকুল ইসলাম।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More