দর্শনায় নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ

নৌকা বাইচ বাঙালির হাজার বছরের ঐতিহ্যে লালিত

দর্শনা অফিস: প্রতি বছরের মতো এবারো মাথাভাঙ্গা নদীতে নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা হয়েছে। প্রতিযোগীদের মধ্যে বিতরণ করা হয়েছে পুরস্কার। প্রতিযোগিতার উদ্বোধন ও পুরস্কার বিতরণ করেছেন দামুড়হুদা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলি মুনছুর বাবু। গতকাল শুক্রবার বিকেলে দামুড়হুদার পারকৃষ্ণপুর গ্রামবাসীর আয়োজনে ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতায় ৬টি দল অংশ নেয়। এ প্রতিযোগিতা উপভোগ করতে নদীর তীর ও মাথাভাঙ্গা ব্রিজের ওপরে ছিলো হাজারো মানুষের উপচে পড়া ভীড়। বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে মাথাভাঙ্গা নদীর পারকৃষ্ণপুর ভিমখালী ঘাট থেকে মেমনগর ব্রিজঘাট পর্যন্ত প্রায় ১ কিলোমিটার নদীপথে নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়, পারকৃষ্ণপুরের কৃষ্ণ, রবি, বৈদ্যনাথ, সুকুমার, সুবল ও ভবেসের দল। ৬টি দলের মধ্যে প্রথম স্থান অধিকার করেছে কৃষ্ণ ও তার দল, ২য় হয়েছে রবি ও তার দল ও ৩য় হয়েছেন বৈদ্যনাথ ও তার দল। মেমনগর ব্রিজ সংলগ্ন পার্ক মঞ্চে অনুষ্ঠিত আলোচনাসভা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে, দামুড়হুদা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলি মুনছুর বাবু বলেন, নৌকা বাইচ আবহমান বাংলার একটি ঐতিহ্যবাহী খেলা। নদীমাতৃক বাংলাদেশে নৌকা বাইচ খেলাটি অত্যন্ত জনপ্রিয়। হাজারো মানুষের ঢল তা আবারো প্রমাণ করলো। যারা প্রতি বছর এ ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে থাকে তারা অবশ্যই প্রসংশার দাবিদার। এ ধরনের সুস্থ বিনোদন আপামর জনতার চিত্তকে উৎফুল্ল¬ করে। বিশেষ অতিথি ছিলেন, চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের সাবেক প্রশাসক মাহফুজুর রহমান মঞ্জু, দর্শনা থানার অফিসার ইনচার্জ এএইচএম লুৎফুল কবীর, দর্শনা পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আসলাম আলী তোতা। হাজি আইয়ুব আলী রাজুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নৌকা বাইচ প্রতিযোিীতা কমিটির আহ্বায়ক জিয়াউল হক, আহসান হাবীব, সোহরাব হোসেন, খায়রুল বাসার, আ.আলীম, আলী আহম্মদ, নজরুল ইসলাম, ফয়সাল প্রমুখ। উপস্থাপনা করেন সাংবাদিক হানিফ ম-ল। রাত ৮টায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে বাউল গান গেয়ে দর্শক মাতান ধীরু বাউল ও তার দল।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More