মেহেরপুরে একদিনে আরও ৮১জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত

কঠোর নির্দেশনা বাস্তবায়নে সকলকে সতর্ক থাকার আহবান
মেহেরপুর অফিস: প্রতিদিন করোনা রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় মেহেরপুর জেলায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৮১ জন। আক্রান্তের হার শতকরা প্রায় ৪১ ভাগ। মেহেরপুরে সচেতন মানুষের মাঝে বাড়ছে উদ্বেগ উৎকন্ঠা। তাই মেহেরপুরের লকডাউন কঠোরভাবে পালনে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন তৎপরতা অব্যাহত রেখেছে। সফলভাবে শহরে লকডাউন পালিত হচ্ছে ।
গত ২৪ ঘণ্টায় মেহেরপুর জেলায় নতুন করে ৮১ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে মেহেরপুর সদর উপজেলায় ২৫জন, গাংনী উপজেলায় ৩৯ ও মুজিবনগর উপজেলায় ১৭ জন রয়েছেন। এ নিয়ে বর্তমানে জেলায় মোট করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগির সংখ্যা ৪৮৫ জন। গতকাল সোমবার রাতে সিভিল সার্জন ডা. মো. নাসির উদ্দিন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
মেহেরপুর সিভিল সার্জন অফিস আরও জানায়, কুষ্টিয়া ল্যাব থেকে ১৯৭টি নমুনা পরীক্ষা শেষে সবগুলো রিপোর্ট মেহেরপুরে এসে পৌঁছে। এর মধ্যে ৮১ জন করোনা রোগী চিহ্নিত হয়েছেন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন মোট ৪৮৫জন করোনা রোগীর মধ্যে সদর উপজেলার বাসিন্দা ১৯১ জন, গাংনী উপজেলার বাসিন্দা ১৯৬ জন ও মুজিবনগর উপজেলার বাসিন্দা ৯৮ জন। এছাড়া ট্রান্সফার্ড হয়েছেন ১১০ জন। এদের মধ্যে সদর উপজেলার ৬৮ জন, গাংনী উপজেলার ১৭ জন ও মুজিবনগর উপজেলার ২৫ জন রয়েছেন। এ ছাড়া নতুন ৪৬ জনসহ এ পর্যন্ত সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন এক হাজার ১৫৯ জন । যার মধ্যে সদর উপজেলায় ৬২৭ জন, গাংনী উপজেলায ৩৮০ জন ও মুজিবনগর উপজেলায় ১৫২ জন রয়েছেন। এছাড়া এ পর্যন্ত মারা গেছেন ৪৬ জন। যার মধ্যে সদর উপজেলায় ১৫জন, গাংনী উপজেলার ১৯ জন ও মুজিবনগর উপজেলার ১২ জন রয়েছেন।
এদিকে করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় দফায় উদ্বেগজনক হারে সংক্রমণের প্রেক্ষিতে মেহেরপুর জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের জনসচেতনতা ও প্রচারণা অব্যাহত রয়েছে। মাস্ক পরার অভ্যেস, করোনামুক্ত বাংলাদেশ’ এই সেøাগানকে সামনে রেখে মেহেরপুর পুলিশের উদ্যোগে সাধারণ মানুষের মধ্যে শতভাগ মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিতকরণে সচেতনতামূলক কার্যক্রমসহ জনসাধারণের মাঝে মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল সোমবার সকালের দিকে মেহেরপুর পুলিশের একটি দল মেহেরপুর শহরের বিভিন্ন এলাকায় জনসচেতনতামূলক প্রচারণা চালান। অযাথা ঘরের বাইরে বের না হওয়ার জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে আহ্বান জানানো হয়। একই সাথে সকলকে মাস্ক ব্যবহার করার জন্য আহ্বান জানানো হয়।
এদিকে মেহেরপুর জেলাব্যাপী লকডাউন ঘোষণার ৫মদিনে জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ শহরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেছেন। মেহেরপুরে করোনা সংক্রমণ মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। যার কারণে সোমবার লকডাউনের ৫ম দিনে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাসুদুল আলম শহরের হোটেল বাজার মোড়সহ বিভিন্ন এলাকায় কঠোর নির্দেশনা বাস্তবায়নে অভিযান পরিচালনা করেন। সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার কঠোর নির্দেশনা বাস্তবায়নে সকলকে সতর্ক থাকার আহবান জানান এবং নিজের সুরক্ষার সাথে সাথে পরিবার ও দেশের মানুষকে বাঁচাতে সবাইকে কাজ ছাড়া বাহিরে না আসার আহবান জানান। মেহেরপুর সদর থানার এসআই এবাদত হোসেনসহ সদর থানা পুলিশের একটি দল এ সময় তার সাথে ছিলেন। তবে বিকেল থেকে রাত অবধি গ্রাম-গঞ্জের চায়ের দোকানসহ সব ধরণের দোকান-পাঠ খোলা ছিল।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More