মেহেরপুরের আমঝুপি ইকোপার্কের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনকালে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন

যতো ভাল কাজ আছে তা এই মেহেরপুরে করা সম্ভব
মেহেরপুর অফিস: মেহেরপুরের আমঝুপি ইকোপার্ক উন্নয়ন কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বিকেলের দিকে মেহেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ইকোপার্ক উন্নয়নমূলক কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।
জেলা প্রশাসক ড. মোহাম্মদ মুনসুর আলম খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন মেহেরপুরের পুলিশ সুপার মো. রাফিউল আলম, মেহেরপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ গোলাম রসুল, জেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক পিপি অ্যাডভোকেট পল্লব ভট্টাচার্য, বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদের সভাপতি প্রফেসর হাসানুজ্জামান মালেক, আমঝুপি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বোরহান উদ্দিন আহমেদ চুন্নু। অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক মৃধা মোহাম্মদ মুজাহিদুল ইসলাম। প্রধান অতিথি জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এমপি তার বক্তব্যে বলেন, শেখ মুজিবের নামানুসারে মেহেরপুরের মুজিবনগর। আবার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই প্রথম এখান থেকে একজন মন্ত্রী দিয়েছেন। তাই যতো ভাল কাজ এই মেহেরপুরে করা সম্ভব। জেলা পরিষদের মাধ্যমে ৮৫ লাখ টাকা ব্যয়ে আমঝুপি ইকোপার্কের পাঁচিল নির্মাণ হচ্ছে। অচিরেই আমরা কাজলা খনন শুরু করবো। ইতোমধ্যে স্বরস্বতী খাল, ভৈরব নদের বড় একটা অংশ, মরাগাং, ছেউটিয়াসহ বিভিন্ন নদী খনন হয়েছে। বাকি অংশের কাজ শুরু হচ্ছে। অচিরেই ভৈরব নদের বাকি অংশ খনন শুরু করা হবে। তাই মেহেরপুরে মাছের ঘাটতি কমেছে। বেকারত্ব অনেকাংশে কমেছে। ইচ্ছে করলে যে কেউ আমাদের এসব উন্মুক্ত জলাশয়ে মাছ ধরতে পারবেন। এসব নদ-নদী থেকে ধরা মাছ বিক্রি করলেও তার দিন হাজিরা হয়ে যাবে। তিনি আরও বলেন, আমঝুপি ও বারাদী ফার্মের মাঝে কৃষি গবেষণা করা হবে। যেখানে ৫৭ জন গবেষক কৃষির উন্নয়নে কাজ করবেন। মেহেরপুরে শতভাগ বিদ্যুৎ ব্যবস্থা হয়েছে। শতভাগ রাস্তার কাজ শেষ হওয়ার পথে। অচিরেই ৫৬ কিলোমিটারের মেহেরপুর-কুষ্টিয়া মহাসড়কের কাজ শুরু হবে। যার মধ্যে ৮ কিলোমিটার ৪ লেনের হবে। গত ৬-৭ বছরে আমরা মেহেরপুরে ৭৫টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও ৮৫টি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভবন নির্মাণ করে দিয়েছি। তিনি আরও বলেন, মুজিবনগর কমপ্লেক্সের উন্নয়ন করা হবে। সেখানে স্থলবন্দর হচ্ছে। মেহেরপুরে বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে। শিশু পার্ক সহ আমঝুপিতে একটি রেস্ট হাউজ করা হবে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More