নৌকা বাইচ বাঙ্গালীর হাজার বছরের ঐতিহ্যে লালিত সংস্কৃতি

মাথাভাঙ্গা নদীতে ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণকালে এমপি টগর

দর্শনা অফিস: প্রতি বছরের মতো এবারো মাথাভাঙ্গা নদীতে নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা হয়েছে। প্রতিযোগিদের মধ্যে বিতরণ করা হয়েছে পুরস্কার। প্রতিযোগিতার উদ্বোধন ও পুরস্কার বিতরণ করেছেন চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজি আলী আজগার টগর। গতকাল সোমবার বিকেলে দর্শনার পারকৃষ্ণপুর গ্রামবাসীর আয়োজনে ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতায় ৭টি দল অংশ নিলেও তা উপভোগ করতে নদীর তীরে রোদের তাপ উপেক্ষা করেছিলো হাজারো মানুষের উপচে পড়া ভীড়। বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে মাথাভাঙ্গা নদীর পারকৃষ্ণপুর ভিমখালী খাট থেকে মেমনগর ব্রিজঘাট পর্যন্ত প্রায় ১ কিলোমিটার নদীপথে নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়, ভবেশ হালদার, বদ্যিনাথ হালদার, রবি হালদার, সুভল হালদার, কৃষ্ণ হালদার, ভক্ত হালদার ও সুকুমার হালদারের দল। মিজান ওয়াল্ডিং ওয়ার্কসপ। প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করেছেন ভবেশ হালদার ও তার দল। ২য় স্থানে বদ্যিনাথ ও তার দল এবং ৩য় হয়েছেন রবি ও তার দল। নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতাটি পরিচালনা করেন আলী আহম্মদ ও নজরুল ইসলাম। প্রতিযোগিতায় ৭টি দলের পৃষ্ঠপোষক ছিলো মিজান ওয়াল্ডিং ওয়ার্কসপ, সোনালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স, মিঠাই ঘর, প্রবাসী রকি, আরএফএল ভিশন, নিপুন ডোর ও রোমাঞ্চ ফ্যাশান। পরে পারকৃষ্ণপুর মাথাভাঙ্গা নদী ঘেষা মিনি পার্ক মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয়েছে পুরস্কার বিতরণ। এ আয়োজনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ও পুরস্কার বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজি আলী আজগার টগর বলেন, নৌকা বাইচ আবহমান বাংলার একটি ঐতিহ্যবাহী খেলা। নদীমাতৃক বাংলাদেশে নৌকা বাইচ খেলাটি অত্যান্ত জনপ্রিয়। এ অঞ্চলে নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে বাংলার এ ঐতিহ্য ধরে রেখেছে পারকৃষ্ণপুর গ্রামবাসী। প্রতি বছরেই এ গ্রামের মানুষ আয়োজন করে থাকে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা। এ প্রতিযোগিতা দেখতে হাজারো মানুষের ঢল নামে। নদীর দুধারে ও মাথাভাঙ্গা ব্রিজে মানুষের উপচে পড়া ভীড়ই জানান দিচ্ছে এ প্রতিযোগিতা কতোটা বিনোদনমূলক। তা আবারো প্রমাণিত হলো প্রচন্ড রোদেও দর্শনার্থীদের সমাগম। এ ধরণের প্রতিযোগিতার মধ্যদিয়েই বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ বিশ্ব দরবারে আরো বেশী পরিচিতি পাবে। যারা প্রতিবছর ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে থাকে তারা অবশ্যই প্রসংশার দাবিদার। এ ধরনের সুস্থ বিনোদন আপামর জনতার চিত্তকে উৎফুল¬ করে। প্রতিযোগিতা পরিচালনা কমিটির উপদেষ্টা হাজি আইয়ুব আলী রাজুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন চুয়াডাঙ্গা সহকারী পুলিশ সুপার (দামুড়হুদা ও জীবননগর সার্কেল) মো. মুন্না বিশ্বাস, কেরুজ চিনিকলের মহাব্যবস্থাপক (প্রশাসন) শেখ শাহাব উদ্দিন, পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউপি চেয়ারম্যান এসএএম জাকারিয়া আলম, দর্শনা থানার অফিসার ইনচার্জ এএইচএম লুৎফুল কবীর, আ.লীগ নেতা মুন্তাজ আলী, বিল্লাল হোসেন, দামুড়হুদা উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আব্দুল হান্নান ছোট, সহ-সভাপতি সোলাইমান কবীর, সহ-সম্পাদক আ. মান্নান খান, দর্শনা পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আসলাম আলী তোতা, যুবলীগনেতা আব্দুস সালাম ভুট্ট, আ. আলীম। প্রতিযোগিতার আহ্বায়ক জিয়াউল হকের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন হাবিবুর রহমান, খায়রুল বাসার, মনিরুল ইসলাম, মহিউদ্দিন গোলজার, রিপন, হৃদয় প্রমুখ। সার্বিক অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন সাংবাদিক হানিফ ম-ল ও মোখলেসুর রহমান।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More