মুজিবশতবর্ষে চুয়াডাঙ্গায় ব্ল্যাক বেঙ্গল গোটের ২৫ খামারীদের মাঝে উপকরণ বিতরণ

স্টাফ রিপোর্টার: মুজিবশতবর্ষে চুয়াডাঙ্গায় ব্ল্যাক বেঙ্গল গোটের শত খামার স্থাপন উদ্যোগের অংশ হিসেবে সদর উপজেলার ২৫ জন খামারীদের মাঝে উপকরণ বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার বিকেলে সদর উপজেলা প্রাণিসম্পদ প্রশিক্ষণ কক্ষে বিতরণ কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়। চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রাণিসম্পদ দফতর যৌথভাবে আনুষ্ঠানটির আয়োজন করে।
সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শামীম ভুইয়া’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উপকরণ বিতরণ অনুষ্ঠানে জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. গোলাম মোস্তফা প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। এ সময় সদর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা (ইউএলও) ডা.এএইচএম শামিমুজ্জানের সঞ্চালনায় খামারি নুর জামাল ও দোয়ালিন বক্তব্য রাখেন। উপকরণ বিতরণ কার্যক্রমে ২৫ খামারিকে সাইনবোর্ড, ৩০ খামারিকে কৃমির ওষুধ ও একজন খামারিকে এলডিপি প্রকল্পের আওতায় ক্রীম সেফারেটর মেশিন প্রদান করা হয়।
উপকরণ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. গোলাম মোস্তফা বলেন, চুয়াডাঙ্গা জেলার ব্র্যান্ড ব্ল্যাক বেঙ্গল গোট। ছাগলকে ভালোবাসি। এ কর্মসূচি যাতে অব্যাহত থাকে প্রাণিসম্পদ বিভাগ সেটা প্রত্যাশা করে। ব্ল্যাক বেঙ্গলের শত খামার প্রকল্প জেলা প্রশাসক প্রস্তাব দিলে আমি তা গ্রহণ করেছি। খামারিদের ঘর ও মাচার দাবি করা হলে জেলা প্রশাসক মাচা দেয়ার প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়েছে। এ পেশাটা ছোট কিছু নয়। করোনার সময় অধিক জনগোষ্ঠির দেশে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য প্রাণিসম্পদ বিভাগ চালু ছিলো। শুধুমাত্র স্বাস্থ্য, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ চালু ছিলো আর অন্য সকল প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিলো। চাকরি নয়, নিজেরা উদ্যেক্তা হও প্রধানমন্ত্রী বলেছেন। খাসজমি কৃষকদের দিলে ঘাস উৎপাদনে সহযোগিতা করবে। পিপিআর টিকা দিয়ে কোরবানীর সময় ৮৩ হাজার ছাগল প্রস্তুত করেছিলাম। শতকরা ৫ ভাগ সুদে ছাগল খামারিদের ব্যাংক থেকে ঋণ দেয়ার কথা। কিন্তু পাচ্ছে না। ব্যাংক সঠিক মানুষকে ঋণ দেয় না। কাপড় ব্যবসায়ীকে টাকা দেয়। যথাযথ কৃষকরা ঋণ পাচ্ছে না।
সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামীম ভুইয়া বলেন, খামারিদের ব্যাংক থেকে ঋণ পেতে আমরা সহযোগিতা করবো। যতদিন আছি, আপনাদের পাশে পাবেন। প্রকৃত কৃষকরা ঋণ পান না। আপনাদের উৎপাদিত ছাগল যেনো নিরাপদ হয়। খামারিদের ডাটাবেজ তৈরী করতে হবে। এক ইঞ্চি জমি ফেলে রাখা যাবে না প্রধানমন্ত্রী বলেছেন। আমাদের ছেলে-মেয়েদের বিয়ে দিতে ছাগল দরকার হয়।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More