নাটক ‘লালব্রিজ অতঃপর’ নিয়ে প্রেস বিফিংয়ে জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার

নাটক চলাকালে পুরোসময় দর্শকরা ১৯৭১ সালে ফিরে যাবে

স্টাফ রিপোর্টার: ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী সারাদেশের মতো চুয়াডাঙ্গাতেও নারকীয় হত্যাযজ্ঞ চালায়। সেইসব গণহত্যার ঘটনা বর্তমান প্রজন্মের সামনে তুলে ধরতে আগামী ৭ ডিসেম্বর চুয়াডাঙ্গা মুক্তদিবসে আলমডাঙ্গার বধ্যভূমিতে আয়োজন করা হয়েছে গণহত্যার পরিবেশ থিয়েটার। এদিন মঞ্চায়ন করা হবে নাটক‘লালব্রিজ অতঃপর।’
জেলা শিল্পকলা একাডেমির সভাপতি ও জেলা প্রশাসক মো. নজরুল ইসলাম সরকার প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। গতকাল রোববার দুপুরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রশাসক বলেন,‘ আলমডাঙ্গার যেখানে গণহত্যা ঘটেছে, সেই লালব্রিজ এলাকার ঘটনার চিত্র নাটকটিতে সুনিপুণভাবে তুলে ধরার প্রস্তুতি চলছে। নাটক চলাকালে পুরোসময় দর্শকরা ১৯৭১ সালে ফিরে যাবে। চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের এমপি সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দারসহ বেশ কয়েকজন বীর মুক্তিযোদ্ধাকে মহড়া দেখতে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলাম। তারা বলেছেন, প্রকৃত ইতিহাস তুলে ধরা হয়েছে।’
প্রেস ব্রিফিংকালে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সাজিয়া আফরিন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) আরাফাত রহমান ও জেলা কালচারাল কর্মকর্তা মো. হাবিবুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।
প্রেস ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, বজলুল রহমান জোয়ার্দ্দারের রচনা ও আব্দুস সালাম সৈকতের নির্দেশনায় নাটকটিতে চুয়াডাঙ্গায় গণহত্যার বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে। গত তিনমাস ধরে জেলা শিল্পকলা একাডেমি ও আলমডাঙ্গা বধ্যভূমিতে নাটকটির মহড়া অনুষ্ঠিত হয়েছে।
প্রযোজনা সমন্বয়কারী জেলা কারচারাল অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) মো. হাবিবুর রহমান বলেন,‘ মহান মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তানী হানাদাররা যে গণহত্যা চালায় আজও তার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি মেলেনি। এছাড়া, গত ৫০বছর ধরে নানাভাবে ইতিহাস বিকৃত করা হয়েছে। নতুন প্রজন্মের কাছে প্রকৃত ইতিহাস তুলে ধরার জন্য এই আয়োজন।’

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More