তথ্যপ্রযুক্তির যুগে অপরাধ করে কেউ ছাড় পাবে না

চুয়াডাঙ্গার হিজলগাড়ীতে সাইবারক্রাইম বিষয়ক মতবিনিময়কালে ওসি লুৎফুল কবির

বেগমপুর প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গার ঐতিহ্যবাহী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিজলগাড়ী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সাইবারক্রাইম ও বাল্যবিয়ের কুফল নিয়ে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল রোববার বেলা ১১টার দিকে বিদ্যালয়ের হলরুমে প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেন স্বপনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে সাইবারক্রাইম ও বাল্যবিয়ের কুফল নিয়ে আলোচনা রাখেন দর্শনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি এএইচএম লুৎফুল কবির। এসময় তিনি বলেন, বর্তমান সময়টা ইন্টারনেট কেন্দ্রীক। যেসব যন্ত্র নেটওয়ার্ক দ্বারা একসাথে যুক্ত থাকে যেমন ক¤িপউটার অথবা মোবাইল, এসব যন্ত্র ব্যবহার করে যখন কোনো অপরাধ করা হয় তাকে সাইবার ক্রাইম বলে। যারা এ ধরণের অপরাধের সাথে যুক্ত থাকে তাদের সাইবার অপরাধী বলে। ক্রমবর্ধমান ডিজিটাল যুগের সাথে সাথে ইন্টারনেটে অপরাধের সংখ্যা আরো দ্রুতগতিতে বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ ধরনের অপরাধ যেকোনো দূরবর্তী অবস্থান থেকে করা যেতে পারে। তাই বেশিরভাগ অপরাধী সাইবার ক্রাইমকে বেছে নিচ্ছে। কেনোনা এখানে ধরা পড়ার এবং শাস্তি পাওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে। সাধারণত ফিসিং, হ্যাকিং, সাইবার-নির্যাতন, পরিচয় চুরি করা, ¯প্যামিং এ ধরণের অপরাধ বেশি সংঘটিত হয়ে থাকে। পাশাপাশি ইন্টারনেট আমাদের জীবনকে গতিশীল করেছে। এরই পাশাপাশি বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে আমাদের। ইন্টারনেটের মাধ্যমে সংগঠিত হচ্ছে বিভিন্ন অপরাধ। যা সাইবারক্রাইম নামে পরিচিত। সহকারী প্রধান শিক্ষক আলী হোসেনের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠনে বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ে বিশেষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত অফিসার এসআই শামিম হাসান, সিনিয়র শিক্ষক সফিকুল ইসলাম, আবুল হোসেন, আজিজুল হক, আব্দুল কুদ্দুস, সাজেদুর রহমান, মাসুদ রানা, শেফালি খাতুন, শাহানাজ পারভীন, মিতা বিশ্বাস, নাহিদ পারভেজ, শাহাবুদ্দিন প্রমুখ।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More