মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের নির্যাতনের প্র্রতিবাদ ও জড়িতদের শাস্তির দাবিতে চুয়াডাঙ্গায় মানববন্ধন ও সমাবেশ

স্টাফ রিপোর্টার: মুক্তিযোদ্ধা ও পরিবারের সদস্যদের খুন, হত্যা চেষ্টা ও ভূমি দখলদারদের বিরুদ্ধে শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখা। মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ড চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার সাবেক কমান্ডার আবু হোসেন।

তিনি বলেন, আমরা জীবন বাজি রেখে বঙ্গবন্ধুর ডাকে মুক্তিযুদ্ধে হানাদার বাহিনীর ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে এই দেশ স্বাধীন করেছিলাম। আর আজ স্বাধীনতার ৫০ বছর পরে মনে হচ্ছে আবার নব্য রাজাকারের সামনে পড়েছি। তা নাহলে চট্টগ্রামের বাঁশখালির এমপি কর্তৃক আমার মুক্তিযোদ্ধা ভাইকে লাঞ্ছিত হতে হবে কেনো। আমরা ওই সমস্ত সন্ত্রাসীদের বলতে চাই, তোমরা মনে রেখো আমরা অস্ত্র জমা দিয়েছি কিন্তু ট্রেনিং জমা দিইনি। প্রয়োজন হলে আমরা আবার যুদ্ধ ঘোষণা করবো তোমাদের বিরুদ্ধে। সরকারের কাছে আবেদন, মুক্তিযোদ্ধাদের সাংবিধানিক স্বীকৃতি ও মুক্তিযোদ্ধাদের পরিবারের সুরক্ষা আইন প্রণয়ন করতে হবে। মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার আহ্বায়ক সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান গরিব রুহানী মাসুম বলেন, আমরা মুক্তিযোদ্ধা পরিবার আজ পদে পদে নির্যাতনের শিকার হচ্ছি। আপনারা দেখেছেন ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুক্তিযোদ্ধার কন্যা ও তার মুক্তিযোদ্ধা বাবাকে হত্যার উদ্দেশ্যে নির্মমভাবে রক্তাক্ত আহত করা হয়েছে। বিনা চিকিৎসায় রোগী মারা হচ্ছে, প্রতিবাদ করতে গেলে তাকে মিথ্যা মামলা দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করা হচ্ছে। মুক্তিযোদ্ধাদের জমি জায়গা জোর করে দখল করছে। এই সমস্ত অপরাধীদের আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। মুক্তিযোদ্ধা সংরক্ষিত কোটা পুনর্বহাল করতে হবে। এছাড়া বক্তব্য রাখেন, বীর প্রতীক সাইদুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ হোসেন খান, বীর মুক্তিযোদ্ধা মস্তফা খান, বখতিয়ার হোসেন, বায়েজীদ জোয়ারদার, কাছেদ, আলিফ জোয়ারদার, সোহেল রানা, মিজান প্রমুখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম সরোয়ার ওরফে বাবলু মাস্টার। মানববন্ধন শেষে শহীদ হাসান চত্বর থেকে মিছিল বের করে পোস্ট অফিস পর্যন্ত ঘুরে আবার হাসান চত্বরে এসে শেষ হয়।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More