দামুড়হুদায় সরকারি বিধি না মানায় ১১ জনকে জরিমানা

দামুড়হুদা ব্যুরো: স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে চুয়াডাঙ্গা জেলাকে রেড জোন ঘোষণা করার পর করোনা সংক্রমণরোধে কঠোর অবস্থান গ্রহণ করেছে প্রশাসন। গণপরিবহনসহ চেকিং করা হয়েছে বিভিন্ন যানবাহন। মুখে মাস্ক ব্যবহার না করার পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ না করায় ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে করা হয়েছে জরিমানা। গতকাল সোমবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার দিলারা রহমান দামুড়হুদা-দর্শনা সড়কে আব্দুল ওদুদ শাহ ডিগ্রি কলেজের সামনে বেশকিছু গণপরিবহনসহ মোটরসাইকেলের বৈধ কাগজপত্র চেকিং করেন। এছাড়া মুখে মাস্ক ব্যবহার না করায় বয়ষ্ক লোকজনকে প্রাথমিকভাবে সতর্ক করার পাশাপাশি স্বাস্থ্য বিধি না মানায় সড়ক পরিবহন আইন এবং দ-বিধির বিভিন্ন ধারায় ১১ জনের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে মোট ৩ হাজার ৪৫০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।
ভ্রাম্যমাণ আদালতসূত্রে জানা গেছে, করোনা ভাইরাস সংক্রমণরোধে স্বাস্থ্য বিধি অনুসরণ না করা, গণপরিবহনগুলোতে অতিরিক্ত যাত্রীবহনসহ স্বাস্থ্য সুরক্ষা উপকরণ ব্যবহার, মুখে মাস্ক ব্যবহারসহ সরকারি নির্দেশনা অমান্য করায় সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮ এর ৬৬ ধারায় ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে জয়রামপুর গ্রামের আতিয়ার রহমানের ছেলে টিপুকে এক হাজার টাকা, নুতন হাউলীর শাজাহানের ছেলে জাদিুলকে ২শ’ টাকা এবং আব্দুল হাইকে ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া দ-বিধির ১৮৬০ এর ১৮৮ ধারায় ডুগডুগির ফয়েজকে একশো টাকা, জয়রামপুরের আমির হোসেনকে ৫০ টাকা, শেখপাড়ার আবু কাওছারের ছেলে মানিককে ৫০০ টাকা, চুয়াডাঙ্গা বড় বাজারের আক্তার হোসেনের ছেলে জুয়েলকে ৫০০ টাকা, মান্নানের ছেলে বিদ্যুতকে ৫০০ টাকা, চারুলিয়ার ফজলুর রহমানের ছেলে সুজনকে ১০০ টাকা, কাজী মুনছুরের ছেলে মুন্নাকে ১০০ টাকা, জামান মিয়ার ছেলে সবুজকে ১০০ টাকা জরিমানা করা হয়। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাড়ি থেকে বাইরে বের না হওয়ার পাশাপাশি মাস্ক পরিধানসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে সর্বসাধারণের প্রতি আহবান জানিয়েছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার দিলারা রহমান। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা কাজে সহায়তা করেন দামুড়হুদা মডেল থানার এএসআই সাইদ, উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সার্টিফিকেট সহকারী জিহন আলী ও অফিস সহায়ক রফিকুল ইসলাম।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More