মেহেরপুরে মেয়র ও কাউন্সিলরদের লাল গালিচা সংবর্ধনা প্রদান

 

মেহেরপুর অফিস: মেহেরপুর পৌরসভার নব-নির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরদের লাল গালিচা সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে। গতকাল রোববার বেলা ১১টার দিকে পৌর মেয়র মাহফুজুর রহমান রিটনের নেতৃত্বে নির্বাচিত ৯ কাউন্সিলর ও ৩ সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পৌরসভায় প্রবেশ করলে তাদের লালগালিচা সংবর্ধনা দেয়া হয়। এসময় পৌরসভার কর্মীরা মেয়র এবং কাউন্সিলরদের ফুলের পাঁপড়ি ছিটিয়ে বরণ করে নেন। পরে মেহেরপুর পৌরসভার কালাচাঁদ মেমোরিয়াল হল মিলনায়তনে নব-নির্বাচিত মেয়র, কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলরদের আনুষ্ঠানিকভাবে বরণ ও সংবর্ধনা দেয়া হয়। মেহেরপুর পৌরসভার সচিব জিএম ওবায়দুল্লাহ’র সভাপতিত্বে সংবর্ধনা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মেহেরপুর পৌরসভার সংবর্ধিত মেয়র মাহফুজুর রহমান রিটন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ গোলাম রসুল, মেহেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাড. ইয়ারুল ইসলাম, পৌর মেয়র মাহফুজুর রহমান রিটনের পত্নী আরিফা আক্তার, মেহেরপুর শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি ইকবাল হোসেন বুলবুল, জেলা যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক শহিদুল ইসলাম পেরেশান। মেহেরপুর অরনীর সভাপতি নিশান সাবেরের সঞ্চালনায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আল মামুন, ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি শওকত আলী, অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আব্দুর রব প্রমুখ। এর আগে মেয়র ও কাউন্সিলররা শোভাযাত্রা নিয়ে মেহেরপুর পৌর কার্যালয় চত্বরে এসে পৌঁছান। মেয়র মাহফুজুর রহমানের রিটনের নিজস্ব কার্যালয় থেকে শোভাযাত্রাটি বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে মেহেরপুর শহীদ ড. সামসুজ্জোহা নগর উদ্যানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালে পুস্পমাল্য অর্পণ করে বিনম্র শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত কাউন্সিলরসহ আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা কর্মীরা এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন। পরে শোভাযাত্রাটি পৌর কার্যালয় প্রধান ফটকের সামনে এসে পৌঁছালে সেখানে লালগালিচা সংবর্ধনা দেয়া হয়। লাল গালিচায় পৌরসভার কর্মীরা মেয়রকে পুষ্পমাল্য পরিয়ে এবং পুষ্পবৃষ্টি ছিটিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে বরণ করে নেন। পৌরমেয়র মাহফুজুর রহমান রিটনের নেতৃত্বে নব-নির্বাচিত কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলরা পৌরসভা প্রাঙ্গণে পৌঁছানোর সাথে সাথে পৌরসভার সমস্ত ফোয়ারাগুলো উন্মুক্ত করে দেয়া হয়। এসময় সেখানে এক আনন্দঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More