পূর্ব বিরোধ? সশস্ত্র হামলায় আওয়ামী লীগ কর্মী গুলিবিদ্ধ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে সন্ত্রাসী হামলায় সোহেল রানা ওরফে লেনিন (৪০) নামে এক আওয়ামী লীগ কর্মী গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। বুধবার রাত পৌনে ১০টার দিকে জগন্নাথপুর ইউনিয়নের হোগলা বাজারে তিনি গুলিবিদ্ধ হন। আহত সোহেল রানা ওরফে লেনিন একই ইউনিয়নের চাঁপাইগাছি গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে এবং জগন্নাথপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ফারুক আহমেদ খানের নিকটতম আত্মীয়। বর্তমানে তিনি কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
প্রত্যক্ষদর্শী দোকান মালিক সায়েক আলী ওরফে করিম ও আবু বক্কার বাকু জানান, রাত পৌনে ১০টার দিকে লেনিন দোকানে বসে থাকা অবস্থায় ৩-৪টি মোটরসাইকেলে ৭-৮ জন অজ্ঞাত ব্যক্তি এসে অতর্কিত লেনিনের ওপর হামলা চালায় এবং ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপ দিলে তার বৃদ্ধাঙ্গুলি কেটে যায়।লেনিন একজনকে পেছন থেকে চেপে ধরলে ওরা গুলি করে পালিয়ে যায়। অজ্ঞাতনামাদের ছোড়া গুলি লেনিনের দুই পায়ের হাঁটুর নিচে লাগে। এতে লেনিন গুরুতর অসুস্থ হলে স্বজনরা উদ্ধার করে কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে কুষ্টিয়া হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন। হামলাকারীদের কাউকে চেনা যায়নি। তারা স্থানীয় নয়, ভাড়াটে সন্ত্রাসী হতে পারে।
এ বিষয়ে আহত সোহেল রানা লেনিন বলেন, করিমের দোকানে বসে থাকা অবস্থায় ৩-৪টি মোটরসাইকেলে হান্নান, মেহেদী, ফিরোজ, আতিয়ারসহ ৪-৫ জন দোকানে এসে আমার হাতে কোপ মারে। এ সময় আমি ওদের ধাক্কা দিয়ে পালাতে গেলে হান্নানের নেতৃত্বে প্রথমে মেহেদী এবং পরে মিজান গুলি করে। জগন্নাথপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ফারুক আহমেদ খান বলেন, প্রতিপক্ষরা আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে এসেছিল। আমাকে না পেয়ে আমার নিকটতম আত্মীয় ও আওয়ামী লীগ কর্মী লেনিনকে কুপিয়ে ও গুলি করে গুরুতর আহত করে। এ বিষয়ে জগন্নাথপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফারুখ আজম হান্নান বলেন, বুধবার চরজগন্নাথপুরে ইফতার করে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে কুমারখালী শহরের নিজ বাড়িতে চলে আসি। এ বিষয়ে আমি কিছুই জানি না। কয়েক দিন পূর্বে আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে সভাপতির নির্দেশে হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত করে। আমি এখনো পর্যন্ত অসুস্থ।
কুমারখালী থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) রাকিব হাসান বলেন, লেনিন নামের একজন হাতে কোপ ও পায়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়েছেন। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে প্রতিপক্ষরা এ হামলা চালাতে পারে। তিনি বলেন, এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত চলছে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More