ঢাকায় চিকিৎসাধীন মেহেরপুরের বিশিষ্ট ব্যবসায়ীর করোনায় মৃত্যু

ল্যাব পরীক্ষায় ২৯ জনের মধ্য নতুন আক্রান্ত ৭ : স্বাস্থ্যবিধি মেনার চলার তাগিদ

মেহেরপুর অফিস: করোনা পজেটিভ নিয়ে ঢাকা-কুয়েত মৈত্রি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন মেহেরপুরের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী বাস মালিক সদস্য খায়রুল ইসলাম। শুক্রবার ভোরের দিকে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। তিনি স্ত্রী ও দুই সন্তানসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। তিনি মেহেরপুর শহরের বেড়পাড়া এলাকায় থাকতেন। অসুস্থ হওয়ার পর কয়েকদিন আগে তিনি ঢাকাতে যান এবং গতকাল সন্ধ্যায় ঢাকা থেকে লাশ মেহেরপুরে পৌঁছুলে গ্রামের বাড়ি সদর উপজেলার ঝাউবাড়িয়া নেয়া হয় এবং নামাজে জানাজা শেষে গ্রাম্য কবরস্থানে তার লাশ দাফন করা হয়।
এদিকে মেহেরপুরে আরো ৭ জন করোনা রোগী চিহ্নিত হয়েছেন। এ নিয়ে বর্তমানে জেলায় মোট করোনা ভাইরাস পজেটিভ রোগীর সংখ্যা ৫১ জন। নতুন আক্রান্ত সাতজনের মধ্যে মেহেরপুর সদর উপজেলার বাসিন্দা চারজন, গাংনী উপজেলার বাসিন্দা দুইজন ও মুজিবনগর উপজেলার বাসিন্দা একজন রয়েছেন। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা ৬ টার দিকে মেহেরপুরের সিভিল সার্জন ডা. মোঃ নাসির উদ্দিন এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পুনঃ পুনঃ তাগিদ দিয়েছেন।
মেহেরপুর সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে আরো জানা যায়, ল্যাবে পরীক্ষা শেষে এদিন বিকেলে নতুন ২৯ জনের ফলাফল পাওয়া যায়। যার মধ্যে সাতজনের দেহে করোনা পজেটিভ হয়। যার মধ্যে দুইটি ফলোআপ পজেটিভ রয়েছে। বাকিগুলোর ফলাফল করোনা নেগেটিভ হয়। এ নিয়ে মেহেরপুর জেলায় ৬ হাজার ২৫৩ টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে জেলায় এ পর্যন্ত মোট ৮৫০ জনের দেহে করোনা পজেটিভ হয়। এর মধ্যে ৭২১ জন সুস্থ হয়েছেন। যার মধ্যে সদর উপজেলায় ৪০৫ জন, গাংনী উপজেলায় ২৩১ জন ও মুজিবনগর উপজেলায় ৮৫ জন রয়েছেন। এছাড়া এ পর্যন্ত মারা গেছেন ১৯ জন। বাকি চিকিৎসাধীন ৫১ জনের মধ্যে সদরে ৩২ জন, গাংনী উপজেলায় ১৬ জন ও মুজিবনগর উপজেলায় তিন জন রয়েছেন। মারা যাওয়া ২১ জনের মধ্যে সদর উপজেলার ১৩ জন, গাংনী উপজেলার ৬ জন এবং মুজিবনগর উপজেলার ২ জন রয়েছেন। এছাড়া ট্রান্সফার্ড হয়েছেন ৬২ জন। এদের মধ্যে সদর উপজেলার ৪৬ জন, গাংনী উপজেলার ১৪ জন ও মুজিবনগর উপজেলার দুই জন রয়েছেন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More